দর্শকদের চাপে সিদ্ধান্ত বদল, অবশেষে ‘এই পথ যদি না শেষ হয়’তে ফিরছে এই জনপ্রিয় জুটি

দর্শকদের দাবি মেনে 'এই পথ যদি না শেষ হয়'তে ফিরছে জনপ্রিয় জুটি

বাংলা ধারাবাহিকগুলো (Bengali Mega Serial) কার্যত দর্শকদের রোজনামচার একটা অংশ। পছন্দের ধারাবাহিকগুলোতে কী কী ঘটছে না ঘটছে তার উপর নজর থাকে দর্শকদের। ধারাবাহিকের প্রতিটি সদস্যও ঠিক ততোখানি গুরুত্ব পায়। তাই জনপ্রিয় ধারাবাহিক থেকে যদি প্রিয় চরিত্রদের সরিয়ে নেওয়া হয় তাহলে ফুঁসে ওঠেন দর্শকরা। যেমনটা ঘটেছিল জি বাংলার (Zee Bangla) ‘এই পথ যদি না শেষ হয়’ (Ei Poth Jodi Na Sesh Hoi) ধারাবাহিকে।

আর পাঁচটা কুটকাচালিমূলক ধারাবাহিকের তুলনায় এই ধারাবাহিকের গল্প একেবারেই আলাদা। নায়ক-নায়িকার তিন চারবার বিয়ে নেই, অযথা গল্পকে টেনে নিয়ে যাওয়ার প্রবণতা নেই, আছে শুধু হাসির মোড়কে মোড়া দুর্দান্ত এক ফ্যামিলি ড্রামা। এই গল্পের ছোট দাদু এবং ছোট ঠাম্মি অর্থাৎ ফাল্গুনী চ্যাটার্জী (Falguni Chatterjee) এবং মানসী সিনহার (Manasi Sinha) জুটিকে দারুণ পছন্দ করেন দর্শকরা।

তবে বিগত কয়েকদিন ধরে এই ধারাবাহিকে ছোট ঠাম্মি এবং ছোট দাদুকে দেখা যাচ্ছে না। তাই বিগত কয়েক সপ্তাহ ধরে এই নিয়ে ধারাবাহিকের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দিচ্ছিলেন দর্শকরা। কোনও কারণ ছাড়াই আচমকা এই জুটিকে গল্পের ট্র্যাক থেকে বাদ দেওয়ার কারণে ফুঁসছিল নেট পাড়া। অবশেষে দর্শকদের দাবি মেনেই ধারাবাহিকে ফিরলেন দর্শকদের পছন্দের এই জুটি। এই বিষয়ে সংবাদমাধ্যমের কাছে মুখ খুলেছেন ছোট দাদু, ছোট ঠাম্মি এবং ধারাবাহিকের প্রযোজক স্বর্ণেন্দু সমাদ্দার।

পারিশ্রমিকজনিত সমস্যা নিয়ে যে অভিযোগ উঠছিল তা অস্বীকার করে স্বর্ণেন্দু বলেন, ‘সময় নিয়ে সমস্যা হচ্ছিল বলে দুজন শিল্পী বাদ পড়েছিলেন। তাঁরা তো পারিশ্রমিক নিয়ে অভিযোগ জানাননি। এখন গল্পের মোড় ঘুরে গিয়েছে। তাঁর আবার ফিরেছেন’। অন্যদিকে ছোট ঠাম্মি অর্থাৎ অভিনেত্রী মানসী সিনহা জানিয়েছেন অংশুমান প্রত্যুষের ছবির শুটিংয়ের কারণে তিনি গত কয়েক সপ্তাহ ধরে লন্ডনে ছিলেন।

তার কথায়, ‘আমার চরিত্রটি বাদ রাখা হয়েছিল বলেই হয়তো ছোট দাদুর চরিত্রটি গল্প থেকে বাদ পড়ে।’ অন্যদিকে আচমকা ধারাবাহিক থেকে বাদ পড়ায় সোশ্যাল মিডিয়াতে আক্ষেপ জানিয়েছিলেন ফাল্গুনী চ্যাটার্জী।তবে এখন ফাল্গুনী চট্টোপাধ্যায় আবার ধারাবাহিকে ফিরতে পেরে খুশি। তিনি জানিয়েছেন, ‘শুরুতে বিষয়টা নিয়ে ধোঁয়াশা ছিল তাই অভিযোগ জানিয়েছিলাম। এখন বিষয়টা পরিষ্কার হয়ে গেছে। ভালো মনেই ফিরছি।’ এদিকে ছোট ঠাম্মি এবং ছোটদাদুর ফিরে আসার খবর মিলতেই খুশি উপচে পড়ছে সোশ্যাল মিডিয়াতে।