মাস্ক ব্যবহারের সময় এই ১০টি ভুল হিতে বিপরীত হতে পারে

করোনা আমাদের কত কিছু শিখিয়ে দিচ্ছে প্রতিদিন। নিজেদের পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখা, বাইরে জামা কাপড় পড়ে ঘরে না ঢোকা, হাত বারবার স্যানিটাইজ করা আর সর্বোপরি মাস্ক ব্যবহার।

হ্যাঁ, আমরা আর কিছু শিখি না শিখি এই মাস্ক পরার প্রয়োজনীয়তা কতখানি তা ছোট থেকে বৃদ্ধ আমরা সকলেই এই কদিনে শিখে গেলাম! শুধু মাস্ক পরতেই শিখলাম না নিজেরা বানাতেও শুরু করলাম। আবার অনেক সময় এই মাস্ক থেকেও জীবাণু ছড়ায়! হ্যাঁ, মাস্ক যদি আপনি ঠিক মতো ব্যবহার না করেন তাহলে এই মাস্ক থেকেও জীবাণু ছড়াতে পারে! তাই মাস্ক ঠিক কীভাবে ব্যবহার করা উচিত দেখে নিন।

বাইরে যাওয়ার আগে মাস্ক পরবেন অবশ্যই। কিন্তু মাস্কটি হাতে নেওয়ার আগে হাত স্যানিটাইজ করতে একদম ভুলবেন না। হ্যাঁ হাতে মাস্ক নেওয়ার আগে হাত পরিষ্কার করতে হবে।

যেখানে-সেখানে যখন-তখন মাক্সে হাত দেওয়া যাবেনা। কারণ আপনার হাতের মধ্যে থাকা জীবাণু তখন মাস্কে লেগে যাবে। আর মাস্কের মাধ্যমেই তখন সংক্রমিত হওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হবে।

আপনার মাস্ক যদি ছেঁড়া অথবা ময়লা হয় তাহলে সেটি তৎক্ষণাৎ বাতিল করুন। সব সময় পরিষ্কার এবং ভালো মাস্ক পরুন।

মাস্ক এমন কিনবেন যা মুখের সঙ্গে ফিটিং হয়। আপনি মাস্ক পরছেন কিন্তু মাস্ক আর মুখের মধ্যে ফাঁক রয়ে গেছে তাহলে বলতে হবে আপনার মাস্ক পড়ার প্রয়োজনীয়তাও পুরোপুরি ব্যর্থ।

মাস্কটি মুখে পরার পর সারা রাস্তা মুখেই রাখুন। মুখ থেকে টেনে মুখের নীচে বা গলায় নামাবেন না, এটা আপনার জন্য ক্ষতিকারক।

মাস্ক যখন কিনবেন তখন মাথায় রাখবেন তা যেন ত্রি-স্তরবিশিষ্ট মোটা ধরনের হয়। আপনি প্রয়োজনে একটির বদলে একাধিক মাস্ক ও ব্যবহার করতে পারেন।

মাস্কটি যখন খুলবেন তখন মাথার পিছনে থাকা ফিতে ধরেই খুলবেন।

মাস্কটি যদি কোনো কারনে ধোয়া না যায় তাহলে স্যানিটাইজ করুন যদি তাও করা না যায় তাহলে ঘন্টাদুয়েক রোদে রাখুন। এরপর মাস্কটি একটি প্লাস্টিকের ব্যাগে ভরে রাখুন। ‌

মাস্কটি ধোয়ার পর নিজের হাত আবার ধুয়ে ফেলুন সাবান জলে।

মাস্ক যখন রোদে দেবেন তখনও মাস্কের ভেতরের অংশে হাত দেবেন না। এতে আপনার হাতে কোনো জীবাণু থাকলে সেটি মাস্কে লেগে যেতে পারে।