৪৮ এও উপচে পড়ছে গ্ল্যামার, যৌবন ধরে রাখতে রোজ এই ছোট্ট কাজ করেন ঐশ্বর্য

৪৮ এও এত সুন্দরী, উপচে পড়ছে গ্ল্যামার, বিউটি সিক্রেট ফাঁস করলেন ঐশ্বর্য

বয়স তার প্রায় ৫০ ছুঁতে চলেছে, তবে এখনও যদি বিশ্ব সুন্দরীদের প্রতিযোগিতায় তিনি অংশ নেন তাহলে তাবড় তাবড় সুন্দরীদের পেছনে ফেলে দিতে পারেন। ৪৮ এও এত সুন্দরী কিভাবে ঐশ্বর্য রাই বচ্চন (Aishwarya Rai Bachchan)? প্রতিনিয়ত তিনি তার সৌন্দর্যে মুগ্ধ করছেন গোটা বিশ্বকে। হালফিলের দক্ষিণী ছবি ‘পন্নিয়িন সেলভান’-এ তাকে দেখে তো চোখই সরছিল না!

এই বয়সেও এতটুকু খামতি ধরা পড়ে না তার চেহারায়। বরং সৌন্দর্যের নিরিখে অষ্টাদশী তরুণীদেরও তিনি পেছনে ফেলে দেন। অনেকেই হয়তো ভাবেন রূপ-যৌবন ধরে রাখতে ঐশ্বর্য হয়ত কত কিছুই না করেন। আসলে ঐশ্বর্যের রূপ-সৌন্দর্যের রহস্য লুকিয়ে রয়েছে তার ডেইলি রুটিনেই। শরীরের জন্য কী কী করেন ঐশ্বর্য? জেনে নিন তার বিউটি সিক্রেটস (Aishwarya Rai Bachchan Beauty Secrets)।

প্রথমত সকাল থেকেই তিনি নিজের শরীর এবং মনের যত্ন নিতে শুরু করেন। ঘুম থেকে উঠেই তার যোগা করা চাইই চাই। যোগার মাধ্যমে শরীর এবং মনের যত্ন নেন তিনি। এরপর মধু এবং লেবু মেশিয়ে এক গ্লাস উষ্ণ গরম জল পান করেন। খাওয়া-দাওয়া নিয়ে তিনি বরাবরই সচেতন। সাধারণত ওটস বা ব্রাউন ব্রেডের টোস্ট দিয়ে তিনি ব্রেকফাস্ট করেন।

ঐশ্বর্যর প্রিয় খাবার কিন্তু ম্যাঙ্গালোরের স্টাইলে রাঁধা মাছ এবং চিকেনের বিশেষ পদ। মাঝে মাঝে সেটা দিয়েও উদরপূর্তি করেন তিনি। রাতে তিনি একেবারে খুব কম তেল মশলার খাবার খান। ডিনারে তার পাতে থাকে গ্রিল করা মাছ, সামান্য ব্রাউন রাইস এবং সবজি। রাতে কতটা খাচ্ছেন তার পরিমাপের জন্য ঐশ্বর্যের কাছে রয়েছে একটা ছোট্ট কাপ।

এভাবেই দিনভর পরিমাণমত খাবার খান ঐশ্বর্য। সেই সঙ্গে যোগা করে শরীর ফিট রাখেন। এত বছর বয়সেও তাকে যে এত কম বয়সী বলে মনে হয় তার পেছনে কারণ কিন্তু যোগাই। যোগব্যায়ামের মাধ্যমে শরীরের যে উপকার হয় তা বিশ্বাস করেন ঐশ্বর্য। সেই সঙ্গে তিনি এও মানেন যে ত্বকের লাবণ্য ধরে রাখার জন্য দিনে প্রচুর পরিমাণে জল খেতে হবে। এতে ত্বকের আর্দ্রতা বজায় থাকে।

সেই সঙ্গে সারাদিনে তিনি কী খাচ্ছেন সেই দিকেও কড়া নজর রাখেন। দিনের তিনি প্রচুর পরিমাণে ফলও খান। এতে তার শরীরে পুষ্টি মেলে ও তিনি সুস্থ থাকতে পারেন। এছাড়া বাড়িতে যোগা করা ছাড়াও তিনি সপ্তাহে দুদিন জিমে শরীর চর্চাও করতে যান। এই সহজ কিছু রুটিন মেনেই আজও এত সুন্দরী ঐশ্বর্য।