অনাগত সন্তানের পিতৃপরিচয় কী, নুসরতের বিরুদ্ধে মামলা করলেন স্বামী নিখিল

Nusrat-Jahan-Nikhil-Jain

যশ-নুসরাত বিতর্ক তো ছিলই। এবার সেই জায়গায় নুসরাতের (Nusrat Jahan) মা হওয়ার খবরকে কেন্দ্র করে নতুন আরেক বিতর্ক দেখা দিয়েছে। টলিপাড়ায় গুঞ্জন, অভিনেতা যশ দাশগুপ্ত (Yash Dasgupta) এবং অভিনেত্রী নুসরাত জাহান (Nusrat Jahan) বেশ কয়েক মাস ধরেই একে অপরকে ডেট করছেন। এই বিশেষ ঘনিষ্ঠ সম্পর্কের দরুণ নুসরাতের সঙ্গে তার স্বামী নিখিল জৈনের (Nikhil Jain) সম্পর্ক তলানিতে এসে ঠেকেছে। তবে যশ এবং নুসরাত কিন্তু নিজেদের ব্যক্তিগত সম্পর্ক নিয়ে মুখে কুলুপ এঁটে বসেছেন।

তবে তাদের কেন্দ্র করে বিতর্ক অব্যাহত। নুসরাতের মা হওয়ার খবর সেই বিতর্কের আগুনে যেন ঘিয়ের কাজ করলো। যশরতের জীবনে নতুন অতিথির আগমনের সংবাদ পেয়েই সংবাদমাধ্যমের কাছে মুখ খুলেছেন নুসরাতের প্রাক্তন স্বামী (আইনের চোখে নয়) নিখিল জৈন। তিনি স্পষ্টতই জানিয়ে দিয়েছেন যে, এই সন্তান তার হওয়ার কোনও সম্ভাবনা নেই। দীর্ঘ প্রায় ৬ মাস যাবৎ তারা একে অপরের থেকে আলাদা রয়েছেন!

নিখিল এও জানিয়েছেন যে নুসরাতের সন্তানের পিতৃপরিচয় তার জানা নেই! তবে এবার এই বিতর্ক এক নতুন মোড় নিল যখন নুসরাতের বিরুদ্ধে নিখিলের দেওয়ানি মামলা দায়ের করার কথা প্রকাশ্যে এলো। নেটিজেনদের অনুমান, নুসরাতের সন্তান সম্ভাবনার কথা জানতে পেরেই সম্ভবত স্ত্রীর বিরুদ্ধে এমন কড়া পদক্ষেপ নিয়েছেন নিখিল। বিতর্কের মুখে পড়ে আবারও মুখ খুললেন নিখিল জৈন।

নিখিল জানাচ্ছেন, নুসরাতের সন্তানসম্ভাবনার খবর পেয়ে নয়, স্ত্রীর বিরুদ্ধে তিনি বহু আগেই দেওয়ানি মামলা করেছেন। আসলে আজ থেকে প্রায় ৬ মাস আগে যখন নুসরাত তার থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন, তখনই তিনি স্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন।

এ প্রসঙ্গে তার বক্তব্য, ‘‘যে দিন জানলাম, নুসরত আমার সঙ্গে থাকতে চায় না , অন্য কারও সঙ্গে থাকতে চায়, সে দিনই দেওয়ানি মামলা দায়ের করেছি আমি। নুসরতের মা হওয়ার পরে এই সিদ্ধান্ত নিইনি আমি।’’ নিখিল আরও জানিয়েছেন, আগামী আগামী জুলাই মাসের মামলার শুনানির দিন ধার্য করেছে আদালত।

আরও পড়ুন : ‘এই সন্তানের বাবা কে’, ক্রমাগত প্রশ্নবাণে জর্জরিত ‘সন্তানসম্ভবা’ নুসরত নিলেন চরম সিদ্ধান্ত

নিখিল জানিয়েছেন, ভবিষ্যতে স্ত্রীর সঙ্গে আর কোনও সম্পর্ক রাখতে চান না তিনি। যেহেতু তাদের ম্যারেজ রেজিস্ট্রেশন হয়নি, তাই অ্যানালমেন্ট করেই স্ত্রীর থেকে আইনত আলাদা হয়ে যাবেন নিখিল। সেক্ষেত্রে নুসরতকে আদালতে গিয়ে বলতে হবে যে ভবিষ্যতে নিখিলের সঙ্গে তার আর কোনও সম্পর্ক থাকবে না। প্রসঙ্গত, নিখিল এদিন সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন, আগামী ১০ই সেপ্টেম্বর নুসরাতের সন্তান জন্ম দেওয়ার সম্ভাব্য তারিখ হিসেবে ধার্য হয়েছে!