পুরনো চাল ভাতে বাড়ে, দীর্ঘদিন পর পর্দায় ফিরেও নতুনদের টেক্কা দিচ্ছে এই ৭ তারকা

উষসী থেকে দেবশ্রী, টোটা থেকে সুদীপা, পর্দায় আজও অটুট যাদের ম্যাজিক

Tota Roychowdhury and Indrani Haldar

বাঙালি দর্শকের বিনোদনের আঁতুরঘর হলো বাংলা ধারাবাহিক। আর এই ধারাবাহিকেই ইদানিং নতুন প্রজন্মের পাশাপাশি নামিদামি তারকাদেরও অভিষেক হচ্ছে। একসময় যারা ছবিতে অভিনয় করে সিনেমা হলে হাউসফুলের বোর্ড ঝুলিয়েছেন, আজ তাদের মধ্যে থেকে অনেকেই টেলিভিশনের পর্দা বেছে নিয়েছেন দর্শকের সঙ্গে সংযোগ বজায় রাখার জন্য।

দর্শকরাও তাদের সাদরে অভ্যর্থনা জানিয়েছেন। ছোটপর্দায় তাদের কামব্যাক ছিল এমনই অসাধারণ যে নতুনদের গুনে গুনে দশ গোল দিতে পেরেছেন তারা। এক নজরে দেখে নিন তাদের তালিকাটা।

টোটা রায়চৌধুরী (Tota Roychowdhury) : টোটা রায়চৌধুরীর কেরিয়ারের শুরুটা হয়েছিল টলিউডে। তবে একটা সময় পর টলিউডকে ছাপিয়ে বলিউডের দোরগোড়া পর্যন্ত গিয়ে পৌঁছেছেন টোটা। দিন প্রতিদিন তার জনপ্রিয়তা বাড়ছে। সিনেমার পর্দার পাশাপাশি টেলিভিশনের পর্দাতেও তার উপস্থিতি দর্শককে রোমাঞ্চিত করে। শ্রীময়ী ধারাবাহিকের রোহিত সেন হিসেবে আজ থেকে সারা বাংলা চেনে। একজন শিক্ষিত, ভদ্র রুচিসম্পন্ন প্রবাসী বাঙালির চরিত্রটিতে তাকে ছাড়া আর কাউকে মানাতো কি?

দেবশ্রী রায় (Deboshree Roy) : একসময় টলিউডে চুটিয়ে অভিনয় করেছেন দেবশ্রী। তারপর রাজনীতি করার বাসনা তার মনে জাগে। দীর্ঘ প্রায় ১০ বছর নিজেকে ক্যামেরার পর্দা থেকে সরিয়ে নিয়ে মন প্রাণ দিয়ে রাজনীতি করে গিয়েছেন দেবশ্রী। ১০ বছর পর নিজের ভুল স্বীকার করে নিয়ে আবারও ক্যামেরার সামনে ফিরেছেন তিনি। আর ফিরে এসেই কিস্তিমাত করেছেন কলকাতার রসগোল্লা। সর্বজয়া ধারাবাহিকে তার অভিনয় প্রথম সপ্তাহেই এই ধারাবাহিককে টিআরপি তালিকায় সেরা তিনে জায়গা করে দিয়েছে।

Shreemoyee and June Aunty Star Jalsha

উষসী চক্রবর্তী (Ushasie Chakraborty) : সকলের প্রিয় ‘জুন আন্টি’ তিনি। একটি খলনায়িকা চরিত্রও যে এত জনপ্রিয়তার দাবি রাখতে পারে, উষসী চক্রবর্তী যদি টেলিভিশনের পর্দায় না ফিরতেন তাহলে তা জানা যেত কি? দীর্ঘ বেশ কয়েক বছরের বিরতির পর শ্রীময়ী ধারাবাহিকের হাত ধরে ক্যামেরার সামনে কামব্যাক করেছেন উষসী। এখন তাকে ছাড়া বলতে গেলে ধারাবাহিকটিই অচল হয়ে পড়ে।

​ইন্দ্রাণী দত্ত (Indrani Dutta) : টলিউড অভিনেত্রী ইন্দ্রানী দত্ত একসময় বাংলা সিনেমা জগতের একাধিক সিনেমাতে অভিনয় করেছেন। তারপর তিনি দূরদর্শনের বেশকিছু টিভি শো’তেও অভিনয় করেন। ধীরে ধীরে ইন্ডাস্ট্রি থেকে নিজেকে সরিয়েই নেন তিনি। অভিনয়ের বদলে নাচ নিয়ে এতদিন মেতেছিলেন ইন্দ্রানী। কিন্তু জি বাংলায় জীবনসাথী ধারাবাহিকে সালংকারা ব্যানার্জির চরিত্রের আবারো ক্যামেরার সামনে প্রত্যাবর্তন করেন ইন্দ্রানী। তার এই চরিত্রটিকে সাদরে গ্রহণ করেছেন দর্শক।

​ওম সাহানি (Om Sahani) : ইদানিং ‘ডান্স বাংলা ডান্স’ এর মঞ্চে নাচের গুরু হিসেবে দেখা যাচ্ছে তাকে। এই রিয়েলিটি শোয়ের হাত ধরে দীর্ঘদিন পর টেলিভিশনের পর্দায় ফিরেছেন তিনি। এর আগে বেশ কয়েক বছর আগে ‘আলোর বাসা’ ধারাবাহিকে অভিনয় করতে দেখা গিয়েছিল তাকে।

​সুদীপা চট্টোপাধ্যায় (Sudipa Chatterjee) : খুব ছোট বয়স থেকেই ক্যামেরার সামনে আসার অভ্যাস তৈরি হয়ে গিয়েছিল সুদীপার। সঞ্চালনার কাজে তিনি পটু। দীর্ঘ প্রায় ১৩ বছর ধরে জি বাংলার রান্নাঘরের দায়িত্ব সামলেছেন তিনি। তার জনপ্রিয়তা এতটাই বেড়ে গিয়েছিল যে কুকিং শো’য়ের নাম হয়ে যায় সুদীপার রান্নাঘর। ২০১৮ সালে পুত্র আদিদেবের জন্মের কারণে টেলিভিশনের পর্দা থেকে সরে গিয়েছিলেন তিনি। তবে ছেলের জন্ম হতেই তিনি আবার ফিরেছেন রান্নাঘরে। তার জনপ্রিয়তা কিন্তু এতোটুকুও মলিন হয়নি।

​অঞ্জনা বসু (Anjana Basu) : সিনেমার পর্দায় সেভাবে দেখা না গেলেও অঞ্জনা বসু কিন্তু টেলিভিশনের পর্দার অত্যন্ত জনপ্রিয় মুখ। শেষবার ‘বিজয়িনী’ ধারাবাহিকে অভিনয় করতে দেখা গিয়েছিল তাকে। ধারাবাহিক শেষ হতেই কিছুদিনের জন্য তিনি নিজেকে সরিয়ে নিয়েছিলেন। এখন কালার্স বাংলায় ‘মন মানে না’ ধারাবাহিকে বড়মার ভূমিকায় অভিনয় করছেন তিনি।