যৌবনের আবেদনে ঘুম উড়িয়েছিলেন বলিউডের, অভিনয় ছেড়ে কিভাবে দিন কাটাচ্ছেন আয়েশা টাকিয়ার

চাবুক ফিগারে ঘুম উড়িয়েছিলেন বলিউডের, কোথায় হারিয়ে গেলেন আয়েশা টাকিয়া

Where is Ayesha Takia these Days

বলিউড ‌‌(Bollywood) সুন্দরী আয়েশা টাকিয়া (Ayesha Takia) একসময় ছিলেন ৯০ এর গ্ল্যামার কুইন। আয়েশাকে শেষবার বড়পর্দায় দেখা গিয়েছিল ২০১১ সালে। তারপর থেকে কেটে গিয়েছে প্রায় ১০ টা বছর। এতগুলো বছর ইন্ডাস্ট্রি থেকে দূরে কিভাবে দিন কাটাচ্ছেন আয়েশা? কেনই বা বলিউড থেকে দূরে সরে রয়েছেন তিনি? সমস্ত প্রশ্নের উত্তর রইল এই প্রতিবেদনে। তার আগে জেনে নিন আয়েশার সম্পর্কে কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য। জানেন কি এই অভিনেত্রী মাত্র ১৩ বছর বয়সে কাজ করতে শুরু করেছিলেন?

ইন্ডাস্ট্রিতে আয়েশার পথচলা শুরু হয়েছিল মডেলিং দিয়ে। তখন তার বয়স ছিল মাত্র ১৩। তিনি জনপ্রিয়ও হয়েছিলেন খুব কম বয়সে। গায়িকা ফাল্গুনী পাঠকের ‘মেরি চুনর উড় উড় যায়ে’ গানের ভিডিওতে আয়েশা ছিলেন নায়িকা। এই মিউজিক ভিডিও তাকে দারুণ জনপ্রিয়তা এনে দেয়। এরপরই তার হাতে আসতে থাকে বলিউডের একের পর এক সুযোগ।

আয়েশা ‘টারজানঃ দ্য ওয়ান্ডার কার’, ‘সোচা না থা’, ‘ডোর’, ‘সলাম-এ-ইশক’, ‘ওয়ান্টেড’এর মত সুপারহিট মুভি রয়েছে তার ঝুলিতে। অভিনয় জীবনে শাহিদ কাপুর থেকে শুরু করে সালমান খানদের মত সুপারস্টারদের বিপরীতে তিনি সুযোগ পেয়েছিলেন। বিশেষত সালমানের ‘ওয়ান্টেড’ ছবির পর বলিউডের এক নম্বর নায়িকা হয়ে ওঠার সুযোগ এসে গিয়েছিল তার হাতে।

কিন্তু আচমকাই ইন্ডাস্ট্রি থেকে নিজেকে সরিয়ে নিলেন আয়েশা। এর কারণ ছিল চেহারা নিয়ে করা তার কিছু এক্সপেরিমেন্ট, যা তার চেহারা সম্পূর্ণ বদলে দেয়। আয়েশার সেই মিষ্টি হাসি, সারল্য মাখা মুখ উধাও হয়ে যায়। তার নতুন চেহারা মেনে নিতে পারেননি ভক্তরা। যে কারণে অনেক ট্রোল্ড হতে হয়েছিল তাকে। তাই কেরিয়ার মধ্যগগনে থাকা সত্ত্বেও শেষমেষ তাকে অভিনয় ছেড়েই দিতে হয়।

 

২০০৯ সালে ফারহান আজমীকে বিয়ে করে নেন আয়েশা। ফারহান সমাজবাদী পার্টির নেতা আবু আজমির ছেলে। এখন স্বামী, পরিবার এবং ছেলে মিকেল আজমিকে নিয়ে আয়েশা চুটিয়ে সংসার করছেন। তবে বলিউড থেকে দূরে থাকলেও ভক্তদের কাছাকাছিই রয়েছেন আয়েশা। সোশ্যাল মিডিয়াতে তিনি দারুণ একটিভ থাকেন।

 

আয়েশার ইনস্টাগ্রাম একাউন্টে তাকে ফলো করছেন প্রায় ১.২ মিলিয়ন মানুষ। সেখানে মাঝেমধ্যেই আয়েশাকে বিভিন্ন ছবি শেয়ার করতে দেখা যায়। স্বামী, সন্তান ও বন্ধুদের সঙ্গে কাটানো মুহূর্তগুলিকে অনুরাগীদের সঙ্গে ভাগ করে নেন অভিনেত্রী। তবে এখন তার চেহারা দেখলে তাকে চিনে নিতে বেশ কষ্টই হয় ভক্তদের। আগের চেহারার সঙ্গে তার এই চেহারার খুব কম মিল রয়েছে।