গুনগুনের পর এবার মরলো লালন, ধুলোকণা দেখে রেগে বয়কটের ডাক দর্শকদের

‘লীনা পিসিকে আর নেওয়া যাচ্ছে না’, গুনগুনের পর লালনকে মেরে দর্শকদের বিচারে ভিলেন লেখিকা

স্টার জলসার (Star Jalsha) ধুলোকণা (Dhulokona) ধারাবাহিকে এখন বেশ আনন্দের পরিবেশ তৈরি হয়েছে। বিয়ের পর পরিবার নিয়ে সমুদ্রে ঘুরতে গিয়েছে লালন-ফুলঝুরি। নায়ক-নায়িকার বিয়ের সময় থেকেই ধারাবাহিকের টিআরপি তরতরিয়ে বেড়েছে। এখন চলছে লালন-ফুলঝুরির হানিমুন স্পেশাল পর্ব। প্রিয় জুটির রোমান্স এখন চুটিয়ে উপভোগ করছেন দর্শকরা। তবে এরই মাঝে ঘটে গেল বিপদ।

সম্প্রতি চ্যানেলের তরফ থেকে ধূলোকণার নতুন প্রোমো শেয়ার করা হয়েছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে সকলে মিলে সমুদ্রে বেশ ভালই মজা করে দিন কাটাচ্ছে। লালন, ফুলঝুরির সঙ্গে মিনি, মিনির মাস্টার মশাই, কমলিনী, শান, চড়ুই, চড়ুইয়ের মা চান্দ্রেয়ী সকলেই সমুদ্রে ঘুরছে। লালন-ফুলঝুরিকে এত কাছাকাছি দেখে মোটেই সহ্য হচ্ছে না চড়ুই এবং তার মায়ের।

ধারাবাহিকের গল্পে দেখানো হয়েছে ঘুরতে গিয়েও চান্দ্রেয়ী তার এক পুরনো বান্ধবীকে খুঁজে পেয়েছে। চড়ুইয়ের কষ্ট দেখে লালন-ফুলঝুরিকে নতুন করে বিপদে ফেলতে চাইছে চান্দ্রেয়ী। যেনতেন প্রকারেন ফুলঝুরির সর্বনাশ করার চেষ্টা করে যাচ্ছে সে। সত্যি সত্যিই এরপর ঘটে গেল বিপদ। ধারাবাহিকের নতুন প্রোমোতে দেখা যাচ্ছে কোনও এক অচেনা ব্যক্তি লালনকে সমুদ্রের বুকে টেনে নিয়ে যাচ্ছে।

প্রোমোতে পরের দৃশ্যে দেখানো হয় লালন বলে চিৎকার করেই বুকফাটা কান্নায় ভেঙে পড়েছে ফুলঝুরি। অর্থাৎ দর্শকদের বুঝে নিতে অসুবিধা হয় না যে সমুদ্রে ডুবে হারিয়ে যাবে লালন। এদিকে এই দৃশ্য দেখে সোশ্যাল মিডিয়াতে শুরু হয়েছে জোর ট্রোলিং। ঘুরতে গিয়ে নায়ক-নায়িকার প্রত্যেকবার এই একই বিপদ দেখে দেখে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছেন তারা।

সমুদ্রে লালনকে ডুবে যেতে দেখে নেটিজেনরা গল্পের লেখিকা লীনা গাঙ্গুলীকে তুলোধোনা করছেন। তাদের দাবি লেখিকার বেশিরভাগ ধারাবাহিকের গল্পেই এরকম একটা দৃশ্য থাকেই। গল্পে নতুন মোড় আনার জন্য নায়ক-নায়িকাকে পাহাড় কিংবা সমুদ্রে মেরে ফেলেন নায়িকা। তবে পরে আবার তাকে ফিরিয়ে আনারও ব্যবস্থা করেন তিনি।

তাই এই প্রোমো দেখে মোটেও উদ্বিগ্ন নন দর্শকরা। তারা নিশ্চিত লালন এখন সমুদ্রে হারিয়ে গেলেও পরে আবার ঠিক বেঁচে ফিরবে। অন্যান্য গল্পের মত এখানেও হারিয়ে যেতে পারে তার স্মৃতি, বা অন্ধ হয়ে যেতে পারে সে। কেউ কেউ বলছেন লালনকে বাঁচাতে গল্পে এবার আসবে নতুন নায়িকা। কেউ বলছেন নকশী কাঁথার গল্পটাই আবারও টুকে দিয়েছেন লেখিকা!