বিরল রোগে আক্রান্ত সামান্থা প্রভু, হাসপাতালে শুয়ে চলছে জীবন মরণের লড়াই

গুরুতর অসুস্থ সামান্থা প্রভু, হাসপাতালে শুয়ে পোস্ট করলেন ছবি

দক্ষিণের (South Indian Film Industry) জনপ্রিয় অভিনেত্রী সামান্থা রুথ (Samantha Ruth Prabhu) প্রভুর নামটা আজ প্রায় সকলেই জানেন। বিশেষত ‘পুষ্পা’ (Pushpa) ছবির আইটেম গান ’ও অন্তভা’র পর থেকে তো আজ তাকে সকলেই চেনেন। সেই সামান্থা আজ মারাত্মক অসুখে আক্রান্ত। যে কারণে তাকে ভর্তি হতে হয়েছে হাসপাতালে। বলা যায় হাসপাতালে শুয়ে তিনি জীবন-মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করছেন।

সামান্থা সম্পর্কে এই খবরটি সোশ্যাল মিডিয়াতে শোরগোল ফেলে দিয়েছে। সম্প্রতি তিনি তার অসুস্থতার খবর জানালেন সোশ্যাল মিডিয়াতে। তিনি জানিয়েছেন বিগত কয়েক মাস ধরেই তিনি মায়োসাইটিস রোগে ভুগছেন। যে রোগে পেশি আবৃত কোশে প্রদাহ হয়। এতে ঘাড় শক্ত হয়ে ওঠে এবং ঘাড়ে ব্যথা, পিঠের নিচের দিকে ব্যথা, হাঁটুতে ব্যথা হয়। সেই সঙ্গে রোগীর হাঁটতে সমস্যা হয়। শরীরে ক্লান্তি আসে, এমনকি শ্বাসকষ্ট পর্যন্ত হয়।

সামান্থাগত কয়েক সপ্তাহ ধরেই সোশ্যাল মিডিয়া থেকে উধাও হয়ে রয়েছেন। গত বছর নাগা চৈতন্যের সঙ্গে তার বিয়ে ভেঙেছে। বিচ্ছেদ নিয়ে তার ব্যক্তিগত জীবন তোলপাড়। তারই মধ্যে জীবনে এখন এই নতুন বিপদের সম্মুখীন অভিনেত্রী। বিগত কয়েক মাস ধরেই তার অসুস্থতার উড়ো খবর শোনা যাচ্ছিল। অবশেষে তাতে শিলমোহর দিলেন অভিনেত্রী নিজেই।

সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে তার আসন্ন ছবি যশোধার ট্রেলার। সেখানেও মারকাটারি অ্যাকশন মুডে পাওয়া গিয়েছে তাকে। তারপরই শোনা যাচ্ছে তিনি নাকি গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। মায়োসাইটিস নামের এক বিরল রোগে আক্রান্ত হয়েছে তার শরীর। গত কয়েক মাস ধরে তিনি এই রোগের বিরুদ্ধে লড়াই করছেন। তবে তার আসন্ন ছবির ট্রেলার দেখে সকলে তাকে যেভাবে ভালোবাসায় ভরিয়ে দিচ্ছেন তার পরিপ্রেক্ষিতে তিনি সকলকে ধন্যবাদ না জানিয়ে পারলেন না।

হাসপাতালের বিছানাতে শুয়ে ছবি শেয়ার করে ফ্যানদের ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি লিখলেন, “যশোধার ট্রেলারকে তোমরা যে ভালোবাসা দিয়েছো তা অভাবনীয়। এই ভালোবাসা আর আত্মিক যোগটাই আমার শক্তি যা আমাকে জীবনের না শেষ হওয়া চ্যালেঞ্জগুলোর মুখোমুখি দাঁড় করিয়ে লড়াই করবার সাহস যোগায়। মাস কয়েক আগে আমি মায়োসাইটিস নামক একটি অটোইমিউন (স্বতঃঅনাক্রম্য) রোগে আক্রান্ত হয়েছি। ভেবেছিলাম এই সমস্যাটা একটু লাঘব হলে তোমাদের জানাব, তবে একটু বেশিই সময় লাগছে”।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Samantha (@samantharuthprabhuoffl)

তিনি আরও লিখেছেন, “আমাক মনে হল সবসময় নিজেকে শক্তিশালী হিসাবে তুলে ধরবার দরকার পড়ে না। নিজের দুর্বলতাকে স্বীকার করে নেওয়াটা এমন একটা বিষয় যার সঙ্গে আমি এখনও লড়াই চালিয়ে যাচ্ছি। চিকিৎসকরা আশাবাদী আমি খুব শীঘ্রই সেরে উঠব। আমার ভালো দিন যাচ্ছে, খারাপ দিন যাচ্ছে… শারীরিক এবং মানসিকভাবে। মাঝেমধ্যে মনে হচ্ছে আর একটা দিনও আমি সহ্য করতে পারব না। তখনই দেখছি সেই মুহূর্তটা কেটে যাচ্ছে, আমার মনে বলছে- আমি সুস্থতার পথে আরও একটু এগিয়ে গেলাম। অনেক ভালোবাসা সকলকে”।