ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘পাবুক’, কড়া ঠান্ডায় কাঁপবে রাজ্য

ঠান্ডায় কাবু গোটা দেশ এরই মধ্যে ইন্দোনেশিয়া ও তার পার্শ্ববর্তী এলাকায় মঙ্গলবার ব্যাপক বৃষ্টিপাত হয়েছে। আবদাওয়া দফতর সূত্রের খবর দক্ষিণ চিন সাগরে তৈরি হয়েছে এক অতি শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ‘পাবুক’। আন্দামানের পর্যটকদের জন্য তাই আগাম সতর্কবার্তা জারি হয়েছে৷ শনিবার, ৫ জানুয়ারি আন্দামান সাগরে ঘূর্ণিঝড় প্রবেশ করতে পারে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা৷ ৫-৭ জানুয়ারি তাই ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে৷

আগামী ৫ জানুয়ারি আন্দামান সাগরে ধেয়ে আসতে পারে ‘পাবুক’। ইতিমধ্যেই আন্দামানের পর্যটকের জন্য জারি হয়েছে সতর্কবার্তা। এই মুহূর্তে পোর্ট ব্লেয়ার থেকে ১৫০০ কিমি দূরে অবস্থান করছে এই ঘূর্ণিঝড়। কাল থেকে মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যেতে নিষেধ করেছে প্রশাসন।

আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে পাবুকের জেরে ৫,৬ ও ৭ তারিখে ভারি বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। আন্দামান-নিকোবরে ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টি হতে পারে। জানা গিয়েছে পশ্চিমী ঝঞ্ঝার জেরে উত্তরবঙ্গের উপরে অক্ষরেখা অবস্থান করছে যার ফলে উত্তরবঙ্গ ও সিকিমে হালকা বৃষ্টির পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে।

পশ্চিমী ঝঞ্ঝার জেরে উত্তরবঙ্গের উপরে অক্ষরেখা৷ এর জেরে উত্তরবঙ্গ ও সিকিমে হালকা বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে৷ উত্তর ও পূর্ব সিকিমে তুষারপাত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এই রাজ্যে সরাসরি প্রভাব ফেলবে না ঘূর্ণিঝড়। তবে আগামী ৪৮ ঘণ্টা শীতের আমেজ থাকলেও ঘূর্ণিঝড়ের কারণে বাড়তে পারে তাপমাত্রা।

আন্দামান-নিকোবরে ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে৷ পোর্ট ব্লেয়ার থেকে ১৫০০ কিমি দূরে দক্ষিণ চিন সাগরে তৈরি হয়েছে ঘূর্ণিঝড়৷ শুক্রবার থেকে মৎস্যজীবীদের সুমদ্রে যেতে নিষেধ করা হয়েছে৷

Loading...