মারা গেল মিঠাই, ধারাবাহিকে এন্ট্রি নিল নতুন নায়িকা, রইল অভিনেত্রীর আসল পরিচয়

মিঠাই মারা যেতেই ধারাবাহিকে এন্ট্রি নিল নতুন নায়িকা, রইল মিঠাইয়ের নতুন নায়িকার পরিচয়

জি বাংলার (Zee Bangla) মিঠাই (Mithai) ধারাবাহিক দর্শকদের কাছে অতি পছন্দের একটি সিরিয়াল। যেখানে নেই কোনও পরকীয়া, শাশুড়ি‍-বৌমার কুচুটে ঝামেলাও নেই আবার অবান্তর, অতিরঞ্জিত গল্পও কখনও মিঠাইয়ের গল্পের স্বাদ নষ্ট করতে পারেনি। মিঠাই বরাবর যৌথ পরিবারের ভালবাসা, হই-হুল্লোড় আর জমজমাট গল্প দেখিয়ে তার জনপ্রিয়তা ধরে রেখেছে।

এখন টিআরপি একটু কমেছে বটে, কিন্তু পুরনো দর্শক আবার ফিরিয়ে আনতে মরিয়া মিঠাই নির্মাতারা। খুব শীঘ্রই বদলে যাবে এই ধারাবাহিকের সম্প্রচারের সময়। আগামী ১৪ ই নভেম্বর থেকে প্রতিদিন রাত ৮.০০ টার বদলে সন্ধে ৬.০০ টার সময় সম্প্রচারিত হবে এই সিরিয়াল। তবে তার আগে গল্পে আসছে অভাবনীয় মোড়। সম্প্রতি মিঠাইয়ের নতুন প্রোমোতে মিলেছে তার আভাস।

মিঠাই ধারাবাহিকের গল্প এবার খুব তাড়াতাড়ি বদলে যাবে। গত কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই দর্শকরা দেখেছেন কীভাবে গল্প অতি দ্রুততার সঙ্গে এগিয়েছে। মাত্র পাঁচ দিনের মধ্যেই মিঠাইকে প্রেগন্যান্ট দেখিয়ে সাধ খাওয়ানো থেকে ডেলিভারি পর্যন্ত হয়ে গিয়েছে। এবার গল্পের নতুন টুইস্টে মিঠাইয়ের মৃত্যু দেখানো হবে।

গল্পে ইতিমধ্যেই ফিরে এসেছে আদিত্য আগরওয়াল। তারই ষড়যন্ত্রে মিঠাই এবার মারা যাবে। আর তারপরেই গল্পে আসবে এক নতুন অধ্যায়। মিঠাই মারা গেলে তার জায়গা নিতে ধারাবাহিকের পা রাখবেন নতুন একজন নায়িকা। মিঠাইয়ের ভাইরাল প্রমোতেই দেখানো হয়েছে তাকে। মিঠাই-সিদ্ধার্থের ছেলে শাক্যের শিক্ষিকা হয়ে মনোহরাতে আসছে মিঠি।

নতুন প্রোমোতে দেখানো হয়েছে গল্প লিপ নিয়ে বেশ কয়েক বছর এগিয়ে গিয়েছে। মিঠাই-সিদ্ধার্থের ছেলে এখন একটু বড় হয়েছে কিন্তু মায়ের মতই ভীষণ দুষ্টু সে। ছেলেকে একা হাতে সামলাতে হিমশিম খায় সিদ্ধার্থ। তাই সেই ছেলের জন্য একটা নতুন ম্যামের বন্দোবস্ত করেছে। এরপরেও যদি সে দুষ্টুমি করে তাহলে তাকে বোর্ডিংয়ে পাঠিয়ে দেওয়ার ভয় দেখায় সিদ্ধার্থ।

এরপরই বেজে ওঠে কলিং বেল। শাক্যের নতুন মিস ততক্ষণে মনোহরার দরজাতে এসে পৌঁছে গিয়েছে। এখানেই প্রকাশ পায় নতুন গল্পের আসল টুইস্ট। মনোহরার এই নতুন অতিথি মিঠি আর কেউ নয়, স্বয়ং সৌমিতৃষা। নাম বদলে ভোল পাল্টে সৌমিতৃষাই মিঠাইতে নতুন নায়িকা হিসেবে আসছেন। এরপর ধারাবাহিকে গল্প কোন দিকে মোড় নেবে জানতে হলে চোখ রাখতে হবে সোম থেকে রবি প্রতিদিন সন্ধ্যা ৬.০০টার সময় জি-বাংলায়।