লক্ষ্মী এসেছে রামায়ণের রাম-সীতার ঘরে, একরত্তির মুখ দেখালেন দেবিনা-গুরমিত

ফুলের মত মেয়ে পেয়েছেন দেবিনা-গুরমিত, ভাইরাল খুদের একগুচ্ছ ছবি

সদ্য দুই থেকে তিন হয়েছেন দেবিনা বন্দ্যোপাধ্যায় (Debina Banerjee) এবং গুরমিত চৌধুরী (Gurmeet Choudhary)। গোটা দেশ তাদের চেনেন রামায়ণের রাম-সীতা হিসেবে। হিন্দি টেলিভিশন ইন্ডাস্ট্রির এই দুই তারকার ঘরে লক্ষ্মীর প্রবেশ হয়েছে। এপ্রিল মাসে কন্যা সন্তানের জন্ম দিয়েছেন দেবিনা। এখন একরত্তিকে নিয়েই কাটছে তাদের দিন। যদিও এতদিন অবশ্য সন্তানকে সোশ্যাল মিডিয়া থেকে দূরেই রেখেছিলেন তারা। এবার সেই দূরত্ব ঘুঁচলো।

ছোট্ট শিশু কন্যার নাম তারা রেখেছেন লিয়ানা। এই প্রথমবার লিওনার ছবি সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করলেন দেবিনা। একরত্তির একগুচ্ছ ছবি দেখে মন ভরে গিয়েছে নেটিজেনদের। যেন তাদের বহুদিনের প্রতীক্ষার অবসান হল। লিয়ানাকে দেখে চোখ জুড়ালো গুরমিত-দেবিনার ভক্তদের।

দেখতে দেখতে ৩ মাসে পা দিয়ে ফেলল লিয়ানা। সাদা রঙের ক্রোসেটের ড্রেস পরে বাবা-মায়ের থেকে স্নেহের চুম্বন আদায় করে নিচ্ছে সে। মেয়েকে আদর করতে করতে আবেশে দু-চোখ বন্ধ হয়ে এসেছে গুরমিত-দেবিনার। এমন একটি আদুরে ছবির কমেন্ট বক্সে নতুন বাবা-মাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন নেটিজেনরা।

ছবি শেয়ার করে ক্যাপশনে দেবিনা লিখেছেন, ‘এই যে লিয়ানা… আমাদের হৃদয় ওর কাছে গিয়ে মিশেছে। আমরা খুব খুশি এটা জানতে পেরে যে আমার আশেপাশের মানুষগুলো এত ভালোবাসে আমার মেয়েকে, আর ওর মুখটা দেখার জন্য অধীরে অপেক্ষা করে আছে।’

দেবিনা এবং গুরমিত মেয়ের নামে ইতিমধ্যেই ইনস্টাগ্রামে একটি প্রোফাইল খুলে ফেলেছেন। ইতিমধ্যেই সেখানে ১৮ হাজার ফলোয়ার্স ভিড় করেছেন। মেয়ের সঙ্গে কাটানো নানা মুহূর্তের ছবি সেখানে শেয়ার করেন তারা। দেখে খুশিতে ভরে ওঠে নেটিজেনদের মন।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Debina Bonnerjee (@debinabon)

যদিও মেয়ের জন্মের পর সোশ্যাল মিডিয়াতে নানাভাবে কটাক্ষের সম্মুখীন হতে হয়েছিল দেবিনাকে। যার জবাব দিতে গিয়ে নিজের মা, শাশুড়ি, গুরমিত এবং লিয়ানাকে নিয়ে একটি ছবি শেয়ার করে তিনি লিখেছিলেন, “আপনাদের মনে অনেক প্রশ্ন। কেন আমি আমার মেয়েকে এভাবে ধরি। কেন শাশুড়িকে আন্টি বলি।’ তিনি এরপর যোগ করলেন, ‘আমি শুধু বলতে চাই আমার চারপাশে রয়েছে কিছু নিরাপত্তাপ্রাদনকারী হাত, যেমন আপনারা দেখছেন। যারা আমাকে বলে, সব ঠিক আছে।’’

 

View this post on Instagram

 

A post shared by HT City (@htcity)