গালওয়ানে ভারতীয় সেনার মুখোমুখি চিনা সেনা, ৮ মাস পর প্রকাশ্যে এলো ভিডিও

গত বছর ১৫ই জুন পূর্ব লাদাখের গলওয়ান উপত্যকায় ভারত (India) চিনের (China) মুখোমুখি সংঘর্ষের পর থেকেই দুই দেশের সম্পর্ক খারাপ হতে থাকে। তাতে প্রাণ হারান ২০ জন ভারতীয় জওয়ান। চিনের তরফেও প্রাণহানি ঘটেছে বলে জানায় ভারতীয় সেনা। কিন্তু এত দিন হতাহতের কোনও পরিসংখ্যানই সামনে আনেনি চিন। বরং হতাহতের বিষয়টিকেই ভুয়ো খবর বলে উড়িয়ে দিয়েছিল তারা।

শুক্রবার চিনের সরকারি সংবাদমাধ্যমে ১৫ই জুনের হাতাহাতির একটি ভিডিও প্রকাশ করা হয়েছে। ভিডিওতে দুই দেশের সেনাকে হাতাহাতি করতে দেখা যাচ্ছে। কিভাবে দুই সেনা মুখোমুখি হয় তাও কিছুটা বোঝা যায় এই ভিডিওটির মধ্যে দিয়ে। সেনাদের প্রাণহানির খবর কেন এত দিন চেপে রাখা হয়েছিল তা নিয়ে ক্ষোভ ছড়়ায় চিনের অভ্যন্তরে। তা প্রশমিত করতেই এই ভি়ডিয়ো প্রকাশ বলে মনে করা হচ্ছে। এই ভিডিওটি টুইটারে আপলোড করেছেন চিনা সরকারি সংবাদমাধ্যমের বিশ্লেষক শেন শিওয়েই।

ভিডিওটি আপলোড করে তিনি লিখেছেন ‘গত জুনে গলওয়ান উপত্যকার ভিডিয়ো। এটা দেখাচ্ছে কী ভাবে ভারতীয় সীমান্তবাহিনী চিনের দিকে অনুপ্রবেশ করছে’।এতদিন এই সংঘর্ষে চীনের কোনো ক্ষয়ক্ষতির কথা স্বীকার করেনি বেজিং। কিন্তু শুক্রবার বেজিং স্বীকার করল পিপলস লিবারেশন আর্মি (PLI)-র ৪ অফিসার এবং ১ জওয়ানের মৃত্যু হয়েছে এই সংঘর্ষে। ভারতীয় সেনার সাথে এই সংখ্যার অনেকটা ফারাক থাকলেও ঘটনার ৮ মাস পরে এই স্বীকারোক্তি ভারতের কূটনৈতিক জয় বলে বিবেচিত হচ্ছে। তবে অনেক বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন চিনের অভ্যন্তরীণ উত্তেজনাকে প্রশমিত করতেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে বেজিং।

সেনাদের প্রাণহানির খবর লুকিয়ে রাখায় চীনের অভ্যন্তরে ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। মনে করা হচ্ছে এই ক্ষোভের দরুন এই ভিডিও প্রকাশ করতে বাধ্য হয়েছে সেই দেশের সরকার। অন্যদিকে এই সময়ের মধ্যে উপগ্রহ চিত্রে দেখা গিয়েছে, চিন উপত্যকা অঞ্চলের বিভিন্ন এলাকা থেকে সেনা এবং গড়ে তোলা অস্থায়ী পরিকাঠামো সরিয়ে নিয়েছে।