পদ্মিনীকে বিয়ে করতে বাধ্য করেন মিঠুন, ৩৩ বছর পর সত্যিটা ফাঁস করলেন পদ্মিনী কোলাপুরি

মিঠুন পাশে না দাঁড়ালে বিয়েই হত না! এতদিন বাদে সত্যিটা ফাঁস করলেন পদ্মিনী কোলাপুরি

Mithun Chakraborty revealed how he had to feign a stomach ache to help Padmini Kohlapure to get married

মিঠুন চক্রবর্তী (Mithun Chakraborty) এবং পদ্মিনী কোলাপুরি (Padmini Kohlapure), দুজনেই বলিউডের (Bollywood) মহাতারকা। ৭০-৮০ এর দশকে বলিউডে সুপারস্টার নায়কদের বিপরীতে অভিনয় করে তুমুল জনপ্রিয়তা পেয়েছেন পদ্মিনী। সেই সময় মিঠুনও তারকাদের খাতায় নিজের নাম লিখিয়ে নিয়েছিলেন। এই দুই সহ-অভিনেতার মধ্যে দারুণ বন্ধুত্বও ছিল। বন্ধুত্বের খাতিরে বান্ধবীর জন্য বাস্তবেও সিনেমার মত অভিনয় করতেন মিঠুন।

সময়টা ছিল তখন ১৯৮৬ সাল। পদ্মিনীর জন্য একটি ছবির সেটে মিঠুন পেটে ব্যথার অভিনয় করতে বাধ্য হয়েছিলেন। সেটে সবাই মিঠুনকে নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়লে এই সুযোগে পদ্মিনী চুপিসারে সেট থেকে বেরিয়ে তার প্রেমিককে বিয়ে করে নেন। এভাবেই প্রযোজক প্রদীপ শর্মার সঙ্গে তৎকালীন সময়ের তারকা অভিনেত্রী পদ্মিনীর বিয়েটা হয়েছিল।

এই খবরটা এতদিন অনেকেই জানতেন না। তবে এতদিনে নিজের পুরনো কীর্তি শেয়ার করেন মিঠুন। মিঠুনের কথায় তিনি শুটিংয়ের মধ্যেই পদ্মিনীকে বিয়ে করার জন্য বাধ্য করেছিলেন। সবার সামনে পেটে ব্যথার এমন অভিনয় তিনি করেছিলেন যাতে পদ্মিনী দ্রুত বিয়ে করে আবার ফিরে আসতে পারেন। সেদিন যতক্ষণ না পর্যন্ত পদ্মিনী ফিরেছিলেন ততক্ষণ মিঠুন পেটে ব্যথার ভান করে গিয়েছিলেন।

আসল ঘটনাটা যে কী ঘটেছিল সেটা সেদিন টের পায়নি কেউ। পর্দার মত বাস্তবেও মিঠুন এত সুন্দর অভিনয় করেছিলেন যে শুটিংয়ে সেদিন কেউ কিছুই টের পাননি। দীর্ঘ ৩৩ বছর পর একটি রিয়েলিটি শোয়ের মঞ্চে দুই বন্ধুর আড্ডার ফাঁকে অতীতের সেই ঘটনা উঠে এল। সেখানেই মিঠুন এবং পদ্মিনী তাদের খুনসুটিতে ভরা বন্ধুত্বের গল্প ভাগ করে নিলেন সকলের সঙ্গে।

পদ্মিনী এদিন বলেন তার এবং মিঠুনের সম্পর্কটা ছিল টম এন্ড জেরির মত খুনসুটিতে ভরা। সাপে নেউলের সম্পর্ক ছিল তাদের মধ্যে। দুজনে মারপিটও করতেন খুব। তবুও তাদের মধ্যে নিবিড় বন্ধুত্বের সম্পর্ক ছিল বরাবর। মিঠুন পদ্মিনীর ফাঁস করে দিয়ে বলেন সেটের মধ্যে সমানে তাকে দেখিয়ে এক চোখ দেখাতেন পদ্মিনী।

এক চোখ দেখালেই ঝগড়া হয়, বাঙালিরা এক চোখ দেখানো নিয়ে কুসংস্কারে ভোগে। পদ্মিনী সেটা জানতেন। ইচ্ছে করেই তিনি মিঠুনের সামনে চোখ রগড়াতেন। এতে মিঠুন ভীষণ রেগে যেতেন। এর ফলে শুটিংয়ের মধ্যেই তাদের মধ্যে ঝগড়া হয়ে যেত। মিঠুন-পদ্মিনী এক সময় ‘পেয়ার ঝুকতা নেহি’, ‘স্বর্গ সে সুন্দর’, ‘হাম ইন্তেজার করেঙ্গে’ এর মত একাধিক সুপারহিট ছবিতে অভিনয় করেছিলেন।