অভিষেকের মৃত্যুর পর খোঁজ নেয়নি কেউ, মুখ ফিরিয়েছে আত্মীয়রাও, বিস্ফোরক অভিযোগ অভিনেতার স্ত্রী-কন্যার

অভিষেকের মৃত্যুর পর কেমন আছেন তার স্ত্রী ও কন্যা, মুখ খুললেন অভিষেক-পত্নী সংযুক্তা

Star Jalsha Forced Abhishek Chatterjee to Shoot for Ismart Jodi Claims Sanjukta Chatterjee

চলতি বছরের শুরুতেই টলিউডে (Tollywood) নেমে আসে অন্ধকার। প্রখ্যাত টলিউড (Tollywood) তারকা অভিষেক চ্যাটার্জির (Abhishek Chatterjee) মৃত্যুর খবর আচমকারী যেন নাড়িয়ে দিয়েছিল গোটা বাংলাকে। অভিষেকের মৃত্যুর পর একে একে ইন্ডাস্ট্রির বিরুদ্ধে তার মনের মধ্যে জমে থাকা ক্ষোভ ফের একবার প্রকাশ্যে এসেছিল তার পুরনো সাক্ষাৎকারের মাধ্যমে। অভিষেকের মৃত্যু নিয়ে তার স্ত্রী সংযুক্তা ব্যানার্জি (Sanjukta Banerjee) এবং কন্যা সাইনা চ্যাটার্জীর (Saina Chatterjee) মনেও ক্ষোভ কিছু কম নেই।

অভিষেকের প্রয়াণে সবথেকে বেশি প্রভাবিত হয়েছেন তার স্ত্রী এবং কন্যা। ২৪ শে মার্চ প্রয়াত হয়েছেন অভিষেক। তার মৃত্যু নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে চলেছিল তুমুল চর্চা। ধীরে ধীরে সেসব থেমে গিয়েছে। অভিষেকের স্মৃতিটা এরই মধ্যে ফিকে হতে শুরু করেছে নেটিজেনদের কাছে। অভিষেকের স্ত্রী সংযুক্তা এবং একমাত্র কন্যা ডল আজ কেমন আছেন, কী করছেন, কীভাবে কাটছে তাদের দিন, সেসব নিয়ে আর কেউ ভাবিত নয়।

সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে বর্তমান জীবন সম্পর্কে মুখ খুললেন অভিষেকের স্ত্রী সংযুক্তা। তাকে প্রশ্ন করা হয়েছিল কাছের মানুষেরা আগের মতই তাদের খোঁজখবর নিচ্ছেন কিনা? তার উত্তরে অভিষেক পত্নী যা জানালেন তা অবাক করবেন। তিনি জানিয়েছেন কাছের মানুষেরা কেউই তাদের খোঁজখবর নেয় না এখন আর। অভিষেক-কন্যা ডলও পাশে বসেই মাথা নেড়ে মাকেই সমর্থন করে।

তবে সংযুক্তা অবশ্য বলেছেন কেউ তাদের খোঁজ নিন বা না নিন, সেটা তাকে খুব একটা প্রভাবিত করে না। তার কথায়, “এটা খুব একটা গুরুত্ব পায় না আমার কাছে। তোমরা আমায় দেখছই। আর আমার বেসটা মুম্বইতে। ওখানে সবাই খুব স্বতন্ত্র জীবন কাটায়। তাই ওটার অভ্যেস আছে। আইসিআইসিআই ব্যাঙ্ক থেকে শুরু করে একাধিক ব্যাঙ্কে কাজ করেছি। কাজের সূত্রে আমার অভ্যেসও আছে টিম লিড করার, সবাইকে পথ দেখানোর। তাই জীবন যখন আমাকে এখানে নিয়ে এল সামলে নিতে সমস্যা হয়নি”।

সবশেষে তিনি বলেন, “দিনের শেষে তুমি কী করে জিনিসটা চালাচ্ছ। সঠিক পথে থাকাটা দরকার। সৎ থাকো, সঠিকভাবে চলো, তাহলেই সব ঠিক থাকবে। কে যোগাযোগ করল কি করল না তা সত্যি গুরুত্ব পায় না। আমার এখন সব উদ্দেশ্য হচ্ছে ডলকে দাঁড় করানো। আমি তো বলি তুই ভালো ভাবে দাঁড়িয়ে যা, তারপর আমি ওকে যোগ দেব। তবে ডলুমা যতক্ষণ না বড় হবে কোথাও যাচ্ছি না”।

Here is how Abhishek Chattopadhyay took His Last Breath shared by Wife Sanjukta Chattopadhyay

সংযুক্তা এবং ডল মনে করেন না অভিষেক তাদের ছেড়ে কোথাও গিয়েছেন। তারা সবসময়ই মানুষটিকে নিজেদের ধারে-কাছেই অনুভব করেন। পুজোর কটা দিন তারা শহর ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন দূরে। অভিষেকের ছবি সঙ্গে করে নিয়ে গিয়েছিলেন সংযুক্তা। আসলে অভিষেকের সঙ্গে পুজোতে কলকাতায় অনেক স্মৃতি রয়েছে তাদের। সেসব মনে পড়লেই কষ্টে বুক ফেটে যায়। এই মেয়েকে নিয়ে অনেক দূরে চলে গিয়েছিলেন সংযুক্তা।