এইভাবে পরীক্ষা করে নিন আপনার শরীরে কোরোনা ভাইরাস আছে কিনা

এইভাবে পরীক্ষা করে নিন আপনার শরীরে কোরোনা ভাইরাস আছে কিনা

বিশ্বজুড়ে এখন মানুষ আতঙ্কিত কোরোনা ভাইরাসের ভয়।বিশ্বের অন্যান্য দেশগুলির পর এখন এই ভয়ঙ্কর ভাইরাস থাবা বসাচ্ছে ভারতে। পুরো বিশ্বে প্রায় সাড়ে তিন হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে এই ভাইরাসের সংক্রমন থেকে, আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে এক লক্ষ্। সামান্য হাঁচি কাশি হলেও মানুষ আতঙ্কিত হয়ে পড়ছেন, মনে একটাই প্রশ্ন, কোরোনা ভাইরাস সংক্রমণের ঘটলো না তো শরীরে?

যতদিন হাঁচি কাশি বা জ্বরের মতন উপসর্গ নিয়ে ডাক্তারের কাছে মানুষ আসছেন ততদিনে অনেকটা দেরী হয়ে যাচ্ছে। বেশীরভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যাচ্ছে ততদিনে ফুসফুসের ৫০% ফাইব্রোসিস সৃষ্টি হয়ে গেছে। দেরী হওয়ার আগেই কিভাবে বুঝবেন আপনার শরীরে এই ভাইরাসের সংক্রমণ ঘটেছে কিনা?

তাইওয়ানের বিশেষজ্ঞরা এই সমস্যার সমাধানের জন্য একটা বিশেষ উপায় বার করেছেন যাতে কয়েক সেকেন্ডের মধ্যেই আপনি নিজেই পরীক্ষা করে দেখে নিতে পারবেন আপনার শরীরে এই ভাইরাস সংক্রমণ ঘটেছে কিনা।

Source

আরও পড়ুন :- সর্দি জ্বর আর করোনা জ্বরের পার্থক্য, করোনা জ্বর বুঝবেন কীভাবে

সকালে ঘুম থেকে উঠে খোলা বাতাসে লম্বা শ্বাস নিন। তারপর আপনার শ্বাস কে ১০ সেকেন্ডের বেশী সময় নিজের ভেতরে আটকে রাখুন। এই সম্পূর্ণ সময় যদি আপনার কোনরকম অস্বস্তি না হয় কিংবা কাশি না আসে, কিংবা বুকে ব্যথা অনুভব না করেন তাহলে আপনার শরীরে কোনো জীবাণুর সংক্রমণ ঘটেনি। এর অর্থ হল আপনার ফুসফুসে কোনো ফাইব্রোসিস তৈরি হয়নি অর্থাত্‍ কোনো ইনফেকশন হয়নি, আপনি সম্পূর্ণ ঝুঁকিমুক্ত আছেন।

আরও পড়ুন :- ঘরোয়া পদ্ধতিতে এইভাবে বানিয়ে নিন করোনা ভাইরাসের মাস্ক

এছাড়াও জাপানের বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন যে মানুষের পাকস্থলীতে উপস্থিত অ্যাসিড এবং উৎসেচক এই ভাইরাসকে মেরে ফেলতে সক্ষম। সেই কারণেই তাদের উপদেশ যে মুখের ভেতরের অংশ বা গলা যাতে শুকিয়ে না যায় সেইদিকে বিশেষ নজর দিতে হবে। ১০-১৫ মিনিট পর পর জল খেতে হবে যাতে সেই ভাইরাস মুখের মাধ্যমে যদি শরীরে প্রবেশ করতে যায় তাহলে সেটি জলের মাধ্যমে পাকস্থলীতে চলে গেলে সংক্রমণের ঝুঁকি অনেকটা কমে যায়।