পুজোর আগে প্রতিটি চাষী পাবে ২০০০ টাকা, বড় ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

আর মাত্র হাতে গণ কয়েকটা দিন পরেই দুর্গা পুজো। যদিও করোনা আবহে পুজোর উত্তেজনায় কিছুটা হলেও ভাত পড়েছে। তবে রাজ্য সরকার রাজ্যের চাষী এবং মৎস্যজীবীদের জন্য পুজো উপলক্ষে করলেন একটি বড় ঘোষণা। এবার দুর্গা পুজোর আগে রাজ্যের চাষি এবং মৎস্যজীবীদের দুমাসের পেনশন বোনাস হিসাবে দেওয়া হবে।

কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে দু’দিন আগেই জানানো হয়েছে উত্‍সব উপলক্ষে পশ্চিমবঙ্গ সরকারকে ৪১৭ কোটি টাকা দেওয়া হবে রাজ্যের বকেয়া বাবদ। আর এই ঘোষণার পরেই পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যের চাষি এবং মৎস্যজীবীদের জন্য আগাম পেনশন দেওয়ার ঘোষণা করলেন।

সূত্র মারফত জানা গিয়েছে, আগামী মাস অর্থাৎ অক্টোবরে দু’মাসের আগাম কৃষক ভাতা বা পেনশন পাবেন রাজ্য সরকারের পেনশন স্কিমে থাকা চাষিরা। রাজ্য সরকারের এই প্রকল্পের আওতায় থাকা চাষীদের ২০০০ টাকা করে দেওয়া হবে বলে জানা গিয়েছে। একইভাবে রাজ্যের মৎস্যজীবীদেরও বোনাস হিসাবে আগাম ভাতা দেওয়া হবে। আর এই প্রকল্পের জন্য রাজ্যের কোষাগার থেকে ২২ কোটি টাকা খরচ হবে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের কারণে রাজ্যের বহু কৃষক বিপুল অর্থের ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন এবছর। সবথেকে বেশি ক্ষতির সম্মুখীন উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা এবং পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুরের চাষিরা। অন্যদিকে একই ভাবে ক্ষতির সম্মুখীন উপকূলবর্তী এলাকায় মৎস্যজীবীরাও। যে কারণে রাজ্য সরকারের তরফ থেকে এমন ঘোষণা কিছুটা হলেও স্বস্তি দেবে চাষীদের বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

আরও পড়ুন : কোন রেশন কার্ডে মাসের কোন দিন কতটা চাল-ডাল-গম-আটা পাবেন দেখুন

তবে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে একুশের বিধানসভা নির্বাচনের আগে পুজোর মরসুম ভোট সমীকরণের সুবর্ণ সুযোগ বলে আখ্যা দিয়েছেন। অন্যদিকে শাসক বিরোধী দলগুলি ইতিমধ্যেই রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে প্রচার শুরু করে দিয়েছে। আর এসব কথা মাথায় রেখেই রাজ্য সরকারের শাসক দলও কোন রকম সুযোগ হাতছাড়া করতে চাইছে না।