ডোনাকে নিয়ে রাজস্থান ঘুরতে গিয়ে ভুতের খপ্পরে সৌরভ! হাড় হিম অভিজ্ঞতা শোনালেন দাদা

Riya Chatterjee

Published on:

ভূত আছে কি নেই? এই নিয়ে আস্তিক এবং নাস্তিকদের তরজা চলে সর্বক্ষণ। কেউ ভূত না দেখেই তেনাদের উপস্থিতিতে বিশ্বাস রাখেন! কেউ আবার রীতিমতো নিজেদের আশেপাশে অনুভব করেছেন তেনাদের উপস্থিতি। সৌরভ গাঙ্গুলী (Sourav Ganguly) এবং টলিউড অভিনেতা সোহম চক্রবর্তী (Soham Chakraborty) তাদের মধ্যেই পড়েন। সৌরভ এবং সোহম, দুজনেই ভূতে বিশ্বাস রাখেন এবং অশরীরীদের উপস্থিতি টেরও পেয়েছেন।

এই বিষয়ে হাড় হিম করা অভিজ্ঞতার কাহিনী দাদাগীরির (Dadagiri) মঞ্চে শেয়ার করে নিয়েছেন সৌরভ এবং সোহম। সৌরভের কথায়, একবার রাজস্থানে বিজ্ঞাপনের এক শুটিংয়ের জন্য গিয়েছিলেন তিনি। তখন সদ্য বিয়ে হয়েছে তার। স্ত্রী ডোনাও (Dona Ganguly) ছিলেন সঙ্গে। সেখানে গিয়ে টানা ২ রাত সৌরভ চোখের পাতা এক করতে পারেননি! রাজস্থানের যোধপুরের সেই হোটেলে অশরীরীদের উপস্থিতি বেশ টের পাচ্ছিলেন সৌরভ।

Dadagiri Unlimited Season 9 Audition

সৌরভ জানিয়েছেন, তারা যে হোটেলে উঠেছিলেন সেটি ছিল আদতে একটি কেল্লা। ওখানকার একটি বিশাল ঘরে থাকতে দেওয়া হয়েছিল তাদের। রাতের ডোনা ঘুমোলেও সৌরভ কিছুতেই ঘুমোতে পারতেন না। প্রথম রাতটা তারা সেখানে টিভি দেখেই কাটিয়ে দিয়েছিলেন। শুটিংয়ের জন্য ভোর ৪ টেয় উঠে বেরিয়ে যেতেন সৌরভ। ডোনা সব গুছিয়ে দিতেন। সৌরভ বেরিয়ে যাওয়ার পর জেগেই থাকতেন ডোনা। ভোরের আলো ফুটলে সব দরজা জানলা খুলে দিয়ে তবে তিনি আবার ঘুমোতেন।

দাদাগিরির এই সেলিব্রিটি স্পেশাল এপিসোডে উপস্থিত ছিলেন কুমার শানু, সোহম চক্রবর্তী, হৈমন্তী শুক্লারা। হৈমন্তী শুক্লা জানিয়েছেন ভূতে তার ভয় নেই। তবে বাকিরা সকলেই সৌরভকে সমর্থন করেছেন। এই মঞ্চে দাদার গল্প শুনে সোহমও তার অভিজ্ঞতা শেয়ার করে নিয়েছেন। তিনি পুরুলিয়ার অযোধ্যা পাহাড়ের একটি সরকারি বাংলোতে গিয়ে তেনাদের উপস্থিতি টের পেয়েছিলেন!

সোহমের কথায়, বাংলোর মধ্যে ঢুকতেই তারা গা-হাত-পা ভারী হয়ে গিয়েছিল। বাথরুমে মুখ ধুতে গিয়ে নিজের পাশে কারও উপস্থিতি টের পেয়েছিলেন তিনি। এরপর আর একা থাকার সাহস হয়নি তার। তার সাথে যে ছেলেটি এসেছিল তাকে নিজের সঙ্গে রেখে দিয়েছিলেন রাতে। সেও জানায়, বাথরুম থেকে একটা মহিলার ছায়া বের হতে দেখেছিল সে!