ভ্যাকসিন নিতে চান না কতজন ভারতীয়, প্রকাশ্যে এলো সমীক্ষার ফলাফল

Corona Vaccination

অতিমারি পরিস্থিতিতে যুদ্ধকালীন তত্পরতায আনা হয়েছে করোনার ভ্যাকসিন (Corona Vaccine)। কিন্তু ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের সম্পূর্ণ তথ্য হাতে না-আসা অবধি সেই টিকা ভরসাযোগ্য নয়। টিকা নেওয়ার পর কার কী ধরনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হচ্ছে, তা আন্তর্জাতিক মানের জার্নালে প্রকাশ করা প্রয়োজন। এমনটাই মনে করছেন নোবেলজয়ী বিজ্ঞানী ভেঙ্কটরমন রামাকৃষ্ণন (ভেঙ্কি)।

Frequently Asked Questions about COVID-19 Vaccination

যদিও নীতি আয়োগ ও স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানিয়েছে দুটি টিকাই ১০০ শতাংশ সুরক্ষিত।তাও ঘুরে ফিরে এই প্রশ্ন আসছে অনেকের মনেই।সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে প্রথমে দেশের ৩ কোটি স্বাস্থ্য কর্মীকে এই টীকা দেওয়া হবে।সাধারণ মানুষের কাছে এই টিকা পৌঁছতে আরও কিছুটা সময় বাকি।কিন্তু সুরক্ষার প্রশ্নে অনেকেই টিকা নিতে অনীহা প্রকাশ করছেন।

বিশেষজ্ঞদের মতামত

নোবেলজয়ী বিশেষজ্ঞ ভেঙ্কটরমন রামাকৃষ্ণনের কথায়, ট্রায়ালের সম্পূর্ন নথি হতে না আসা পর্যন্ত ভরসাযোগ্য নয় এই টিকা। টিকা নেওয়ার পর কার শরীরে কি ধরনের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে তা আন্তর্জাতিক মানের কোনও জার্নালে প্রকাশ করা প্রয়োজন। সম্প্রতি আহমেদাবাদ বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের একটি অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন তিনি। সেখানে তিনি বলেন ভারত বায়োটেক ও আইসিএমআরের উদ্যোগে করোনা প্রতিষেধক কোভ্যাক্সিন (CoVaxin) আবিষ্কার হলেও ট্রায়াল সম্পর্কে কোনও তথ্য প্রকাশ করা হয়নি। তার মতে ট্রায়ালের রিপোর্ট দেখার পরেই ভ্যাকসিন নেওয়া উচিত।

Here’s What Happened to the Body After taking Pfizer Corona Vaccine
Here’s What Happened to the Body After taking Pfizer Corona Vaccine

সাধারণ মানুষ টিকা নিতে চাইছে?

সাধারণ মানুষের মধ্যে অনেকেই মনে করছেন অতি শীঘ্র তৈরি হওয়া এই টিকা সুরক্ষিত নয়।সম্প্রতি Yougov এর তরফ থেকে সাধারণ মানুষদের ওপর একটি সমীক্ষা করা হয়েছে। মূলত শহরাঞ্চলকে কেন্দ্র করে করা এই সমীক্ষায় দেখা যাচ্ছে প্রায় ৩২ শতাংশ মানুষ এখনই টিকা নিতে চাইছেন না। অন্যদিকে ৬৮ শতাংশ মানুষ এখনই টিকা নিতে তৈরি।তবে যারা টিকা নিতে প্রস্তুত তাদের একটি বড় অংশ পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া নিয়ে রীতিমত ভীত।৪১ শতাংশ মানুষ টিকা নেওয়ার আগে কিছুমাস অপেক্ষা করতে চাইছেন।

অন্যদিকে অবশ্য ৩৩ শতাংশ মানুষ টিকা নেওয়ার সুযোগ হওয়া মাত্র তা নিয়ে নিতে চান। সমীক্ষায় দেখা যাচ্ছে ১৩ শতাংশ মানুষ নিজের থেকে টিকা নিতেই চাইছেন না। তাদের কথায়, যদি টিকা নেওয়া সরকারের তরফ থেকে বাধ্যতামূলক করা হয় সেক্ষেত্রেই একমাত্র তারা টিকা নেবেন।১১ শতাংশ মানুষের কথায় কর্মস্থল থেকে টিকা বাধ্যতামূলক করলে তবেই নিতে রাজি হবেন তারা।

দেশী না বিদেশী কোন টিকায় ভরসা বেশী?

সমীক্ষায় দেখা গেছে বিদেশী টিকা থেকে দেশী টিকায় বেশী ভরসা রাখছে ভারতের মানুষ। ৫৫ শতাংশ মানুষেরই মত, তারা ভারতে তৈরি টিকাই নিতে চান।

টিকার মূল্য নিয়ে মানুষের মতামত?

সমীক্ষা থেকে দেখা যাচ্ছে ৫০ শতাংশ মানুষ মনে করছেন বিনামূল্যে টিকা বিতরন করা উচিত সরকারের।৩৬ শতাংশের কথায় অন্তত গরীবদের টিকার খরচ বহন করা উচিত সরকারের। অন্যদিকে অবশ্য ১৪ শতাংশ মানুষের মতে প্রত্যেক মানুষেরই নিজের নিজের টিকাকরণের খরচ বহন করা উচিত।