টিআরপি বাড়াতে অবাস্তব ঘটনা দেখানো হয়, বাংলা ধারাবাহিক নিয়ে বিস্ফোরক ইষ্টিকুটুমের কমলিকা

টিআরপি বাড়াতে যেন অবাস্তব কিছু দেখানো না হয়, ৫ বছর পর ফিরে নির্মাতাদের সাফ জানিয়ে দিলেন অভিনেত্রী

বাংলা ধারাবাহিকের (Bengali Telivision) টিআরপিই হল শেষ কথা। যে ধারাবাহিকের টিআরপি যত বেশি, সেই ধারাবাহিক বেশি দিন চলার সম্ভাবনা বেশি থাকে। টিআরপি তালিকাতে ভালো ফল করতে না পারলেই সরিয়ে বা বন্ধ করে দেওয়া হয় ধারাবাহিক। তাই অতি নাটকীয়তা, অবাস্তব কল্পকাহিনী ভর করে ধারাবাহিকগুলোতে।

তবে বাংলা ধারাবাহিকের এই ধারা মোটেই পছন্দ নয় ইষ্টিকুটুম (Istikutum) খ্যাত অভিনেত্রী অঙ্কিতা চক্রবর্তীর (Ankita Chakraborty)। বাংলা ধারাবাহিকের টিআরপি বাড়াতে যে অবাস্তবতার আশ্রয় নেওয়া হয় তা তিনি চান না। তার আসন্ন প্রজেক্টেও এমন কিছু হোক সেটা তিনি চাইছেন না।

কালার্স বাংলায় আসছে নতুন ধারাবাহিক ‘ইন্দ্রানী’। এই ধারাবাহিকের নায়িকা হতে চলেছেন অঙ্কিতা। এর আগে একাধিক ধারাবাহিককে অভিনয় করলেও এই প্রথম নায়িকা হিসেবে অভিষেক ঘটতে চলেছে তার। স্বভাবতই এই ধারাবাহিক তার জন্য বিশেষ।

ইষ্টিকুটুম এর পর প্রায় পাঁচ বছর কেটে গিয়েছে। দীর্ঘ পাঁচ বছর ধারাবাহিকের পর্দা থেকে নিজেকে সরিয়ে রেখেছিলেন অঙ্কিতা। কিন্তু এবার তিনি নতুন ধারাবাহিকের নায়িকা হয়ে ফিরছেন। কিন্তু তিনি চাইছেন না তার ধারাবাহিকে টিআরপি বাড়ানোর জন্য অহেতুক অবাস্তবতার আশ্রয় নেওয়া হোক।

সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে অঙ্কিতা জানিয়ে দিয়েছেন তিনি নির্মাতাদের সঙ্গে এই বিষয়ে কথা বলে নিয়েছেন। এই ধারাবাহিকে এক অসমবয়সী প্রেমের গল্প দেখানো হবে। যেখানে নায়কের বয়স নায়িকার তুলনায় কম। বাংলা ধারাবাহিকের ইতিহাসে এমনটা এই প্রথমবার দেখানো হতে চলেছে।

এই পাঁচ বছর ধারাবাহিক থেকে দূরে সরে থাকলেও অঙ্কিতা কিন্তু অভিনয় ছাড়েননি। এই পাঁচ বছরের মুক্তি পেয়েছে তার অভিনীত ‘ব্যোমকেশ ফিরে এল’, ‘ব্যোমকেশ বক্সি ‘এবং কিরীটি’। এখন মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে ‘আকাশ অংশত মেঘলা’ এবং ‘কাদম্বরী আজও’। ‘হায় তবা’, ‘দ্য ডার্লিং’, ‘পবিত্র পাপী’ ‘চরিত্রহীন’, ‘বউ কেন সাইকো’, ‘মাফিয়া’ নামের বেশ কিছু ওয়েব সিরিজেও তিনি কাজ করেন।