পেটের দায়ে ভিক্ষা, চুরিও করেছেন এই তারকারা, তবুও ফিরে তাকায়নি বলিউড

ভিক্ষা থেকে চুরি, বাদ যায়নি কিছুই, এই তারকাদের পরিণতি হয়েছিল খুবই করুণ

এই বিনোদনের দুনিয়া বড়ই অদ্ভুত। এখানে আজ যে রাজা, কাল সে ফকির। ছবি দুনিয়াতে নাম, যশ, অর্থ, প্রতিপত্তি সবই আসে, তবে তা ধরে রাখতে না পারলে জীবনে চরম দুর্বিসহ অবস্থার সৃষ্টি হয়। বলিউডে (Bollywood) এরকম অনেক তারকা রয়েছেন যারা এক সময় ছিলেন সুপারস্টার, কিন্তু অর্থ ও কাজের অভাবে এই সুপারস্টাররাই পরবর্তী দিনে কেউ লোকের বাড়িতে কাজ করেছেন, কেউ আবার ভিক্ষা করেছেন। আজ এই প্রতিবেদনে রইল তেমনই পাঁচ তারকার নাম।

সতীশ কৌল (Satish Kaul) : পাঞ্জাবি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি জনপ্রিয় অভিনেতা ছিলেন তিনি। তাকে বলা হতো পাঞ্জাবি বিনোদনের জগতের অমিতাভ বচ্চন। তিনি দেব আনন্দ থেকে শুরু করে শাহরুখ খানের মত তারকাদের সঙ্গে কাজ করেছেন। ‘রাম লখন’, ‘ইয়ারানা’, ’জঞ্জির’ তার অভিনীত ছবি ছিল। তবে একটা সময় পর সর্বস্ব হারিয়েছিলেন তিনি। তার স্ত্রী তাকে ছেড়ে চলে যান। তার ঠাঁই হয় বৃদ্ধাশ্রম। অর্থ কষ্টে তিনি ওষুধ কেনার সামর্থ্য হারিয়েছিলেন। ২০২১ সালে মৃত্যু হয় এই অভিনেতার।

গীতাঞ্জলি নাগপাল (Geetanjali Nagpal) : ৯০ এর দশকের সেরা মডেল ছিলেন গীতাঞ্জলি। ২০০৭ সালে তাকেই একবার দিল্লির রাস্তাতে ভিক্ষা করতে দেখা যায়। চরম মানসিক অবসাদে তিনি ভুগছিলেন, ডাক্তারি পরিভাষায় যাকে ফিয়ার সাইকোসিস বলা হয়। শোনা যায় পরিবারের অমতে তিনি এক জার্মান ব্যক্তিকে বিয়ে করেন। সেই বিয়ে ভেঙে গেলে এক ব্রিটিশের সঙ্গে সম্পর্কে জড়ান। তারা দিল্লির একটি গেস্ট হাউসে থাকতেন। পরবর্তী দিনে গীতাঞ্জলিকে লোকের বাড়িতে কাজও করতে হয়েছিল।

ভিমি (Vimi) : বি আর চোপড়ার ‘হামরাজ’ ছবিতে অভিনয় করেছিলেন এই সুন্দরী। তিনি ছিলেন বলিউডের অন্যতম সেরা সুন্দরী। তবে ব্যক্তিগত জীবনে চরম অসুখী ছিলেন তিনি। তার স্বামী তার উপরে অত্যাচার চালাতেন। সেই সময় সিনেমার কাজ মাঝপথেই বন্ধ করে দিতে হয়েছিল অভিনেত্রীকে। তিনি একটি টেক্সটাইলের ব্যবসা খোলেন। সেই ব্যবসাও বন্ধ হয়ে যায়। ১৯৭৭ সালে লিভারের অসুখে ভুগে তার মৃত্যু হয়। শোনা যায় মৃত্যুর পরে তার দেহ সৎকারের জন্যও নাকি কেউ আসেননি।

Bollywood Singer and Actress Sulakshana Pandit's Tragic Story Will Melt Your Heart

সুলক্ষণা পন্ডিত (Sulakshana Pandit) : অভিনেত্রী বিজয়েতা পন্ডিতের বোন সুলক্ষণাও ছিলেন একজন অভিনেত্রী। তিনি সঞ্জীব কুমারের প্রেমে পড়েন। সঞ্জীব কুমার তার প্রস্তাব ফিরিয়ে দিলে সারা জীবন অবিবাহিতই থেকে যান সুলক্ষণা। এতে ডিপ্রেশনে ভুগতে শুরু করেন অভিনেত্রী। কয়েক বছর আগে তিনি বাথরুমে পড়ে গিয়ে হাড়ে চোট পান। এরপর আর নিজের বাড়ি থেকে বেরোননি তিনি। আপাতত বোন বিজয়েতার কাছেই তিনি থাকেন।

মিতালি শর্মা (Mitali Sharma) : ভোজপুরি ইন্ডাস্ট্রির নামী অভিনেত্রী মিতালীকেও একসময় মুম্বাইয়ের রাস্তায় ভিক্ষে চাইতে দেখা যায়। না, এটা কোনও সিনেমার দৃশ্য ছিল না। চরম অর্থাভাবে এই পথই বেছে নিতে হয়েছিল তাকে। সেই সঙ্গে চুরির দায়ে একসময় ধরা পড়ে গিয়েছিলেন তিনি। এই ভোজপুরি নায়িকা পরবর্তী দিনে কাজ না পেয়ে ভিক্ষে এবং চুরি করতে বাধ্য হয়েছিলেন বলে শোনা যায়।