খাদ্যনালীতে তৈরি হয় অ্যালকোহল, এই রোগে মদ না খেয়েই মাতলামি করে মানুষ

কখনও ভেবেছেন, অ্যালকোহল না খেয়েও আপনি মদ্যপ হয়ে মাতলামি করতে পারেন? শুনতে অদ্ভুত লাগলেও এরকম ঘটতেই পারে। হ্যা। অসুখের নাম অটো ব্রুয়ারী সিনড্রোম।এইরকম অসুখে মানুষের পাকস্থলীতে উৎপন্ন হয় অ্যালকোহল।

অটো ব্রুয়ারী সিনড্রোম কি?

এরকম অসুখের ক্ষেত্রে মানুষের শরীরেই উৎপন্ন হয় অ্যালকোহল। ব্যাক্তির শরীরে ইস্ট নামক ছত্রাক তৈরি হয়। ছত্রাকনাশক আসুধেও লাভ হয় না তেমন। মদ না খেলেও নেশার মাত্রা এত বেড়ে যায় যে মস্তিষ্কে শুরু হয় রক্তক্ষরণ। রক্তে অ্যালকোহলের মাত্রা ৩০০-৯০০ মিলিমিটার/ ডি এলের কাছে পৌঁছাতে পারে।

এই রোগের কারন কি?

মূলত মানুষের খাদ্যনালীতে ব্যাকটেরিয়ার সংখ্যা কমে গিয়ে যদি ছত্রাকের সংখ্যা বেড়ে যায় সেক্ষেত্রে এইরকম রোগ দেখা যায়।ব্যাকটেরিয়া আমাদের শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা যেমন বাড়ায় তেমনই পাকস্থলী ও সংলগ্ন অঞ্চলের এইধরনের ব্যাকটেরিয়াগুলো খাবার হজম করতে সাহায্য করে এবং শরীরে ভিটামিন এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয় উপকরন বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। কোনো ব্যক্তি যদি বেশি পরিমাণে অ্যান্টি বায়োটিক এর ডোজ নেন তাহলে ধীরে ধীরে এই ব্যাকটেরিয়া গুলোও ধ্বংস হয়ে যেতে পারে এবং এই ধরনের ক্ষেত্রে দেখা যায় ব্যাকটেরিয়া ধ্বংসের ফলে ক্ষুদ্রান্ত্রে এবং পাকস্থলীতে, সিকামে সৃষ্টি হয় ইস্ট নামের ছত্রাক যা কার্বোহাইড্রেট কে ইথানলে পরিণত করে।ফলে কার্বোহাইড্রেট জাতীয় খাবার খেলেই কোহল সন্ধান প্রক্রিয়াতে শরীরে তৈরি হচ্ছে অ্যালকোহল।তারপর তা মেশে রক্তে, এবং ফলস্বরূপ একফোঁটা মদ ছাড়াই মানুষ হয় চূড়ান্ত মাতাল।

তবে এই ধরনের রোগ মানুষকে বিশ্বাস করানো খুবই কঠিন কারণ মুখ থেকে মদ এর গন্ধ পেলেই এককথায় মানুষ মেনে নেন ব্যাক্তিটি মদ্যপান করেছেন, কিন্তু আসলে হতে পারে নিজের অজান্তেই তিনি আক্রান্ত এই বিরল রোগে। যাদের দেহে রোগ প্রতিরোধ এর ক্ষমতা খুবই কম তাদের শরীরে এই ধরনের রোগ বাসা বাঁধতে পারে।