অর্থাভাবে চরম কষ্টে কেটেছে দিন, মন ফাগুনের অনুষ্কার সংগ্রামে মন ভিজলো দর্শকদের

অর্থাভাব থেকে জীবন সংগ্রাম, পুরনো কথা বলতে গিয়ে কেঁদেই ফেললেন মন ফাগুনের অনুষ্কা

স্টার জলসার (Star Jalsha) মন ফাগুন (Mon Phagun) ধারাবাহিকটি বেশ আগ্রহ নিয়েই দেখছেন দর্শকরা। ধারাবাহিকের ঋষি-পিহুর জুটি ছাড়াও ঋত্বিক এবং অনুষ্কার জুটিটাও বেশ পছন্দ করেন দর্শকরা। এই মিষ্টি জুটির প্রেম জমিয়ে উপভোগ করেন দর্শকরা। সেই সঙ্গে মিষ্টি মেয়ে অনুষ্কা ওরফে অমৃতা দেবনাথকেও (Amrita Debnath) বেশ পছন্দ করেন তারা।

বাংলা টেলিভিশনের সঙ্গে অমৃতার যোগাযোগ বেশ কয়েক বছরের পুরনো। এর আগেও বেশ কিছু ধারাবাহিকে তাকে অভিনয় করতে দেখা গিয়েছিল। অভিনয়ে কিভাবে এলেন অমৃতা? সেই গল্পটা তিনি শেয়ার করে নিয়েছিলেন দিদি নাম্বার ওয়ানের মঞ্চে এসে।

অমৃতা ফ্যাশন ডিজাইনিং নিয়ে পড়াশোনা করেছিলেন। তার বাবার একটি সামান্য চাকরি ছিল। সেই চাকরি দিয়ে মেয়ের পড়াশোনার খরচ চালানো সম্ভব হচ্ছিল না। সেই সময় সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলেন অমৃতার জ্যাঠামশাই।

জীবনে অনেক কষ্ট হলেও বাবা-মায়ের সামনে কখনও চোখের জল ফেলতে পারেননি অমৃতা। লুকিয়ে লুকিয়ে আড়ালে কাঁদতেন তিনি। এত কষ্টের মধ্যেও কলকাতায় এসে ফ্যাশন ডিজাইনিং নিয়ে তিনি পড়াশোনা করেন।

কিন্তু কলেজে পড়ার সময়ই আচমকা তাদের মাথার উপরে আকাশ ভেঙে পড়ে। ২০১৬ সালে তার বাবার চাকরিটা হঠাৎ চলে যায়। সেই সময় চরম আর্থিক সংকটের মধ্য দিয়ে যেতে হয়েছিল তাকে এবং তার পরিবারকে। পরিবারে তখন একমাত্র উপার্জনকারী হিসেবে পাশে দাঁড়িয়েছিলেন অমৃতা।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by ✨Amriitaa✨ (@amrita24__)

২০১৭ সালে প্রথম ‘দেবীপক্ষ’ ধারাবাহিকের মাধ্যমে অভিনয় জগতে অমৃতার অভিষেক হয়। এরপর থেকেই তিনি একের পর এক কাজ পেতে থাকেন। স্টার জলসার আগে জি বাংলাতে ‘বকুল কথা’ ধারাবাহিকে বকুলের ননদ এশার চরিত্রে নজর কেড়েছিলেন তিনি। আজ বাংলা টেলিভিশনের একজন জনপ্রিয় অভিনেত্রী হয়ে পরিবারকে আগলাচ্ছেন অমৃতা।