পরিবারের সব ভাইয়ের ‘বউ’ একটাই, অবাধে চলে যৌনতা! ভারতের পড়শি দেশে চলছে অদ্ভুত রেওয়াজ

একই নারীকে বিয়ে করেন পরিবারের সব ভাইয়েরা, চলে অবাধ যৌনতা! কোথায় এই নিয়ম?

Viral Tribal Rituals : সোশ্যাল মিডিয়ার সুবাদে বিশাল এই পৃথিবী যেন এখন আমাদের হাতের মুঠোয় চলে এসেছে। নানা দেশের নানা ধরনের রীতি-রেওয়াজ সম্পর্কে জানা এখন খুব সহজ হয়ে উঠেছে নেট দুনিয়ার মাধ্যমে। কখনও কখনও এমন কিছু অদ্ভুত ঘটনার কথাও প্রকাশ্যে আসে যা কার্যত সভ্য সমাজের কল্পনারও বাইরে। এমনই এক অদ্ভুত ঘটনা ঘটছে ভারতেরই প্রতিবেশী রাষ্ট্রে। যা শুনে চোখ কপালে উঠেছে সকলের।

এক পরিবারের সকল ভাইয়ের এক স্ত্রী!

এই পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে বিভিন্ন উপজাতির মধ্যে বিয়ে নিয়ে নানা অদ্ভুত অদ্ভুত সব প্রথার প্রচলন রয়েছে। তবে আপনি কি জানতেন মহাভারতের দ্রৌপদী এবং পঞ্চপান্ডবের বিয়ের মত নিয়ম আজও পালন হয়? ভারতের পড়শী এমন এক রাষ্ট্র রয়েছে যেখানে এক পরিবারের সব ভাইয়ের একটাই স্ত্রী থাকেন। বছরের পর বছর, যুগের পর যুগ ধরে চলে আসছে এই নিয়ম।

fraternal polyandry marriage

কোথায় ঘটছে এমন ঘটনা?

এমন অদ্ভুত ঘটনা ঘটছে ভারতের প্রতিবেশী নেপাল রাষ্ট্রে। নেপালের এক জনজাতির মধ্যে এই প্রথার প্রচলন রয়েছে। যুগের পর যুগ ধরে চলে আসছে এই নিয়ম। এই প্রাচীন রীতি আজও মেনে চলেন এই প্রজন্মের মানুষেরা। তবে এখন অবশ্য আগে তুলনায় অনেকটাই কমে এসেছে এমন বিয়ের পরিসংখ্যান। তবে হ্যাঁ, একটা সময় ছিল যখন নেপালের ওই গোষ্ঠীর মধ্যে ব্যাপক আকারে প্রচলন ছিল এই প্রথার।

কেন এমন অদ্ভুত নিয়ম পালন করা হয়?

প্রথা অনুসারে নেপালের ওই নির্দিষ্ট গোষ্ঠীর জনজাতির মানুষের প্রত্যেকটি পরিবারে সব ভাইদের একই নারীকে বিয়ে করতে হত। প্রধানত দরিদ্র পরিবারগুলির কথা মাথায় রেখেই নাকি এই রীতির প্রচলন হয়েছিল। দরিদ্র পরিবারে একাধিক সন্তান বড় করে তোলা বেশ কঠিন। সব ভাইয়ের একজন স্ত্রী হলে সন্তান সংখ্যাও কম হয়। এছাড়াও এতে সম্পত্তির বন্টন হয় না এবং পরিবারে ভাঙ্গন ধরে না। তাই প্রচলন রয়েছে এই রেওয়াজের।

আরও পড়ুন : হিজড়েরাও বিয়ে করে কিন্তু তাদের বিয়ের পদ্ধতি কেউই জানে না

fraternal polyandry marriage

আরও পড়ুন : মাঝরাতে লুকিয়ে কেন দাহ করা হয় হিজড়েদের? কেন কিন্নরদের অন্তিম সংস্কার দেখতে নেই?

মহিলাদেরও কোনও আপত্তি থাকে না এই রেওয়াজে

সব থেকে অদ্ভুত বিষয় হল মহিলারা এই প্রথায় স্বেচ্ছায় মত দান করেন। তাদের যুক্তি এক স্বামীর মৃত্যু হলেও তারা একা হয়ে পড়বেন না। কারণ বাকি ভাইয়েরা তো থাকছেনই তার দেখভাল করার জন্য। তাই মহিলারাও সানন্দে এই প্রথাতে মত দেন। তবে বর্তমান প্রজন্মে এক নারীর একাধিক স্বামী বা সব ভাইদের একটাই বউ থাকার রেওয়াজ নেপালের ওই জনজাতির মধ্যে অনেকটাই কমে এসেছে।