৩০ জুনের পর বদলাতে পারে ATM থেকে টাকা তোলার নিয়ম

করোনা ভাইরাসের কারণে বিশ্বব্যাপী শুরু হয়েছে আর্থিক সংকট। বন্ধ সমস্ত সরকারি ও বেসরকারি অফিস। সংক্রমণ এড়াতে বদলানো হয়েছে ব্যাঙ্ক ও এটিএম থেকে টাকা তোলার অনেক নিয়ম। আমরা সবাই জানি অন্য ব্যাঙ্কের এটিএম থেকে পাঁচবারের বেশি টাকা তুললে আট থেকে কুড়ি টাকা পর্যন্ত চার্জ কেটে নেওয়া হয়। নির্দিষ্ট ভাবে কত টাকা কেটে নেওয়া হবে এটা নির্ধারণ করা হয় কার্ডধারী কত পরিমাণ টাকা তুলছেন তার ওপর ভিত্তি করেই।

লকডাউনের কারনে পুরো দেশ যখন বিপর্যস্ত। নিম্নবিত্ত থেকে মধ্যবিত্ত সকলেরই যখন সংকটময় অবস্থা তখন এটিএম এ টাকা তুলতে গেলেও যদি চার্জ কাটা হয় তাহলে এটি গোঁদের ওপর বিষফোঁড়ার মতো ব্যাপার। তাই এই চিন্তার অবসান ঘটিয়ে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রক গত ২৪ মার্চ এটিএম থেকে টাকা তোলার বিষয়ে কতগুলি নতুন নির্দেশিকা জারি করেন।

গত ২৪ মার্চ অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ ঘোষণা করেন, “আগামী তিন মাসের জন্য এটিএম থেকে টাকা তোলার ক্ষেত্রে কিছু ছাড় দেওয়া হবে। আগামী তিন মাস এটিএম থেকে যত খুশি টাকা তুললেও কোন চার্জ লাগবে না। এছাড়া সেভিংস ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ন্যূনতম ব্যালেন্স না রাখলে চার্জ কাটা হতো। এখন সেটা হবে না। এই সুযোগ-সুবিধা বা ছাড় পাওয়া যাবে আগামী তিন মাসের জন্য। অর্থাৎ এর মেয়াদ শেষ হতে চলেছে আগামী ৩০ শে জুন”

HDFC deploys mobile ATMs during coronavirus lockdown

সেই মেয়াদ শেষ হতে চলেছে আগামী ৩০ জুন। সরকারি নির্দেশিত সময় অনুসারে ৩০ শে জুন অবধি এটিএমএ টাকা তুললে এই ছাড় গুলি পাওয়া যাবে। কিন্তু ৩০ শে জুন হতে আর দু সপ্তাহ বাকি। তবে এখনও পর্যন্ত কেন্দ্র অথবা ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষ কোনো নতুন নির্দেশিকা জারি করেনি। এমনিতে পাঁচবারের বেশি প্রতিটি এটিএম লেনদেনের ৮-২০ টাকা পর্যন্ত চার্জ ধার্য করা হতো। কার্ডধারী কত টাকা তুলছেন, তার উপর ভিত্তি করেই চার্জের পরিমাণ নিরধারিত হতো।

আরও পড়ুন :- করোনার জেরে ATM না ছুঁয়েই তুলতে হবে টাকা, কীভাবে জেনে নিন

সেই নিয়ম পুনরায় ফিরে আসবে, না কি সরকারে এই সুবিধার মেয়াদ বাড়াবে, তা মেয়াদ শেষের আগেই ঘোষণা করা হতে পারে। সাধারণ মানুষ থেকে মধ্যবিত্ত সকলেই এখন সরকারের নতুন নির্দেশিকার আশায় বসে আছেন।