নাক কেটে সোজা, ঠোঁট কেটে মোটা ; অধিক সুন্দরী হতে ছুরি কাঁচি চালিয়েয়েছেন যারা

কেউ নিখুঁত সুন্দর হয়ে জন্মান না, খুঁত সকলের মধ্যেই কমবেশি থাকে। কিন্তু গ্ল্যামার ওয়ার্ল্ডের মানুষরা অন স্ক্রিন নিজেদের আরো সুন্দর নিখুঁত করে  গড়ে তুলতে গিয়ে  প্লাস্টিক সার্জারির সাহায্য নেন। এভাবেই নায়িকারা তাদের ঠোঁটের আকৃতি থেকে শুরু করে স্তনের আকৃতি পর্যন্ত বদলে ফেলেন সার্জারির সাহায্যে।

বলিউড ইন্ডাস্ট্রির তারকাদের গ্ল্যামার ও তথাগত নিখুঁত সৌন্দর্যের পিছনে রয়েছে প্লাস্টিক সার্জারির অবদান। এই ছুরি-কাঁচির কেরামতি আজকের নয় বলিউডে বহুদিন ধরে চলে আসছে। একাধিক জনপ্রিয় অভিনেত্রীরা আরো সুন্দরী হওয়ার জন্য নিজের দেহে ছুরি-কাঁচি চালিয়েছেন একাধিকবার।

বলিউড থেকে হলিউডে সবাই প্লাস্টিক সার্জারির সাহায্যে নিজেদের খুঁতগুলোকে বদলে রাতারাতি নিখুঁত হয়ে উঠছেন। এদের মধ্যে কিছু তারকা সেকথা স্বীকার করেছেন কিছুজন তা স্বীকার করেননি। আসুন দেখে নিন সেই সকল বলিউড অভিনেত্রীদের তালিকা যারা প্লাস্টিক সার্জারি করিয়েছেন।

১. অনুষ্কা শর্মা : পিকে ছবিতে অনুষ্কার মোটা ঠোঁট রীতিমতো শিরোনাম তৈরি করেছিল খবরের কাগজে। তবে অনুষ্কা প্রকাশ্যে স্বীকার করে নিয়েছিলেন তিনি লিপ এনহান্স সার্জারি করিয়েছেন।

২. বনি কাপুর : বেফিকারে ছবিতে সকলের নজর কেড়ে নেন নিজের কসমেটিক রিমেক লুক দিয়ে। বানি তাঁর থুতনি, ঠোঁট এবং মুখের গঠনের সার্জারি করিয়ে উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন আনেন নিজের মুখে। যদিও তিনি এই কথা কোনদিনও স্বীকার করে নেননি।

৩. শ্রুতি হাসান : কমল হাসান কন্যা শ্রুতি হাসান সর্বদাই নিজের প্লাস্টিক সার্জারি নিয়ে মুখ খুলতে পেছপা হননি। এক সাক্ষাৎকারে তিনি নিজেই স্বীকার করে নেয়, এক শারীরিক অসুস্থতার কারণে তিনি নোস সার্জারি করিয়েছেন।

৪. শিল্পা শেঠি : শিপা শেঠি প্রথম অভিনেত্রীদের মধ্যে একজন যিনি নিজের প্লাস্টিক সার্জারি নিয়ে দর্শকদের সামনে ওপেন হয়েছিলেন। শিল্পা দুইবার নোস সার্জারি করিয়েছিলেন যা বলিউডে তাঁর ক্যারিয়ারকে সম্পূর্ণভাবে বদলে দেয়।

৫. ঐশ্বর্য রাই : প্রাক্তন বিশ্বসুন্দরী ঐশ্বর্য রায়কে এই তালিকায় দেখে অনেকেই অবাক হবেন। কিন্তু বিশ্বের অন্যতম সেরা সুন্দরী নিজের সৌন্দর্যকে বাড়ানোর জন্য ছুরি কাঁচির সাহায্য নিয়েছেন। শোনা যায় তিনি লিপ ফিলার্স, ফেসিয়াল ফিলার্স, নোস সার্জারি ও চিক ইমপ্লান্ট করিয়েছিলেন। যদিও সে কথা কোনদিন অস্বীকার করে নেননি অভিনেত্রী।

৬. নার্গিস ফখরি : রানবির কাপুরের বিপরীতে রকস্টার ছবিতে অভিনয় করে বলিউডে পা রাখেন তিনি। কিন্তু একসময়ের আমেরিকার টপ মডেল ট্রোলের সম্মুখীন হন নিজের মোটা ঠোঁট নিয়ে। বলিউডে আসার পর তিনি লিপ সার্জারি করেন।

৭. অদিতি রাও হায়দারি : বলিউডের এ লিস্ট তারকাদের মতন অতটা জনপ্রিয় না হলেও একথা মানতেই হবে অদিতির যথেষ্টই সুন্দরী দেখতে। কিন্তু এই তালিকায় তাঁর নামও রয়েছে কেননা তিনি নিজের নোস সার্জারি করিয়াছিলেন।

৮. ক্যাটরিনা কাইফ : বলিউডে কেরিয়ার শুরুর দিকের ক্যাট এবং এখনকার ক্যাটের মধ্যে রয়েছে উল্লেখযোগ্য তফাৎ। তিনি একাধিক কসমেটিক সার্জারি করিয়েছিলেন।

 ৯. প্রীতি জিনটা : ২০০০ দশকের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রী হল প্রীতি। যদিও নিজে কখনও স্বীকার করেননি কিন্তু শোনা গিয়েছিল তিনি বোটক্স সার্জারি করেছেন এবং গাল ফিলারগুলি করেছেন।

১০. প্রিয়াঙ্কা চোপড়া : বর্তমানে বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রীদের মধ্যে একজন তিনি। তবে এই প্রাক্তন বিশ্ব সুন্দরীর কাছে কসমেটিক সার্জারি কোনো অপরিচিত নয়। তিনি ইঞ্জেকশন, ঠোঁট ফিলার এবং অন্যান্য ট্রিটমেন্ট করিয়েছিলেন।

১১. কারিশমা কাপুর : এই তালিকার সর্বশেষে রয়েছেন কারিনা কাপুরের দিদি কারিশমা কাপুর। তিনি নোস সার্জারি এবং লিপ সার্জারি করান নিজের সৌন্দর্যকে আরো বাড়ানোর জন্য।