সিরিয়ালে ভিখিরি হলেও বাস্তবে বেজায় বড়লোক, চেক বই হাতে বাজারে যান খড়ির বাবা

Riya Chatterjee

Published on:

প্রিয় তারকাদের ব্যক্তিগত জীবন সম্পর্কে জানার আগ্রহ থাকে সকলেরই। ব্যক্তিগত জীবনে তারাও নানা মজার মজার ঘটনা ঘটিয়ে থাকেন। বিভিন্ন টকশো-তে এসে তারা মাঝে মধ্যেই সেসব শেয়ার করে নেন দর্শকদের উদ্দেশ্যে। তেমনই এক তারকা তার ব্যক্তিগত জীবনের অদ্ভুত কীর্তিকলাপ শুনিয়েছিলেন দাদাগিরিতে (Dadagiri)।

বাংলা টেলিভিশনের জনপ্রিয় অভিনেতা রতন সরখেল (Ratan Sarkhel) একবার জি বাংলার দাদাগিরি রিয়েলিটি শোতে এসে উপস্থিত হয়েছিলেন। এই মুহূর্তে গাঁট ছড়া ধারাবাহিকে অভিনয় করতে দেখা যাচ্ছে তাকে। খড়ির বাবার ভূমিকায় অভিনয় করছেন তিনি। বাংলা ধারাবাহিকে সাধারণত তাকে নায়ক-নায়িকার বাবার ভূমিকাতেই অভিনয় করতে দেখা যায় ইদানিং।

দাদাগিরিতে এসে তিনি তার এক অদ্ভুত কীর্তির কথা জানিয়েছিলেন সৌরভ গাঙ্গুলিকে। তিনি বলেন তিনি নাকি বাজারে যান চেক বই হাতে নিয়ে! বাজারে মাছ কিনতে গেলেও চেক বই দিয়ে মাছ নেন। তার কথা শুনে উপস্থিত দর্শকরা সকলেই হেসে ফেলেন।

রতন সরকার একান্নবর্তী পরিবারে বেড়ে উঠেছেন। তার বাড়িতে ৮ ভাই ৫ বোন সকলেই একসঙ্গে থাকেন। সকলে একই ছাদের তলায় থাকেন। তাদের রান্নাবান্নাও হয় একসঙ্গে। তাই বাজারে গেলে একসঙ্গে অনেক বাজার করতে হয়।

অভিনেতা জানিয়েছেন দুবেলা তার বাড়িতে প্রায় ৫০ জনের রান্না হয়। কখন কোন দাদা বা কোন ভাই বাজারে যাচ্ছেন তার হিসেব থাকে না। ব্যক্তিগতভাবে মাছ এবং আম কিনতে খুব ভালোবাসেন রতন সরখেল। যদিও তাকে জোর করে বাজারে পাঠাতে হয়। তিনি বাজারে গেলে মাঝে মধ্যে ছয় হাজার টাকার ইলিশ মাছই কিনে ফেলেন!

বাজার করতে গিয়ে অনেক সময় তার কাছে পর্যাপ্ত টাকা থাকে না। তখন যিনি মাছ বিক্রি করছেন তিনি তাকে বিশ্বাস করে জিনিস দিয়ে দেন। তার বদলে অভিনেতা তাকে চেক লিখে দেন। এভাবেই চেকের বিনিময়ে বাজার করতে অভ্যস্ত হয়ে পড়েছেন তিনি।