‘ফিল্ম লাইনের মেয়েরা গায়েপড়া মেয়েছেলে’, খরাজের কথা শুনে হাঁ রচনা

‘ফিল্ম লাইনের মেয়েরা গায়েপড়া মেয়েছেলে’! খরাজকে সতর্ক করেছিলেন রঞ্জিত মল্লিক

জি বাংলার (Zee Bangla) ‘দিদি নাম্বার ওয়ান’ (Didi Number One) রিয়েলিটি শো একনাগাড়ে ১০ বছর ধরে জনপ্রিয়তার শিখরে রয়েছে। রচনা ব্যানার্জীর সঞ্চালনায় নতুন দিগন্ত ছুঁয়েছে ‘দিদি নাম্বার ওয়ান’। প্রত্যেক‌ সিজনের শেষে আসে নতুন সিজন। দেখতে দেখতে নবম সিজনে পৌঁছে গিয়েছে ‘দিদি নাম্বার ওয়ান’। তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে পুরনো সিজনের বিভিন্ন ভিডিও ক্লিপিং ঘুরিয়ে ফিরিয়ে আনেন নেটিজেনরা। সম্প্রতি এমনই একটি ভিডিও ফের ভাইরাল হল।

‘দিদি নাম্বার ওয়ান’ এর সপ্তম সিজনে সেলিব্রিটি স্পেশাল এপিসোড থেকে কিছু ভিডিও ক্লিপিং নেটিজেনদের নজরে এসেছে। এই পর্বে দিদি নাম্বার ওয়ানের মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন খরাজ মুখোপাধ্যায় (Kharaj Mukherjee)। প্রতিযোগী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তনুশ্রী চট্টোপাধ্যায়, পূজারিণী ঘোষ, উজ্জয়িনী মুখোপাধ্যায় এবং মমতা শংকররা। খেলার মাঝে পুরনো দিনের স্মৃতিচারণ করলেন খরাজ।

খরাজ বলেন, একসময় তিনি সেটে কিছু ডান্সার মেয়েদের সঙ্গে গল্প করছিলেন। এইসময় রঞ্জিত মল্লিক তাকে ডেকে নেন। খরাজ রঞ্জিত মল্লিকের নকল করে তাকে বলা কথাগুলিও তুলে ধরলেন। খরাজের কথায়, ‘আমি গেছি। রঞ্জিতদা বলছে, কোথায় কোথায় ঘুরছেন ভাই। আমি বলছি, না এই তো এইখানে। তখন আমায় বলছে, ফিল্ম লাইনের মেয়েরা সব গায়েপড়া মেয়েছেলে। হাতছানি দিয়ে ডাকবে সাড়া দেবেন না। কাজটি করবেন, হাতটি ধোবেন, পয়সাটি নেবেন। পাতাল রেল ধরে বাড়ি।’

খরাজের কথা শুনে সেটে উপস্থিত সকলেই হেসে কুটোপাটি হলেন। তবে শুধু রঞ্জিত মল্লিক নয়, খরাজ একে একে পরাণ বন্দ্যোপাধ্যায়, ছবি বিশ্বাস, রবি ঘোষদের নকল করলেন। মঞ্চে উপস্থিত সেলিব্রিটি প্রতিযোগীদের খরাজের মিমিক দেখে আন্দাজ করতে হয়েছে তিনি কাকে নকল করে দেখাচ্ছেন। সকলে সঠিক উত্তরও দিয়েছেন।

খরাজ মুখোপাধ্যায় অভিনয়ে আসার আগে থিয়েটারে চুটিয়ে কাজ করতেন। বর্তমানে বাংলা সিনেমার জনপ্রিয় কমেডিয়ান অভিনেতা তিনি। তবে শুধু অভিনয় নয়, তিনি একাধারে গীতিকার, সুরকার এবং গায়কও বটে। তার ৩২ বছরের ফিল্মি কেরিয়ারের শুরুটা হয়েছিল ’হুলুস্থুল’ সিনেমার হাত ধরে। এরপর একে একে ‘পাতালঘর’, ‘বাই বাই ব্যাংকক’, ‘কাহিনি’, ‘নেমসেক’, ‘অ্যাক্সিডেন্ট’, ‘মুক্তোধারা’, ‘স্পেশাল ২৬’, ‘জাতিস্মর’ সহ অসংখ্য চলচ্চিত্রে অভিনয় করে দর্শকদের ভালবাসা পেয়েছেন তিনি।