ভারতের মধ্যে প্রথম করোনা মুক্ত অঞ্চল হিসেবে রেকর্ড করলো এই অঞ্চল

আট মাস পর করোনামুক্ত হয়েছে এই কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলটি। সোমবার নতুন কেউ আক্রান্ত না হওয়ায় এবং চার জন রোগী সুস্থ হয়ে যাওয়ায় এই অনবদ্য রেকর্ড করে ফেলল আন্দামান। সোমবারের পর আন্দামানে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা এখন ০।

ভারতের মধ্যে প্রথম করোনা মুক্ত অঞ্চল হিসেবে রেকর্ড করলো কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল আন্দামান নিকোবর দ্বীপপুঞ্জ (Andaman and Nicobar Islands)। সোমবার কেউ নতুন করে আক্রান্ত হননি এবং ৪জন রোগী সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। এখানে বর্তমানে একজনও সক্রিয় করোনা রুগী নেই। গত বছরের মার্চ- এপ্রিলে যখন প্রথম করোনা সংক্রমন দেশজুড়ে ছড়িয়ে পড়তে লাগল সেইসময় কিছুদিনেই ৩৩জন আক্রান্ত হন এই দ্বীপপুঞ্জে। তবে ২৩সে মে খবর আসে আক্রান্ত ৩৩ জনই সুস্থ্য এবং নতুন কোনও আক্রান্তের খবর নেই। তখন প্রথমবারের জন্য করোনা মুক্ত হয় এই অঞ্চল।

১১ই জুন আবারও নতুন করে ৫ জনের আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া যায় এবং ক্রমশ বাড়তে থাকে সেই সংখ্যা।এর মধ্যেই পর্যটকদের জন্য খুলে দেওয়া হয় আন্দামান। তবে তা সত্বেও গত ৬-৭ দিনে কোনও নতুন সংক্রমনের খবর পাওয়া যায়নি। সুস্থ হয়ে উঠেছেন চিকিৎসাধীন ব্যক্তিরাও। এই অঞ্চলে মোট ৪,৯৯৪ জন করোনা আক্রান্তের মধ্যে ৪,৯৩২ জন সুস্থ্য হয়ে উঠেছেন এবং মারা গেছেন ৬২জন।এই কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে মৃত্যুর হার ১.২ শতাংশ। করোনা মুক্ত হলেও এখনও সবরকম সচেতনতা অবলম্বন করছেন এখনকার মানুষ এবং সাস্থ্য কর্মীরা। দিন এগোনোর সাথে সাথে এই অঞ্চলে ভিড় বাড়ছে পর্যটকদের।ফলে আবারও নতুন করে সংক্রমন ছড়াতেই পারে বলে মনে করছেন চিকিৎসকরা।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের (Ministry of Health and Family Welfare) তথ্য অনুযায়ী মঙ্গলবার ভারতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১ কোটি ৭ লক্ষ ৬৬ হাজার ২৪৫। গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৮ হাজার ৬৩৫ জন।

দেশে সংক্রমণের হার কমলেও দৈনিক সংক্রমণের হার ১ এবং ২ শতাংশের মধ্যে ওঠানামা করছে। এখনো পর্যন্ত ভারতে মোট ১৯ কোটি ৭৭ লক্ষ ৫২ হাজার ৫৭টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। দেশের মধ্যে সংক্রমণশীর্ষে রয়েছে কেরল (৩,৪৫৯)। দ্বিতীয় স্থানে মহারাষ্ট্র (১,৯৪৮)। তামিলনাড়ু (৫০২), কর্নাটক (৩৮৮), ছত্তীসগঢ় (৩২২), গুজরাত (২৯৮), পঞ্জাব (১৯৪), পশ্চিমবঙ্গ (১৭৯) এবং উত্তরপ্রদেশ (১৭১)। একদিনে সুস্থ হয়েছেন ১৩ হাজার ৪২৩ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে মৃত্যু হয়েছে মাত্র ৯৪ জনের।