ভোটের মাঝেই ডেটে গেলেন নুসরত যশ, পোস্ট করলে ছবি

একুশের নির্বাচন উপলক্ষে রাজ্য রাজনীতি বেশ উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে। চলতি দফার নির্বাচনে বিজেপি এবং তৃণমূলের মধ্যে কার্যত জোর সংঘাত লক্ষ্য করা যাচ্ছে। উভয় দলেই তারকা প্রার্থীদের ভিড়ও বেশ লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এই মহাযুদ্ধে বিজেপির তরফে সৈনিক হিসেবে লড়াই করছেন টলিউড অভিনেতা যশ দাশগুপ্ত। আবার তৃণমূলের তরফ থেকে একুশের লড়াইয়ে লড়ছেন নুসরাত জাহান।

নুসরাত এবং যশ, একে অপরকে ডেট করছেন। তাদের মধ্যের বন্ধুত্বের সম্পর্ক ক্রমশই গাঢ় হচ্ছে। শীঘ্রই যশ এবং নুসরাত বাস্তবে জুটি হতে চলেছেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় তাদের বিভিন্ন পোস্ট থেকে আপাতত এমনটাই অনুমান করছেন নেটিজেনরা। উভয়ের ভিন্ন রাজনৈতিক মতাদর্শ কিন্তু তাদের প্রেমের পথে বাধা হয়ে দাঁড়ায়নি।

বসন্তের আমেজ নিয়ে প্রেমের মরশুম শুরু হয়ে গিয়েছে। এমন সময়ে কি যুগলেরা একে অপরের সান্নিধ্য ছেড়ে থাকতে পারেন? সারাদিন ভোটের প্রচারে এবং নির্বাচন সংক্রান্ত অন্যান্য কাজকর্মে অক্লান্ত পরিশ্রমের পর রাতে ডিনার টেবিলে যদি মনের মানুষের সঙ্গে সময় কাটানো যায় তাহলে নিমেষেই সব ক্লান্তি যেন দূর হয়ে যায়।

Nusrat Jahan and Yash Dasgupta

সম্প্রতি নুসরাতের ইনস্টাগ্রাম স্টোরি যশ এবং নুসরাতের প্রেমময় সম্পর্ককে ফের একবার নেটিজেনদের সামনে নিয়ে এলো। এবার অবশ্য নেটমাধ্যমে এই যুগলের ছবি ফুটে ওঠেনি। বরং সেই জায়গায় ঠাঁই পেয়েছে টেবিল ভর্তি লোভনীয় কিছু ডেজার্টের ছবি। ছবির সঙ্গে ক্যাপশনে অভিনেত্রী লিখেছেন, “এই টেবিলে আমার সব পছন্দের খাবার রয়েছে। সঙ্গে রয়েছেন আমার ফেভারিট যশ দাশগুপ্ত”।

প্রেমিকার এই স্টোরি দেখে যশও তাকে নিজের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। তিনি এর উত্তরে লিখেছেন, “তোমার এই তৃপ্তির আমেজ নিচ্ছি আমি!” রাজনীতির বাইরে বেরিয়ে চুটিয়ে প্রেম করছেন যশ এবং নুসরাত। তাদের সম্পর্কে তারা কোনও রাজনৈতিক রঙ লাগতে দিতে চান না। রাজনীতি থাকুক রাজনীতির জায়গায়, প্রেম থাকবে প্রেমের জায়গায়। এই নীতিতেই বিশ্বাসী উভয়ে।