রূপঙ্করের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ, গান চুরির অপরাধে দায়ের হল মামলা

মহা ফাঁপরে পড়লেন রূপঙ্কর বাগচি, গান চুরির অভিযোগে থানায় দায়ের হল মামলা

A Singer Lodged a Complaint against Rupankar Bagchi for Copying a Song

রীতিমতো শনির দশায় জর্জরিত রূপঙ্কর বাগচী (Rupankar Bagchi)। তা না হলে কি আর এক মাসের মধ্যে এতবার বিপদে পড়তে হয় তাকে? কেকে বিতর্ক থেকে রূপঙ্করের দুর্দিন শুরু। এরপর থেকে পরপর বিতর্কে নিজেকে জড়িয়ে ফেলছেন বাংলার এই গায়ক। এবার এক উঠতি সংগীতশিল্পী মনোরমা ঘোষাল রূপঙ্করের বিরুদ্ধে গান চুরির অভিযোগ নিয়ে পুলিশের দ্বারস্থ হলেন।

ঘটনাটা ঠিক কী ঘটেছে? পুলিশের কাছে মনোরমা জানিয়েছেন ৭-৮ মাস আগে তিনি তার গানের শিক্ষক এর মাধ্যমে সঙ্গীত আয়োজক পার্থ বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। ২০২১ সালের নভেম্বর মাসে সাগর ‘তুমি কেন ডাকো’ গানের প্রথম ঝলক প্রকাশ করা হয়। গায়িকা জানিয়েছেন প্রথম ঝলক প্রকাশের পর প্রথম কিস্তিতে ১০ হাজার টাকা পার্থর হাতে তুলে দেন তিনি। এরপর ১২ই ডিসেম্বর তার গানটি মুক্তি পেলে ২৮ হাজার টাকা দিয়ে সেই গানটির স্বত্ত্ব তিনি কিনে নিয়েছিলেন পার্থর থেকে।

কিন্তু রূপঙ্করের বিধি বাম। তা না হলে কি আর তিনি সেই গানটিই আবার গেয়ে বসেন! এখন নিজের গানের স্বত্ত্ব ফিরে পাওয়ার আশায় নিউটাউন থানায় গায়কের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন মনোরমা। তার দাবি এই গানটির জন্য তার পকেট থেকে ৪৮ হাজার টাকা জলজ্যান্ত গচ্চা গিয়েছে! তার গানটি মুক্তি পেয়েছিল গত বছরের ডিসেম্বরে। আর রূপঙ্করের গানটি মুক্তি পেয়েছে গত বুধবার।

কিন্তু রূপঙ্করের গান মুক্তি পাওয়ার পর দেখা যায় মনোরমার গানটি ইউটিউব থেকে উধাও হয়ে গিয়েছে। সংগীত আয়োজক পার্থর বিরুদ্ধেই অভিযোগ তুলছেন মনোরমা। যদিও পার্থর দাবি, “আইনত কোনও ভাবেই মনোরমাকে ওই গান বিক্রি করা হয়নি। আমাকে উনি পাঁচ হাজার টাকা দিয়েছিলেন। বাকি টাকা যদি কাউকে দিয়ে থাকেন, আমি বলতে পারব না। উনি ভাল করে গানটি গাইতে পারেননি। তখন আমরা রূপঙ্কর’দার দ্বারস্থ হই। এখানে ওঁর (রূপঙ্কর) কোনও দোষ নেই।”

যদিও কোনও কিছুই শুনতে নারাজ মনোরমা। তার সাফ দাবি, ‘নতুনদের সুযোগ দেওয়া উচিত এই নীতিবিরুদ্ধ কাজ মেনে নেওয়া যায় না।’ এই বিষয়ে খোদ গায়কের কী বক্তব্য? রূপঙ্কর আনন্দবাজারের কাছে বলেছেন, ‘আমি এমন অনেক অ্যালবামে গান করি। যে চ্যানেল থেকে এই গান মুক্তি পেয়েছে, তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করুন।’