পেট্রোল এবং ডিজেলের দাম যেভাবে কমতে পারে ১৬ টাকা

Fuel Price Breakup in India

পেট্রোল (Petrol) এবং ডিজেলের (Diesel) দাম এর অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির মূল কারণ সরকারের চাপানো শুল্ক এবং কর। যে দামে মানুষ পেট্রোল কেনে তার ৬০ থেকে ৭০ শতাংশই কেন্দ্রীয় এবং বিভিন্ন রাজ্যের শুল্ক। শনিবার শেষ বৃদ্ধি পেয়েছে তেলের দাম, তারপর থেকেই অপরিবর্তিত আছে সেই দাম।

২০১৪ সালে যখন মোদি সরকার ক্ষমতায় আসে তখন পেট্রোলে প্রতি লিটার ৯.৪৮ টাকা আর ডিজেলের ক্ষেত্রে ৩.৫৬ টাকা ছিল উৎপাদন শুল্ক,যা বর্তমানে বেড়ে হয়েছে প্রতি লিটার পেট্রোলে ৩২.৯০ টাকা ও ডিজেলে ৩১.৮০ টাকা। তবে সম্প্রতি অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, রাজস্বের কোনরকম ক্ষতি না করেই পেট্রোল এবং ডিজেলের শুল্ক ৮.৫ টাকা থেকে ১৬ টাকা পর্যন্ত কমাতে পারে কেন্দ্রীয় সরকার।

Petrol Price Hike

সম্প্রতি প্রকাশিত PTI প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, আইসিআইসিআই সিকিউরিটিজ-এর মতে পেট্রোলিয়াম থেকে সরকারের আনুমানিক আয় ৩.২ লক্ষ কোটি টাকা।য দি ২০২১-২২ অর্থবছরের জ্বালানির ওপর সেই আয় কমানো না হয় তবে সরকার ৪.৩৫ লক্ষ কোটি টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারবে।

তবে ১লা এপ্রিলের আগে যদি লিটার প্রতি তেলের আবগারি শুল্ক ৮.৫ টাকা সরকার কমিয়ে দেয় তবে সেক্ষেত্রে রাজস্বের ক্ষতিও হবেনা আবার কেন্দ্রের বাজেটের আনুমানিক আয়ের লক্ষ্য পূরণ করা যাবে।

আরও পড়ুন : ৩২ টাকার পেট্রোল বিক্রি হচ্ছে ৯১ টাকায়, ১ লিটার তেলে কেন্দ্র রাজ্য কত ট্যাক্স নেয়

অন্যদিকে কেন্দ্রীয় সরকার যদি পেট্রোল আর ডিজেল GST-র আওতায় নিয়ে আসে সেক্ষেত্রে ১৬ টাকা পর্যন্ত কমানো যাবে পেট্রোল এবং ডিজেলের দাম।সেক্ষেত্রে পেট্রোল প্রতি লিটার ৭৫ টাকা এবং ডিজেল প্রতি প্রতি লিটার ৬৮ টাকায় পাওয়া যেতে পারে।

আরও পড়ুন : বিশ্বের যেসব দেশে পেট্রোলের দাম এক বোতল জলের থেকেও সস্তা