কপাল পুড়েছে মিঠাইয়ের, দিদিয়ার সঙ্গে প্রেম মেনে নিল উচ্ছেবাবু, ফাঁস হল ছবি

আর রাখঢাক নয়, কৌশাম্বীর সঙ্গে প্রেম নিয়ে অকপট আদৃত, প্রকাশ্যেই জানালেন সত্যিটা

পর্দাতে মিঠাইরানীর (Mithai) সঙ্গে জমিয়ে রোমান্স করলেও বাস্তবে উচ্ছে বাবু ওরফে আদৃত রায় (Adrit Roy) নাকি প্রেম করছেন দিদিয়া অর্থাৎ মিঠাইয়ের শ্রীনন্দা ওরফে কৌশাম্বী চক্রবর্তীর (Kaushambi Chakraborty) সঙ্গে। গতবছরের শেষভাগ থেকেই এরকম খবর স্টুডিও পাড়ার আনাচে-কানাচে ভাসতে থাকে। এই খবর শুনে অবাক হয়েছিলেন মিঠাই ভক্তরা। তবে নিজেদের সম্পর্ক নিয়ে কখনও মুখ খোলেননি আদৃত কিংবা কৌশাম্বী।

সরাসরি প্রশ্ন করা হলে বরাবর বিষয়টিকে এড়িয়েই গিয়েছেন এই দুই তারকা। এদিকে এই সম্পর্কের গুঞ্জন নিয়ে মিঠাই ভক্তদের মধ্যে তোলপাড় পড়ে যায়। স্টুডিও পাড়ার অন্দরেও আবার ত্রিকোণ প্রেমের সম্পর্কের গুঞ্জন রটতে থাকে। আদৃত এবং কৌশাম্বীকে কেন্দ্র করে তর্ক-বিতর্ক কিন্তু এখনও থামেনি।

তবে সত্যিই কি তাদের মধ্যে এমন কিছু আছে? সম্প্রতি মিঠাইয়ের একটি ফ্যান পেজে জানা গেল আসল সত্যিটা। এই পেজে আদৃত এবং কৌশাম্বীকে নিয়ে একটি ছবি পোস্ট করেছিলেন জনৈক্য মিঠাই ভক্ত। সেখানে দেখা যাচ্ছে তারা দুজনে একে অপরকে জড়িয়ে ধরে বসে রয়েছেন। ওই মিঠাই ভক্তের দাবি এই ছবি নাকি আদৃতের হোয়াটসঅ্যাপের ডিপি থেকে পাওয়া গিয়েছে।

গত কয়েকদিন ধরেই এই ছবিটি মিঠাইয়ের বিভিন্ন ফ্যান পেজে পোস্ট করা হচ্ছে। যা দেখে মিঠাই ভক্তরা বলছেন যা রটে তার কিছুটা ঘটে। একইসঙ্গে তারা এই জুটির জন্য শুভকামনাও জানাচ্ছেন। যদিও এর আগে অবশ্য যখন এমন খবর ফাঁস হয়েছিল তখন কৌশাম্বীর সঙ্গে একটি ছবি দিয়ে আদৃত বলেন তারা একে অপরের ভীষণ ভাল বন্ধু, বেস্ট ফ্রেন্ড।

MITHAI UNFOLLOW ADRIT AND KOUSHAMBI

দিদিয়ার সঙ্গে উচ্ছে বাবুর প্রেমের খবর ফাঁস হওয়ার পাশাপাশি স্টুডিও পাড়াতে শোনা যাচ্ছিল নাকি বাস্তবে কৌশাম্বী ও আদৃতের সঙ্গে সৌমিতৃষার মধ্যে সম্পর্কটা একেবারে তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে। পর্দাতে কিছু বোঝা না গেলেও নাকি বাস্তবে একে অপরের সঙ্গে তেমন ভাল সম্পর্ক নেই তাদের। এর সঙ্গেই জোরদার হচ্ছিল ত্রিকোণ প্রেমের গুঞ্জন।

তবে এখন অবশ্য সম্পর্কের মাঝে সেসব টানাপোড়েন অতীত। সমস্ত ভুল বোঝাবুঝির অবসান হয়ে মিঠাই, দিদিয়া এবং উচ্ছে বাবুর মধ্যে সম্পর্কটা আবার আগের মত হয়ে গিয়েছে। এদিকে দিদিয়ার সঙ্গে সিদ্ধার্থের প্রেম নিয়ে যে গুঞ্জন রটছে তাতে নেটিজেনদের একাংশ মনে করেন এটা সত্যি হলেও হতে পারে। কারণ আদৃত কিংবা কৌশাম্বী কখনও সেভাবে এর প্রতিবাদ করেননি। বরং সব কিছু শুনেও তারা চুপ রয়েছেন।