ইন্ডাস্ট্রিটা বেশ্যাখানা হয়ে যাচ্ছে, দীপার শাশুড়ি ‘লাবণ্য’কে পাল্টা জবাব দিলেন তারকারা

Riya Chatterjee

Published on:

এই প্রজন্ম বড্ড বেশি অধৈর্য, অল্প সময়ের মধ্যেই তাদের চাই সাফল্য। অনেকেই নিজেদের উপর বিশ্বাস হারিয়ে ভুল পথে পা বাড়িয়ে ফেলছেন। চটজলদি সফলতা পাওয়ার লোভে খুঁজে নিচ্ছেন বিকল্প উপায়, সুগার ড্যাডি! টলিউড (Tollywood) ইন্ডাস্ট্রিতে এই কথাটি আজ বহুল প্রচলিত। অনেক উঠতি নায়িকাই এইভাবে সফলতার সিঁড়ি অতিক্রম করতে চাইছেন, সুগার ড্যাডিদের হাত ধরে।

ইন্ডাস্ট্রির এই হাল হকিকত সম্পর্কে জেনে বুঝে বড্ড বেশি ভয় জাঁকিয়ে ধরেছে ‘অনুরাগের ছোঁয়া’র (Anurager Chhowa) দীপার শাশুড়ি লাবণ্য সেনগুপ্তকে! অভিনেত্রী রূপাঞ্জনা মিত্র (Rupanjana Mitra) সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়াতে এই সম্পর্কে নিজের বক্তব্য তুলে ধরেছিলেন। সেখানে তিনি যে বক্তব্য তুলে ধরেছেন তার পরিপ্রেক্ষিতে মুখ খুলেছেন ইন্ডাস্ট্রির একটা অংশও। তাদের মধ্যে রয়েছেন উষসী রায়, গৌরব রায়চৌধুরীরা।

রূপাঞ্জনা তার ফেসবুকের পাতায় লিখেছিলেন, “একটা কথা বলতে চাই সেই সব মেয়েদেরকে যারা কাজ পাওয়ার জন্য ইন্ডাস্ট্রিতে সুগার ড্যাডি ধরছেন। মেয়েগুলোর বয়স ১৬ থেকে ২০ এর মধ্যেই। আপনারা এর মধ্যেই বুঝে যাচ্ছেন ইন্ডাস্ট্রি কি নিয়মে চলে? কেউ কেউ তো আবার বার্থডে পার্টিও থ্রো করাচ্ছেন সেসব উটকো সুগার ড্যাডিদের দিয়ে। তাতে আমাদের ইন্ডাস্ট্রি ইনসিকিওরড। কিছু শিল্পীরা পরিচালকরা যাচ্ছেন জাস্ট লাইক দ্যাট।”

রূপাঞ্জনা প্রশ্ন করেছেন, “এই মেয়েগুলোও কি আগামী দিনে অর্পিতাদের মত হবে‌। চিন্তা হচ্ছে খুব। এই মেয়েগুলোকে গাইড করার মত অভিভাবক নেই? তাদের নিজেদের অভিভাবকরা কি প্রশ্রয় দেন?” যারা এসব থেকে নিজেদের দূরে সরিয়ে রেখে নিজেদের যোগ্যতায় মাথা তুলে দাঁড়াতে চান তাদের কী হবে? প্রশ্ন তুলেছেন অভিনেত্রী।

এরপর সংবাদ মাধ্যমের কাছে এই বিষয় নিয়ে কথা বলতে গিয়ে একরাশ বিরক্তি উগরে দিয়ে রূপাঞ্জনা প্রশ্ন রেখেছেন, “ইন্ডাস্ট্রিটা কি বেশ্যাখানা তৈরি করে ফেলবে এরা?” তরুণ প্রজন্মের অভিনেতা এবং অভিনেত্রীদের মধ্যে অনেকেই রূপাঞ্জনার এই বক্তব্য প্রসঙ্গে সংবাদ মাধ্যমের কাছে মুখ খুলেছেন। মুখ খুলেছেন ‘বকুল কথা’, ‘কাদম্বিনী’ ধারাবাহিকখ্যাত অভিনেত্রী অভিনেত্রী উষসী রায়।

Ushasi Ray

উষসী অবশ্য বলেছেন তার সাফল্য তার নিজের পরিশ্রমে অর্জিত। ‘সুগার ড্যাডি’ সংস্কৃতি সম্পর্কে তার ধারণা কম। তিনি নিজের আশেপাশে কাউকে কখনও এমন দেখেননি। তবে মানুষের স্বভাবই হল যে কোনও বিষয় নিয়ে কথা বলা, রূপাঞ্জনার বক্তব্য প্রসঙ্গে এমনই মত তার। অন্যদিকে অভিনেতা গৌরব রায়চৌধুরী অবশ্য বিষয়টিকে একান্তই ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত বলেছেন। এই বিষয়ে তিনি নাক গলাতে চাননি। তবে তিনি বিশ্বাস করেন যে সৎ পথে থাকলে ভাল হবে, অসৎ পথে গেলে তা ঠিক প্রকাশ্যে আসবে। তাই ভালোর দিকেই সবসময় মনোযোগ রাখা উচিত বলে মনে করেন গৌরব।