কীভাবে শরীরে ছড়িয়ে পড়ল করোনা, শুনে নিন এই মেয়ের মুখে

বিশ্ববাসী এখন সংকটের মুখোমুখি। বিশ্বের একের পর এক দেশ, চীন , ইতালিতে চলছে মৃত্যু মিছিল। পুরো বিশ্বে প্রতিনিয়ত লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে মৃতের সংখ্যা। এমন পরিস্থিতিতে প্যান্ডামিক ঘোষিত হওয়া কোরোনা ভাইরাস সংক্রমণ থাবা বসিয়েছে ভারতে। ভারতে প্রতিনিয়ত বেড়ে চলেছে মৃতের সংখ্যা। বর্তমানে তা ছাড়িয়ে গেছে ৩০০ এর ঘর। মানুষ যখন আতঙ্কে ভুগছে তখন গেহবন্দি মানুষের বাড়িতে ভরসা ওই মুঠোফোন এবং সোশ্যাল মিডিয়া এবং সম্প্রতি ওই সোশ্যাল মিডিয়ায়ই এবং সেই সোশ্যাল মিডিয়ায় এবার ভাইরাল হলো কোরোনা আক্রান্ত এক ২২ বছরের তরুণী টুইট। কিভাবে ধীরে ধীরে তার শরীরে ছড়িয়ে পড়েছে কোরোনা ভাইরাস সেই অভিজ্ঞতাই তুলে ধরেছেন তিনি। তিনি চান সবাই যেন সচেতন হয় সেই কারণেই নিজের অভিজ্ঞতা শেয়ার করেছেন ইতালি বাসিন্দা সেই তরুণী তিনি।

২২ বছরের তরুণীর নাম বোজান্ডা হালিটি। তিনি পর পর তার শরীরে ঘটে যাওয়া ঘটনা গুলোকে বর্ণনা করেন।

প্রথম দিন তার গলার কাছে শুকনো কফ এসে জমা হয়, তিনি ভেবেছিলেন ঠান্ডা লেগেছে, সাথে ছিল মারাত্মক ক্লান্তি। কিন্তু তখন তিনি পাত্তা দেননি।

আরও পড়ুন :- শরীরে এই ১০ রোগ থাকলে কোরোনা সংক্রমণের সম্ভাবনা সবথেকে বেশি

দ্বিতীয় দিন মাথা ভার ছিল এবং মাথায় ছিল ব্যাথা।গলা পুরোপুরি আটকে যায় মনে হচ্ছিল যেন গলার কাছে শক্ত কিছু আটকে আছে, সাথে আসে জ্বর। চোখ লাল হয়ে ওঠে।

তৃতীয় দিন মাথা, গা-হাত পা ব্যথা ক্রমশ বাড়তে থাকে, পরিস্থিতি মাইগ্রেন এর মতন হয়, চোখ আরও লাল হয়, বাড়তে থাকে জ্বর।

চতুর্থ দিন ডাক্তার দেখানোর পর তিনি টেস্ট করান এবং রিপোর্ট ঠিক আসে, অ্যান্টিবায়োটিক খান এবং ঠিকও হয়ে যান।

আরও পড়ুন :-  আপনার করোনা জ্বর হয়েছে কি না বুঝবেন কীভাবে?

পঞ্চম ও ষষ্ঠ দিন ওষুধ নেওয়ার পর তিনি সুস্থ হন, শরীরে জোর বাড়ে, তারপর তিনি কোরোনা ভাইরাস পরীক্ষা করান এবং নিজেকে আইসোলেটেড করে রাখেন। বর্তমানে তিনি সুস্থ তাই তিনি উপদেশ দিচ্ছেন ভয় না পেয়ে এবং আতঙ্কিত না হয়ে ঠিক সময় ডাক্তার দেখান। চিকিৎসকের পরামর্শ মানলেই সুস্থ হওয়া সম্ভব।