ফের ভাইরাল হলো রুদ্রনীল ঘোষের কবিতা

করোনার অন্যতম একটি লক্ষণ হলো কাশি। তাই আমাদের আশেপাশে কেউ কাশলেই আমাদের ভয় হয়। তাই মানুষজন এখন কাশতেও ভয় পাচ্ছেন। নিজের কাশিটাকেও  সাধারণ মানুষ অপরাধের মত লুকিয়ে রাখছেন।  এই বিষয়টাই কবিতার মধ্য দিয়ে ফুটিয়ে তুলেছেন রুদ্রনীল ঘোষ। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপক ভাইরাল হয়েছে।

করোনার আবহের মধ্যে পরে একজন সাধারন মানুষের দিন কিভাবে কাটছে তাই এই কবিতাটির মূল বিষয়বস্তু। কবিতাটির শুরু হচ্ছে এই ভাবে -“দাদা আমি কারো সাথে মিশি না/যে যা করে দেখি ভাই/ বিড়ি কিনে বাড়ি যাই/ বারান্দা ছাড়া আমি কাশি না।’

এটি একজন সাধারন মধ্যবিত্ত মানুষের গল্প। তিনি বিড়ি খান বলে প্রথম থেকেই কাশেন। কিন্তু বর্তমানে বারান্দায় গিয়ে লুকিয়ে কাশছেন,কারণ তার কাশির শব্দ শুনলে তার গৃহিণী ভয় পাচ্ছেন। এমনকি তার বাড়িতে কোন অতিথি এসে কাশলেও শুরু হচ্ছে সমস্যা।

তার সেজপিসি বাড়িতে এসে জোরে জোরে দুইবার কাশতে শুরু করলে তার ছেলে আর ছেলের বৌ এসে পিসিকে বলছে কাশিটা যেন আস্তে আস্তে  কাশে। অত জোরে জোরে কাশা ঠিক নয়। অন্যদিকে করোনার আবহে দীর্ঘ লকডাউনে ভদ্রলোকের  মধ্যে কুঁড়েমি বাসা বেঁধেছে।

দীর্ঘক্ষণ বসে কাজ করার অভ্যাস চলে গেছে। তাই অফিসে গিয়ে মাঝে মধ্যেই তিনি বসের ঘরে গিয়ে কেশে দেন আর  ছুটি পেয়ে  বাড়ি ফিরে আসেন, মাইনেও কাটা যায় না। এইরকম করোনার যাবতীয় পরিস্থিতি তুলে ধরে কবিতাটি লিখেছেন রুদ্রনীল ঘোষ,আর অসাধারণ কন্ঠে তিনি আবৃত্তিও করেছেন কবিতাটি।

দাদা আমি কারো সাথে মিশি না!🙏😜❤

Posted by Rudranil Ghosh on Friday, September 11, 2020