দেবের নামে খুললো চায়ের দোকান, কী কী চা পাওয়া যাবে তাতে

প্রিয় তারকাকে ভালবেসে ভক্তরা অনেক কিছুই করেন। ছবি আঁকা থেকে শুরু করে, রক্ত দিয়ে চিঠি লেখা, তারকার বাড়ির সামনে দাঁড়িয়ে থাকা, বুকে প্রিয় তারকার নাম লেখা আবার কখনও প্রিয় অভিনেতাকে ঈশ্বরের জায়গায় বসিয়ে মন্দিরও তৈরি করেছেন ভক্তরা। এ দেশে এমন ঘটনা নতুন নয়। তবে এবার একটু অন্যধরণের একটা কাজ করলেন বাংলার সুপারস্টার দেবের এক ভক্ত। এবার আর ফ্যান ক্লাব বা মন্দির নয়, বরং কলকাতার বুকে সুপারস্টার দেবের নামে খুলে ফেললেন চায়ের দোকান। নাম দিয়েছেন, ‘দেব অ্য়ান্ড টি’ (Dev and Tea)।

সোশ্য়াল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে দেবের নামে তৈরি এই চায়ের দোকানের ছবি। যা দেখে নেটিজেনরা হইচই শুরু করে দিয়েছেন। ‘দেবদা’র এই ভক্ত কিন্তু পেশায় একজন চিত্রগ্রাহক। তিনি আজ যে পর্যায়ে এসে পৌঁছতে পেরেছেন তার পেছনে দেবের হাত রয়েছে বলেই দাবি করেছেন তিনি। তার নাম অর্ণব গুহ। যারা এই দোকানে আসবেন তারা চা তো পাবেনই, সঙ্গে শুনতে পাবেন দেবের বিভিন্ন সিনেমার গান। স্বভাবতই দেবভক্তদের জন্য এক অভিনব আকর্ষণ হয়ে উঠছে ‘দেব এন টি’ চায়ের দোকান।

এসভিএফ এবং দেব এন্টারটেইনমেন্ট ভেঞ্চার্সের সঙ্গে যুক্ত অর্ণব গুহ জানিয়েছেন তার ‘দেবদা’ যেমন সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়ান, একইভাবে তিনিও সময় সুযোগ পেলে সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়ান। পাশাপাশি তার নেশা হলো তার ঈশ্বর তুল্য ‘দেবদা’র ভাবমূর্তি সকলের সামনে উজ্জ্বল করে তুলে ধরা। আনন্দবাজার অনলাইনকে তিনি সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, ‘‘টলিউডে আমাকে যে ক’জন চেনেন তার পুরো কৃতিত্ব দেব অধিকারীর। মানুষ হিসেবে অতুলনীয়। কিন্তু কিছু ব্যক্তি সারাক্ষণ তাঁর সমালোচনা করছেন। মিথ্যে অপবাদ ছড়াচ্ছেন।’’ একজন প্রকৃত দেব সমর্থক হিসেবে সাংসদ তারকার এই অপমান তিনি মানতে নারাজ। তার জন্য তিনি এই প্রচেষ্টা চালিয়েছেন।

বুধবার রাতে অর্ণব তার ফেসবুকে দোকানের ছবি পোস্ট করেছেন। দেবের হরেক রকম পোস্টারে ছেয়ে গিয়েছে দোকানের অন্দরমহল। সেখানে বিভিন্ন স্বাদের চা পাওয়া যাবে। সঙ্গে ‘টা’ হিসেবে থাকবে দেবের বিভিন্ন ছবির গান। অর্থাৎ এন্টারটেইনমেন্ট থাকছে পুরোদস্তুর। অর্ণবের ইচ্ছে, ভবিষ্যতে এই দোকান দেব হাবে পরিণত করতে চান তিনি। সেখানে দেবের নতুন ছবির প্রচার থাকবে। সঙ্গে থাকবে তার পুরনো ছবির খুঁটিনাটি তথ্য, দেব অভিনীত ছবির স্থিরচিত্র, কণ্ঠস্বর এবং আরও অনেক কিছু।

উল্লেখ্য প্রিয় তারকার নামে দোকান অথবা রেস্টুরেন্ট বহু আছে। যাদবপুর ৮বি বা পাটুলির র ‘চা ও নচিকেতা’ ইতিমধ্যেই চা-খোরদের আড্ডার প্রিয় জায়গা হয়ে উঠেছে। অর্ণবের বিশ্বাস, ‘‘দেবদার আশীর্বাদ থাকলে এই দোকানের জনপ্রিয়তা সবাইকে ছাপিয়ে যাবে। কারণ, বাংলা ও বাঙালি দেব আর চা— এই দুইয়েরই দারুণ ভক্ত!’’ এখন থেকেই দোকানে ভিড় জমাতে শুরু করেছেন দেবের ভক্তরা। খোদ ‘ভগবান’ কবে আসবেন? অর্ণব জানালেন, দেব তার নামের এই দোকানের কথা জানেন। শীঘ্রই তিনিও আসবেন ‘দেব এন টি’তে।