‘জবা’ পল্লবী এখন ‘নিম ফুল’, জি বাংলার নতুন সিরিয়ালের এমন নামের মানে কী

নামেই বাজিমাত, পল্লবীর নতুন সিরিয়াল ‘নিম ফুলের মধু’র মানে জেনে প্রশংসায় পঞ্চমুখ দর্শকরা

সম্প্রতি জি বাংলার (Zee Bangla) তরফ থেকে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করা হয়েছে নতুন সিরিয়াল ‘নিম ফুলের মধু’র (Neem Fuler Modhu) প্রথম প্রোমো। এই নতুন ধারাবাহিক নিয়ে এখন দর্শক মহলে রীতিমত শোরগোল পড়ে গিয়েছে। ধারাবাহিকের নাম থেকে স্টার কাস্টিং, গল্পের বিষয়বস্তু, সবেতেই রয়েছে চমক। প্রত্যেকটি বিষয় নিয়েই দর্শকরা দারুণ আগ্রহ বোধ করছেন। আজ এই প্রতিবেদনে রইল ধারাবাহিকের এমন অভিনব নামকরণের অর্থ।

ধারাবাহিকের নাম কেন ‘নিম ফুলের মধু’ রাখা হল? প্রোমো দেখেই দর্শকদের মনে এই প্রশ্ন উঠছে। এই সিরিয়ালের এমন নামকরণের পেছনে কিন্তু খুব সুন্দর একটি অর্থ রয়েছে। ধারাবাহিকের প্রোমোতে গল্পের বিষয়বস্তু সম্পর্কে কিছুটা আভাস দেওয়া হয়েছে। বাড়ির আদরের মেয়ে পর্ণা অনেক স্বপ্ন নিয়ে যৌথ পরিবারে বিয়ে হয়ে আসে। বিয়ের পর তাকে কোন পরিস্থিতির মুখে পড়তে হয়, সেই নিয়েই এগিয়ে যাবে গল্প।

Zee Bangla`s Upcoming Serial Neem Phuler Modhu Probable Time Slot

পর্ণা ভেবেছিল স্বামীকে পাশে পেলেই সে যৌথ পরিবারের মানিয়ে নিতে পারবে। তবে বিয়ে হয়ে আসার পর সে বুঝতে পারে তার শ্বশুরবাড়ি এখনও পুরনো কিছু ধ্যান-ধারণা নিয়ে রয়েছে। যেমন ফুলশয্যার রাতে বরের হাতে একটা ঘড়ি উপহার হিসেবে তুলে দেয় পর্ণা। তার স্বামী এই উপহার পেয়ে দারুণ খুশি হয়ে যায়। কিন্তু ফুলশয্যার রাতে স্ত্রীকেও যে উপহার দিতে হয় সেটা তার জানা নেই।

পরের দৃশ্যে দেখানো হয় ফুলশয্যার পরের দিন সকালে শাশুড়ি মা এক কাপ চা নিয়ে এসে দরজায় দাঁড়ান। মায়ের হাত থেকে চায়ের কাপ নিয়ে নায়ক জানায় ‘ওটা আমার জন্য’। শাশুড়ি মা এরপর নতুন বউকে বলেন মাথায় ঘোমটা টেনে নিচে নেমে আসার জন্য। স্বামী এবং শাশুড়ির থেকে এমন আচরণ পেয়ে নতুন বউয়ের মন খারাপ হয়ে যায়। ঠিক তখনই নায়কের ঠাকুমা নতুন বউকে একটা দামী উপদেশ দেন।

ঠাকুমা শাশুড়ি বলেন, “বিয়ের প্রথম বছর হল নিম ফুলের মধু। তেতোটুকু পার করলে তবেই না মিঠের হদিশ পাবি!’’ আসলে তিনি নতুন বউকে বোঝাতে চেয়েছিলেন শশুর বাড়ির সদস্যদের সঙ্গে তার সম্পর্কটা ‘নিম ফুলের মধু’র মত। এই সম্পর্কের স্বাদ তেতো মনে হলেও তা পুষ্টিকর। আসলে শাশুড়ি এবং বউমা উভয়ের দৃষ্টিভঙ্গি থেকেই কথাটি তাৎপর্যপূর্ণ।

বিয়ের পর নতুন বউ যেমন মনে করছে তার শাশুড়ি নিম ফুলের মত তেতো, তবে বাস্তবে তিনি ততটাও খারাপ মানুষ নন। আবার শাশুড়ি মায়ের কাছেও নতুন বউমা নিম ফুলের মত তেতো। তবে যত তাড়াতাড়ি তারা একে অপরকে আপন করে নিতে পারবেন ততই সম্পর্কটা হয়ে উঠবে নিম ফুলের মতই পুষ্টিকর।