হোটেল রুমে চলছ শুটিং, গুদামে শ্যুট হচ্ছে ঘনিষ্ঠ দৃশ্যও, ভিডিয়ো প্রকাশ্যে আসতেই শোরগোল

বিগত বেশ কয়েকদিন ধরেই রীতিমতো উত্তাল হয়ে রয়েছে টলিপাড়া। লকডাউন পর্বের শ্যুটিং নিয়েই কার্যত গোল বেঁধেছে আর্টিস্ট ফোরাম এবং ফেডারেশনের মধ্যে। লকডাউনে শ্যুটিং বন্ধ রাখার বিপক্ষে প্রযোজক-পরিচালকেরা। শ্যুট ফ্রম হোমকেই বিকল্প পথ হিসেবে বেছে নিতে চান তারা। অথচ ফেডারেশন এই সিদ্ধান্তের ঘোর বিরোধী। শ্যুট ফ্রম হোম বন্ধ করার দাবিতে সরব ফেডারেশন।

এতদিন বাড়ি থেকে শুটিংয়ের বিপক্ষে সুর চড়াচ্ছিলেন ফেডারেশনের সদস্যরা। এবার তারা সরাসরি প্রযোজক-পরিচালকদের বিরুদ্ধে আরও গুরুতর অভিযোগ তুললেন। সম্প্রতি ফেডারেশনের তরফ থেকে একটি ১৫ পাতার চিঠি পৌঁছেছে প্রযোজক মহলে। সেখানে উল্লেখ করা রয়েছে কিছু গুরুতর অভিযোগ, যার মধ্যে লকডাউন বিধি অমান্য করার মতো অভিযোগও রয়েছে। ঠিক কী কী অভিযোগ তুলছে ফেডারেশন?

আনন্দবাজার পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী ফেডারেশনের অভিযোগ, শ্যুট ফ্রম হোমের আড়ালে গুদামঘর, অতিথিশালা এমনকি হোটেল বুকিং করে চলছে ধারাবাহিকের শ্যুটিং। অভিযোগের স্বপক্ষে প্রমাণ হিসেবে ধারাবাহিক থেকেই বেশকিছু ভিডিও প্রকাশ করেছে ফেডারেশন। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ অমান্য করেই একের অধিক অভিনেতা এবং অভিনেত্রীদের নিয়ে শ্যুটিং সম্পন্ন হচ্ছে। “মিঠাই”, “এই পথ যদি না শেষ হয়”, “বরণ”, “খেলাঘর” ধারাবাহিকের প্রযোজনা সংস্থার বিরুদ্ধে উঠেছে এই অভিযোগ।

Shooting During Lockdown

ফেডারেশন উল্লেখ করেছে, “এই পথ যদি না শেষ হয়” ধারাবাহিকের শুটিং হচ্ছে দক্ষিণ কলকাতার এনএসসি বোস রোডে অবস্থিত একটি গুদাম ঘরে! প্রযোজনা সংস্থার এমন কর্মকাণ্ডে ক্ষুব্ধ ফেডারেশনের সভাপতি স্বরূপ বিশ্বাস প্রশ্ন তুললেন, ‘‘কার্যত লকডাউনে বাড়ির বাইরে শ্যুটিং করা কি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশ অমান্য করা নয়?’’ এতদিন বিষয়টি আলোচনার পর্যায়ে ছিল, এবার প্রয়োজনে প্রশাসনের দ্বারস্থ হওয়ার পরিকল্পনাও করছে ফেডারেশন।

Shooting During Lockdown

ফেডারেশনের অভিযোগ, করোনা সংক্রমনের শৃঙ্খল ভাঙতেই জরুরি পরিষেবা ছাড়া আর সকল ক্ষেত্রের কাজ আপাতত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। টালিগঞ্জের কাজও তাই বন্ধ। অথচ প্রযোজক-পরিচালকদের সেদিকে ভ্রুক্ষেপ নেই। করোনাবিধি উলঙ্ঘন করেই একের অধিক অভিনেতা-অভিনেত্রীদের নিয়ে ঘনিষ্ঠ দৃশ্যের শ্যুটিং চলছে। এখন যদি কোনও অভিনেতা করোনা আক্রান্ত হন, তাহলে তার দায়ভার কে নেবে? প্রশ্ন তুলেছে ফেডারেশন।

Shooting During Lockdown

প্রসঙ্গত, সোমবার একটি সাংবাদিক বৈঠকের আয়োজন করে বাড়ি থেকে শ্যুটিং করার বিষয়ে সহমত পোষণ করেছে আর্টিস্ট ফোরাম। ফোরামের যুগ্ম সহকারি সম্পাদক দিগন্ত বাগচী জানিয়েছেন, আর্টিস্ট ফোরাম বাড়ি থেকে শুটিং করার পক্ষে সমর্থন জানিয়েছে। ফেডারেশন যে অভিযোগ তুলেছে সেই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে প্রথমে প্রযোজক, পরিচালক, অভিনেতাদের সঙ্গে কথা বলে তবেই পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা ভাবছে আর্টিস্ট ফোরাম।