ভারতের এই ২০টি জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা সব থেকে বেশি

বিশ্বের কাছে এখন সব থেকে বড় মাথাব্যথার কারণ খুদে এক ভাইরাস কোভিড ১৯। যে ভাইরাসের সংক্রমণে নাছোড়বান্দা অবস্থা বিশ্বের উন্নততর থেকে উন্নততম দেশগুলির। এই ভাইরাস ইতিমধ্যেই থাবা বসিয়েছে বিশ্বের প্রায় প্রতিটি দেশে। বাদ পড়েনি ভারতও। প্রতিদিন প্রতিনিয়ত বেড়েই চলেছে সংক্রামিত রোগীর সংখ্যা, মৃতের সংখ্যা। ভারতে ইতিমধ্যেই সংক্রামিত রোগীর সংখ্যা পৌঁছে গেছে ৪২৫৩৩ এ, আর মৃতের সংখ্যায় গিয়ে দাঁড়িয়েছে ১৩৭৩ এ।

ভারতে এই সংক্রমণ ঠেকাতে মার্চ মাসের ২৪ তারিখ থেকে জারি করা হয়েছে লকডাউন। যে লকডাউন প্রথম, দ্বিতীয় দফা অতিক্রম করে পা রেখেছে তৃতীয় দফাতে। তৃতীয় দফার লকডাউন চলবে আগামী ১৭ ই মে পর্যন্ত। কিভাবে এই সংক্রমণের হাত থেকে বাঁচা যায় তা নিয়েই মাথাব্যথা শুরু হয়েছে কেন্দ্র সরকার থেকে রাজ্যের প্রতিটি রাজ্য সরকারের। এমত অবস্থায় কেন্দ্র সরকারের থেকে মে মাসের ৩ তারিখ একটি তালিকা প্রকাশ করা হয়, যে তালিকা থেকে জানা গিয়েছে সরকারের মাথাব্যথার কারণ দেশের ২০ টি জেলা। যে ২০টি জেলাতেই করোনা সংক্রামিত রোগীর সংখ্যা সব থেকে বেশি।

সর্বাধিক করোনা আক্রান্ত ২০টি জেলা

কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে প্রকাশিত তালিকা অনুযায়ী ২০টি জেলার মধ্যে রয়েছে পশ্চিমবঙ্গেরও একটি জেলা। যেগুলি হলো ১) মহারাষ্ট্রের মুম্বাই, ২) গুজরাতের আমেদাবাদ, ৩) দিল্লি (দক্ষিণ-পূর্ব), ৪) মধ্যপ্রদেশের ইন্দোর, ৫) মহারাষ্ট্রের পুনে, ৬) রাজস্থানের জয়পুর, ৭) মহারাষ্ট্রের থানে, ৮) গুজরাটের সুরাট, ৯) তামিলনাড়ুর চেন্নাই, ১০) তেলেঙ্গানার হায়দ্রাবাদ, ১১) মধ্যপ্রদেশের ভোপাল, ১২) রাজস্থানের যোধপুর, ১৩) দিল্লি (মধ্য), ১৪) উত্তরপ্রদেশের আগ্রা, ১৫) পশ্চিমবঙ্গের কলকাতা, ১৬) অন্ধপ্রদেশের কুর্ণুল, ১৭) গুজরাটের ভাদোদারা, ১৮) অন্ধ্রপ্রদেশের গুন্টুর, ১৯) অন্ধ্রপ্রদেশের কৃষ্ণা এবং ২০) উত্তর প্রদেশের লখনৌ।

সংক্রমণের হারের ভিত্তিতে এই তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে কেন্দ্রের তরফ থেকে। অর্থাৎ যে জেলায় সব থেকে বেশি সংক্রমণ সেই জেলাকে রাখা হয়েছে এক নম্বরে, বাকিদের পরপর। আর এই তালিকা থেকে জানা যায় পশ্চিমবঙ্গের কলকাতার স্থান রয়েছে ১৫ নম্বরে।