পালং শাকের সম্পুর্ণ নিরামিষ একটি রেসিপি, রুটি হোক বা ভাত থালা হবে চেটেপুটে সাফ

খেতেও মজা বানাতেও সোজা, পালং শাকের এই নিরামিষ রেসিপি দিয়েই উঠে যাবে এক থালা ভাত

শীতে বাজারে পালং শাক অঢেল। এর মধ্যে রয়েছে প্রচুর পুষ্টিগুণ তাই ছোট থেকে বড় সকলেরই শীতের এই সবজি অবশ্যই খাওয়া উচিত। পালং শাকের রেসিপির মধ্যে পালং পনির অনেকেই খেয়েছেন। তবে পালং শাক দিয়ে আলুর দম কিংবা আলু পালংয়ের দম রেসিপিটা নিশ্চয়ই ট্রাই করে দেখা হয়ে ওঠেনি? আজ এই প্রতিবেদনে রইল সম্পূর্ণ নিরামিষ আলু পালংয়ের দমের (Veg Aloo Palang Dom) একটি দুর্দান্ত রেসিপি। ভাত হোক বা রুটি, এই একটি পদ থাকলেই খাওয়া জমে যাবে।

আলু পালংয়ের দম রান্নার জন্য প্রয়োজনীয় উপকরণ : পালং শাক, নুন, শুকনো লঙ্কা, আলু, তেল, ছোট এলাচ, দারচিনি, স্টার অ্যানিস, জৈত্রী, শাহী জিরে, টমেটো, আদা, কাঁচা লঙ্কা, ধনেপাতা, কাশ্মীরি লঙ্কার গুঁড়ো, জিরে গুঁড়ো, হলুদ গুঁড়ো, ধনে গুঁড়ো, চিনি, কসৌরি মেথি, ফ্রেশ ক্রিম, ঘি কাজুবাদাম।

আলু-পালংয়ের দম রান্নার পদ্ধতি : প্রথমেই এই রান্নার জন্য কড়াইতে একটু তেল গরম হতে দিতে হবে। তেল গরম হয়ে এলে তার মধ্যে দিতে হবে গোটা গরম মশলা। যার মধ্যে থাকবে মুখ ফাটানো ছোট এলাচ, ছোট ছোট দারচিনি টুকরো, স্টার অ্যানিস, জৈত্রী, শাহী জিরে। ১৫-২০ সেকেন্ড মশলাটা একটু নেড়ে নিন। এরপর একটা টমেটো টুকরো করে কেটে নিয়ে এর মধ্যে যোগ করে দিন।

এবার এই রান্নার মধ্যে আদা এবং গোটা কাঁচালঙ্কাও দিয়ে দিতে হবে। এক মিনিট রান্না করে নেওয়ার পর এর মধ্যে পালং শাক ভাল করে ধুয়ে দিয়ে দিন। এক্ষেত্রে পালং শাক ছোট ছোট টুকরো করে কাটার প্রয়োজন নেই। অল্প কিছুক্ষণ ভেজে নেওয়ার পর এর মধ্যে দিয়ে দিতে হবে ধনেপাতা। এবার এর মধ্যে লবণ দিয়ে দিতে হবে।

৩-৪ মিনিট পর যখন শাকের থেকে জল বেরিয়ে আসবে তখন গ্যাসের ফ্লেম বন্ধ করে দিন। এবার ঠান্ডা করে মিক্সিতে পিসে একটা পেস্ট বানিয়ে নিন। এবার কড়াইতে তেল গরম করে তার মধ্যে লবণ মাখানো আলু ভেজে নিন। আলু ভাজার পর সেটা তুলে নিয়ে ওই তেলের মধ্যে পালং শাকের পেস্ট দিয়ে দিন। এবার এই রান্নার মধ্যে কাশ্মীরি লঙ্কার গুঁড়ো, জিরে গুঁড়ো, হলুদ গুঁড়ো এবং ধনে গুঁড়ো দিয়ে দিতে হবে। সেই সঙ্গে শাহী গরম মশলার গুঁড়োও এর মধ্যে দিয়ে দিতে হবে।

কিছুক্ষণ কষিয়ে এর মধ্যে ভেজে রাখা আলু দিয়ে দিতে হবে। প্রয়োজনে অল্প লবণ দিতে পারেন। এর মধ্যে একটু চিনিও দিয়ে দিতে হবে‌। তারপর ফ্রেশ ক্রিম দিয়ে গ্যাসের ফ্লেম বন্ধ করে দিন। এবার উপর থেকে কসৌরি মেথি হাতের সাহায্যে গুঁড়ো করে দিয়ে দিন। এবার অন্য একটি পাত্রের মধ্যে সামান্য ঘি গরম করে তার মধ্যে আধভাঙ্গা কাজু, শুকনো লঙ্কা ভেজে নিতে হবে। এবার এটা এই রান্নার মধ্যেও দিয়ে দিতে হবে। শেষের এই উপকরণটি পালং আলুর দমের স্বাদ আরও বাড়িয়ে দেয়।