অভিনেত্রীদের নগ্ন ভিডিও বানিয়ে টাকা কামায় শিল্পা সেটির স্বামী, উঠে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য

0
Shilpa Shetty Husband Raj Kundra Arrested (2)

বড়দের ছবি বানানোর অভিযোগে বলিউড অভিনেত্রী শিল্পা শেট্টির (Shilpa Shetty) স্বামী রাজ কুন্দ্রাকে (Raj Kundra) সোমবার গভীর রাতে গ্রেপ্তার করেছে মুম্বাই পুলিশের ক্রাইম ব্রাঞ্চ। রাজের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি মুম্বাইয়ের বুকে গড়ে তুলেছিলেন পর্ন ইন্ডাস্ট্রি। সকলের অগোচরেই বলিউডের অভ্যন্তরে এই ব্যবসা ফেঁদে বসেছিলেন রাজ। সকলের অজান্তেই বেশ রমরমিয়ে চলছিল ব্যবসা। তবে ধরা পড়ে গেলেন চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে।

আজ সকালেই যখন রাজের গ্রেপ্তার হওয়ার খবর উঠে এলো মিডিয়ায়, তখন থেকেই কার্যত রাজ কুন্দ্রার বিষয়ে একের পর অজানা তথ্য উঠে আসছে বলিউডের অভ্যন্তর থেকে। রাজের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন পর্ন ইন্ডাস্ট্রিতে তার সহকর্মী শার্লিন চোপড়া (Sherlyn Chopra)। বলিউডের এই বিতর্কিত নায়িকা মহারাষ্ট্রের সাইবার সেলকে জানিয়েছেন, রাজ কুন্দ্রাই তাকে এই ইন্ডাস্ট্রিতে নিয়ে এসেছেন! ইন্ডাস্ট্রিতে কিভাবে কাজ হতো, সে সম্পর্কিত গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পুলিশের কাছে বলে দিয়েছেন শার্লিন।

Sherlyn Chopra Raj Kundra

শার্লিন জানিয়েছেন এই ইন্ডাস্ট্রিতে বড়দের ছবি বানানোর জন্য প্রতিটি প্রজেক্ট বাবদ রাজ তাকে ৩০ লক্ষ টাকা করে দিয়েছেন। শার্লিন আরও জানিয়েছেন, রাজের জন্য এই ধরনের ১৫-২০টি ছবিতে কাজ করেছেন তিনি। শার্লিনের মতোই রাজের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়েছেন আরেক বলিউড অভিনেত্রী পুনম পান্ডেও। বলিউডের অভ্যন্তর থেকেই একের পর এক চমকপ্রদ তথ্য উঠে আসছে রাজ কুন্দ্রাকে কেন্দ্র করে।

পুলিশ জানিয়েছে, পর্নোগ্রাফি ছবি তৈরি হয়ে যাওয়ার পর সেগুলিকে সরাসরি একটি মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনে আপলোড করে দিতেন রাজ। টাকার বিনিময়ে সেই অ্যাপ্লিকেশনের সাবস্ক্রিপশন নিতে হতো গ্রাহককে। এভাবেই সকলের অগোচরে সোশ্যাল মিডিয়াকে হাতিয়ার করে চলছিল পর্ন র‍্যাকেট। তবে ২০২১-এর ফেব্রুয়ারি মাসে মুম্বই প্রশাসনের সাইবার অপরাধ দমন শাখায় পর্ন তৈরি এবং কিছু অ্যাপের মাধ্যমে তা ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ নিয়ে একটি মামলা দায়ের করা হয়।

সেই মামলার তদন্ত চালাতে গিয়ে মুম্বাইয়ের বুকে গড়ে ওঠা এই পর্ন ইন্ডাস্ট্রির খোঁজ পায় মুম্বাই পুলিশ। মুম্বাই পুলিশের সাইবার বিভাগের কাছে এ সম্পর্কে অভিযোগ দায়ের করা হয়। অভিযোগের তদন্তে নেমে রাজ কুন্দ্রার সঙ্গে এই কর্মকান্ডের যোগসুত্র খুঁজে পায় পুলিশ। রাজের বিরুদ্ধে অনেক তথ্য প্রমাণ রয়েছে পুলিশের হাতে! মুম্বাই পুলিশ প্রশাসনের উপর মহল থেকে এমনই খবর মিলেছে। রাজকে গ্রেপ্তার করার সঙ্গে সঙ্গেই তার মোবাইল ফোনটি বাজেয়াপ্ত করেছে পুলিশ। রাজের ওই ফোনে সন্দেহজনক ‘হোথিত মুভিজ’ নামের একটি মোবাইল ফোন অ্যাপ্লিকেশনের খোঁজ পাওয়া গিয়েছে।

Raj Kundra

প্রশাসনের এক উপরমহলের অফিসার পুলিশকে জানিয়েছেন, জনৈক মহিলাকে ছবিতে অভিনয়ের সুযোগ দেওয়ার মিথ্যে প্রতিশ্রুতি দিয়ে তাঁকে পর্ন ছবিতে কাজ করতে বাধ্য করা হয়। তিনি ৪ ফেব্রুয়ারি পুলিশে অভিযোগ দায়ের করলে তারই ভিত্তিতে মামলা নথিভুক্ত হয়। পাশাপাশি, রাজ কুন্দ্রাকে ‘মূল ষড়যন্ত্রকারী’ হিসেবে বর্ণনা করেছে মুম্বই পুলিশ। দাবি, তাঁর বিরুদ্ধে যথেষ্ট প্রমাণ রয়েছে।

অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে রাজের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির (IPC) ধারা ২৯২, ২৯৩, ৪২০, ৩৪ এবং তথ্য ও প্রৌদ্যৌগিকী নিয়মের অধীনে ৬৭ ও ৬৭ এ ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। এদিকে আবার গ্রেপ্তারির পূর্বে অর্থপাচার কেলেঙ্কারির সঙ্গে জড়িত থাকার অপরাধে রাজ কুন্দ্রাকে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরের তরফ থেকে অফিসে ডেকে পাঠানো হয়। ২০১৩ সালে মৃত গ্যাংস্টার ইকবাল মির্চির সঙ্গে অর্থ পাচার কেলেঙ্কারিতে জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে রাজের উপর।