সুশান্তকে চায়ে ড্রাগ মিশিয়ে খাওয়াতেন রিয়া, প্রকাশ্যে এল চাঞ্চল্যকর হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট

সুশান্তের মৃত্যুর পর কেটে গেছে বেশ কয়েকটা মাস। সময় যত যাচ্ছে ততই জটিল হচ্ছে সুশান্তের মৃত্যুর তদন্ত। দিন দিন বাড়ছে অভিযোগ ও অভিযুক্তের সংখ্যা। সম্প্রতি সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু তদন্তে উঠে এলো একটি চাঞ্চল্যকর তথ্য।   একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম “টাইমস নাউ” রিয়ার হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটে পেল এক বিস্ফোরক তথ্য।

গত বছরের ২৫ নভেম্বর বন্ধু জয়া শাহ কে হোয়াটসঅ্যাপে পাঠানো মেসেজে রিয়া কে লেখে “ চার ফোঁটা জলে বা চায়ে মিশিয়ে ওকে খাওয়াও…৩০-৪০ মিনিট পরে মাতাল হবে ( কিক)। রিয়া উত্তরে লেখে, “ধন্যবাদ”। জয়া আবার লেখে, “কোন অসুবিধা নেই আশা করি এটা কাজ দেবে”।

রিয়া চক্রবর্তী এবং জয়া শাহ এর মধ্যে ১০০ বার ফোনে কথা হয়েছে, যার মধ্যে জয়া কল করেছিলেন ২৯ বার এবং বাকি কল গুলি করে রিয়া। সংবাদ মাধ্যম সূত্রে জানা যাচ্ছে যে সুসান সিং রাজপুত এর মৃত্যুর পর রিয়া প্রথম কল করে জয়া শাহকে। ২.২৭ মিনিটে সুসান সিং রাজপুত এর মৃত্যুর খবর আসার পর ২.৩৩ মিনিটে রিয়া কল করে জয়া শাহকে।

জয়া শাহ একটি ট্যালেন্ট ম্যানেজমেন্ট সংস্থার হয়ে কাজ করার সুবাদে বলিউডে অনেক সেলিব্রিটি সঙ্গে বন্ধুত্ব রয়েছে তার।  জয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ রিয়াকে মাদক সরবরাহ করতেন জয়া শাহ। রাজপুত পরিবারের আইনজীবী রিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়েছেন যে তিনি নাকি সুশান্তকে জোর করে ড্রাগ দিতেন। রিয়ার বিরুদ্ধেও ড্রাগ বা মাদক সেবনের অভিযোগ উঠেছে। পাল্টা রিয়ার আইনজীবী জানিয়েছেন, রিয়া জীবনে কোনওদিন ড্রাগ নেন। তাই যেকোনও সময়ে রক্ত পরীক্ষার জন্য তিনি প্রস্তুত।

মঙ্গলবারই এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের টিম হদিশ পায় মাদক চক্রের সঙ্গে যোগ রয়েছে এই মামলার মূল অভিযুক্ত রিয়া চক্রবর্তীর। সেই সংক্রান্ত তথ্য সিবিআই এবং নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর সঙ্গে গতকালই ভাগ করে নেয় ইডি। এখন মাদকের মামলাটি সামনে আসার পর নারকোটিক্স ডিপার্টমেন্ট সিবিআইয়ের সঙ্গে তদন্ত

এনসিবি প্রধান রাকেশ আস্তানা কাল জানিয়েছেন, ‘আমরা ইডির তরফে চিঠি পেয়েছি এবার এনসিবির একটি টিম তদন্ত করবে এবং এর সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের জিজ্ঞাসাবাদ করবে’। ইডি সূত্রে জানা যাচ্ছে, রিয়ার ট্যালেন্ট ম্যানেজার জয়া সাহার সঙ্গে নিষিদ্ধ ড্রাগ নিয়ে রিয়ার আলোচনার প্রমাণ পাওয়া গেছে। এছাড়াও এক চর্চিত ড্রাগ ডিলারের সঙ্গেও রিয়ার কথোপকথনের প্রমাণ মিলেছে। প্রাথমিক তদন্ত করছে তাঁরা, কিন্তু উপযুক্ত প্রমাণ মিললে রিয়া চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে পৃথক মামলা দায়ের করবে এনসিবি।