কেন আজীবন বিয়ে করেননি সঞ্জীব কুমার, কারণ শুনে হাসবেন আপনিও

অর্থ, যশ- খ্যাতি সবই ছিল। তাসত্বেও কোনও দিন বিয়ে করেননি সঞ্জীব কুমার। একাধিক নায়িকার সঙ্গে প্রেমে পড়লেও ব্যক্তিগত জীবনে তিনি ছিলেন একা। কেন বিয়ে করেননি সঞ্জীব কুমার? কারণ শুনলে চমকে যাবেন আপনি!

Here is Why Sanjeev Kumar Never Got Married

৭০-৮০ এর দশকে বলিউডের (Bollywood) এই হ্যান্ডসাম অভিনেতা সদর্পে রাজত্ব করতেন পর্দাজুড়ে। নাম-যশ, অর্থ খ্যাতি প্রতিপত্তি, তার কিছু কম ছিলনা। তবুও আজীবন একাই রয়ে গিয়েছিলেন অভিনেতা সঞ্জীব কুমার (Sanjeev Kumar)। ‘শোলে’ ছবির ‘ঠাকুর’ আজীবন অবিবাহিত রয়েছেন। তাই বলে এই নয় যে তিনি নিজেকে নারীসঙ্গ থেকে দূরে রেখেছিলেন। তৎকালীন বলিউডের তাবড় তাবড় সুন্দরীরা তার প্রেমে পড়েছিলেন। তবে তাদের কারোর সঙ্গে সঞ্জীব কুমারের সম্পর্কটা বিয়ের মন্ডপ পর্যন্ত পৌঁছায়নি।

কেন আজীবন বিয়ে করেননি সঞ্জীব কুমার, কারণ শুনে হাসবেন আপনিও

সঞ্জীব কুমারের আসল নাম ছিল হরিহর জেঠালাল জরিওয়ালা। বলিউডে সকলে তাকে ভালবেসে ডাকতেন ‘হরিভাই’ নামে। একসময় বলিউডের ড্রিম গার্ল হেমা মালিনী এবং সুলক্ষণা পণ্ডিতের সঙ্গেও সঞ্জীব কুমারের নাম জড়িয়েছিল। পরবর্তী দিনে ধর্মেন্দ্রকে বিয়ে করেন হেমা। তবে সুলাক্ষণা অবশ্য আজীবন অবিবাহিতই রয়ে গিয়েছিলেন। বলিউডের একাধিক নায়িকার সঙ্গে প্রায়শই সঞ্জীব কুমারের প্রেমের গুঞ্জন শোনা যেত। বেশিরভাগ সময়টাতেই নারী পরিবেষ্টিত থাকতেন তিনি। বলিউডের এই হ্যান্ডসাম অভিনেতার মন জয় করার জন্য মহিলারাও কিছু কম পরিশ্রম করতেন না।

কেন আজীবন বিয়ে করেননি সঞ্জীব কুমার?

অভিনেতার পরিচিতা বর্ষিয়ান অভিনেত্রী অঞ্জু মহেন্দ্রু (Anju Mahendroo) একবার একটি সাক্ষাৎকারে সঞ্জীব কুমার সম্পর্কে সবার অজানা কিছু তথ্য তুলে ধরেন। অঞ্জু জানিয়েছেন, সকলের প্রিয় ‘হরি ভাই’ সর্বদাই নারী পরিবেষ্টিত হয়ে থাকতেন। তার কথায়, “বহু মহিলা নানারকম মুখরোচক খাবারের পদ নিজের হাতে বানিয়ে সঞ্জীবকে খাওয়াত কিংবা টিফিন বাক্স করে পাঠিয়ে দিত। স্বাভাবিকভাবেই তাঁরা উঠে আসত বলি-তারকার গুড বুকে। কারণ খেতে বড্ড ভালোবাসতেন উনি। আবার কেউ কেউ সত্যিকারেরই প্রেমে পড়েছিলেন সঞ্জীবের”। তাহলে তার আজীবন অবিবাহিত থাকার রহস্য কী?

Anju Mahendroo

কেন চিরজীবন অবিবাহিত রইলেন সঞ্জীব কুমার?

অঞ্জু জানিয়েছেন, “প্রতিবারই যখনই কোনও নারীর সঙ্গে সম্পর্কে জড়াতেন হরি ভাইয়ের বন্ধুরা তাঁকে বোঝাত যে ওই মেয়ে তাঁর অর্থ ও সম্পত্তির লোভে এসেছে। একফোঁটাও ভালোবাসে না সঞ্জীব কুমারকে। এবং অবাক ব্যাপার সেই চিন্তাই ধীরে ধীরে গেঁথে গেছিল তাঁর মনে। তিনিও ঠিক ওরকমই ভাবতে শুরু করে দিয়েছিলেন। আমি এই বিষয়ে জানামাত্রই একাধিকবার ওঁকে বুঝিয়েছিলাম। বকা পর্যন্ত দিয়েছিলাম। তবু কাজের কাজ হয়নি”।

বলিউডে সকলের অত্যন্ত প্রিয় ছিলেন ‘হরি ভাই’। তিনি দেখতে যতটা হ্যান্ডসাম ছিলেন, ব্যক্তিগতভাবে ঠিক ততটাই চিত্তাকর্ষক ছিলেন। সবথেকে সুন্দর ছিল তার হাসিটি। এমন একজন মানুষের প্রতি মেয়েরা আকৃষ্ট হবেন এমনটাই তো স্বাভাবিক। তবে তার মনে বদ্ধমূল ধারণা গেঁথে গিয়েছিল যে মহিলারা শুধু তার সম্পত্তির কারণেই তার সঙ্গে প্রেমের ভান করেন! তাইতো শেষ পর্যন্ত বিয়েটা আর করা হয়ে উঠলো না তার। উল্লেখ্য, এই বলিউড অভিনেতা মাত্র ৪৭ বছর বয়সেই প্রয়াত হন।