‘নিজের বাড়িতে নিজের পয়সায় খেয়েছি, বেশ করেছি’, সামাজিক বিতর্কে মুখ খুললেন শ্রীলেখা

Riya Chatterjee

Published on:

ঠোঁটকাটা স্বভাবের জন্য টলিউডের (Tollywood) সবাই সমঝে চলে তাকে। ইন্ডাস্ট্রিতে যখনই কোনও কিছু অন্যায় হচ্ছে বলে তার মনে হয়, তখনই তিনি তার প্রতিবাদ করেন। জীবনের প্রতিটা মুহূর্ত নিজের শর্তেই জীবনে বাঁচেন টলিউড অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র (Sreelekha Mitra)। বডি শেমিং থেকে শুরু করে এজ শেমিং, প্রত্যেকটি বিতর্কিত বিষয়ে শ্রীলেখা থোড়াই কেয়ার।

সদ্য বয়সের নিরিখে ৫০ পেরিয়েছেন শ্রীলেখা। ৫০ তম জন্মদিনে বন্ধুবান্ধবদের নিয়ে ১৮ তরুণীর মত আনন্দে ভাসলেন অভিনেত্রী। নাচ-গানের পাশাপাশি ছুটলো শ্যাম্পেনের ফোয়ারা। জীবনের সবথেকে কাছের মানুষগুলোকে নিয়ে জন্মদিনের সন্ধ্যা জমিয়ে পার্টি করলেন শ্রীলেখা। তবে জন্মদিনে অভিনেত্রীকে পান করতে দেখে সোশ্যাল মিডিয়াতে একদল নেটিজেন তাকে একহাত নিলেন।

জন্মদিন সেলিব্রেশনে পার্টি টাইমের বেশ ছবি এবং ভিডিও এদিন শেয়ার করে নিয়েছিলেন শ্রীলেখা। সেখানে কেক কাটা, খাওয়া-দাওয়া থেকে শুরু পানীয় সব রকমের ব্যবস্থাই ছিল। লাইভ ভিডিওতে বন্ধুদের সঙ্গে গোল হয়ে বসে শটস নিতেও দেখা গেল তাকে। এটা দেখে অনেকেই কটাক্ষ করতে শুরু করেছেন শ্রীলেখাকে।

তবে নিন্দুকদের উপযুক্ত জবাব দিয়ে মুখ বন্ধ করে দিলেন অভিনেত্রী। ফেসবুকে তিনি লিখেছেন, “আমার টাকিলা শটস খাওয়ার ভিডিও তৃণমূলের ছানাপোনারা ভাইরাল করেছে। বেচারাদের চুরির পয়সা, সস্তা বাংলা খেতে হয় বলে খুব কষ্ট পেয়েছে আমার দামি মদ খাওয়া দেখে। আহারে!” এরপর নিন্দুকদের উদ্দেশ্যে শ্রীলেখা লিখেছেন, ‘‘নিজের বাড়িতে নিজের পয়সায় নিজের জন্মদিনে খেয়েছি, বেশ করেছি।”

জন্মদিনের পার্টি থেকেই ফেসবুকে লাইভে এসে শ্রীলেখা বলেন, “হ্যাঁ আমার বয়স ৫০। ১৯৭২-এ জন্ম আমার। আমি ৫০-এ পা দিলাম। এজ শেমিং করার থাকলে করতে পারো কিছু যায় আসে না।” শ্রীলেখা আসলে বয়স লুকিয়ে রাখার পক্ষপাতি নন। যেটা সত্যি সেই আসল সংখ্যাটাই তিনি উল্লেখ করতে দ্বিধা করেন না।

একইসঙ্গে এই ভিডিওতে তিনি বলেন, “আমার মেয়েকে যতগুলো ছেলে দেখবে, তার থেকে একটা হলেও বেশি ছেলে আমায় দেখবে।” তিনি আরও বলেন, আগে বলা হত মেয়েরা কুড়িতেই বুড়ি। কিন্তু বয়সের বাঁধা অনেক দূরে সরিয়ে দিয়েছেন মেয়েরা। বয়স তো শুধু একটা সংখ্যা মাত্র, এটা শুধু মনেই রয়ে গিয়েছে বলে উল্লেখ করেছেন শ্রীলেখা।