ভর করেছে কেয়া বৌদি, বাথরুমে স্নান করতে-করতে লাইভে এলেন স্যান্ডি সাহা

কেয়া বৌদি ভর করেছে স্যান্ডিকে! হোটেলের বাথরুমে স্নানের লাইভ দেখে মন্তব্য নেটিজেনদের

SANDY SAHA

সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে রাতারাতি সেলিব্রিটি হয়েছেন স্যান্ডি সাহা (Sandy Saha)। ফেসবুক (Facebook) এবং ইউটিউবে ভাইরাল নানা বিষয় নিয়ে ভিডিও গানে মাঝেমধ্যেই লাইমলাইট কেড়ে নেন তিনি। সোশ্যাল মিডিয়াতে তার আরও এক পরিচয় রয়েছে, নাইটি বৌদি! স্যান্ডি সাহা তার বিখ্যাত নাইটি পরে রাস্তাঘাট, ট্রেন, বাস, ট্রাম এমনকি প্লেনে উঠেও সফর করতে পারেন! সেই নাইটি বৌদি এবার হাজির একটি পাঁচতারা হোটেলে।

বুধবার সোশ্যাল মিডিয়াতে একটি ভিডিও শেয়ার স্যান্ডি। একটি পাঁচতারা হোটেলের বাথরুম থেকে লাইভ হয়েছিলেন তিনি! গোলাপি রঙের নাইটি পরে হোটেল রুমের ভেতর দাপাদাপি করতে দেখা যাচ্ছে স্যান্ডিকে। তবে এই হোটেলের রুমে তিনি একা নন, তার সঙ্গে রয়েছেন আরও এক পুরুষ। সোশ্যাল মিডিয়াতে রীতিমতো ভাইরাল হয়েছে ভিডিওটি।

কলকাতার মেঘলা দিনে স্যান্ডিল মন হয়েছে উতলা। বৃষ্টির গান শুনতে শুনতে হঠাৎ লাইভ করার কথা মাথায় আসে তার। কৃষ্ণা চট্টোপাধ্যায় এবং ইমরান মহামুদুলের গান ‘যদি বৃষ্টি হোস’ শুনে স্যান্ডির মন উতলা হয়েছে। শুধু হোটেলের রুমে নয়, লাইভ করতে করতে স্যান্ডি পৌঁছে গিয়েছিলেন হোটেলের বাথরুমেও!

হোটেল রুমের বাথরুমে গিয়ে শাওয়ার চালু করে ভিজতে শুরু করেন স্যান্ডি। বাথরুমে রীতিমতো গড়াগড়ি খেতে খেতে ভিজতে শুরু করেন তিনি। নিজে একা নয়, নিজের সঙ্গে অন্যান্য বন্ধুদেরও রীতিমতো ভিজিয়ে ছেড়েছেন তিনি! স্যান্ডির কীর্তিকলাপ দেখে নেটিজেনদের চক্ষু চড়কগাছ।

এমন ভিডিওর কমেন্ট বক্স ছাপিয়ে উপচে পড়ছে মন্তব্য। নেটিজেনরা পক্ষে-বিপক্ষে নানা ধরনের মন্তব্য করছেন স্যান্ডিকে উদ্দেশ্য করে। কেউ লিখছেন, “মানসিক রোগীরাও তাদের ইচ্ছেমতো নাচন কোদন প্রদর্শন করবে আর পাবলিক হা করে গিলবে। এটাই হল আধুনিক সোশ্যাল মিডিয়া।” কেউ কেউ আবার হালফিলে ভাইরাল কেয়া বৌদির সঙ্গে স্যান্ডিকে তুলনা করেছেন। যদিও স্যান্ডির এই ভিডিও আবার নেটিজেনদের মধ্যে বেশ কয়েকজনের মন ভালো করে দিয়েছে।