বাংলা সিরিয়ালে নতুন রেকর্ড গড়ল মিঠাই, গর্বিত মিঠাই ভক্তরা

বাংলা সিরিয়ালের ইতিহাসে মিঠাই গড়লো নতুন রেকর্ড, খুশিতে উপচে পড়ছে ভক্তরা

সোশ্যাল মিডিয়াতে নিত্যদিন জি বাংলার (Zee Bangla) মিঠাই (Mithai) ধারাবাহিকটিকে নিয়ে নানা ধরনের তরজা চালান নেটিজেনরা। মিঠাই ফ্যানদের সঙ্গে বিভিন্ন কারণ নিয়ে মাঝেমধ্যেই ঝামেলা বেঁধে যায় অন্যান্য ধারাবাহিকের ভক্তদের। মিঠাইকে নিয়ে নানা ধরনের ট্রোলও হয়। মিঠাইয়ের অতিরিক্ত ‘ন্যাকামি’ থেকে সিড ওরফে আদৃতের অভিনয় নিয়ে হয় সমালোচনা।

কিন্তু যে যাই বলুক না কেন, জি বাংলার এই সিরিয়ালটি শত সমালোচনা, কটাক্ষের মাঝেও কিন্তু এখনও দর্শকদের মাঝে সাড়া ফেলে দেওয়ার ক্ষমতা রাখে। সম্প্রতি তার প্রমাণ হয়ে গিয়েছে মিঠাইয়ের নতুন প্রোমোতে। মিঠাই ধারাবাহিকের গল্পে খুব শীঘ্রই অভাবনীয় পরিবর্তন আসছে। আর এতেই রেকর্ড গড়ে ফেলল মিঠাই।

আগামী ১৪ ই নভেম্বর থেকে বদলে যাবে মিঠাই সম্প্রচারের সময়। রাত ৮.০০ টার বদলে সন্ধ্যে ৬.০০ টার সময় নতুন গল্পের সঙ্গে শুরু হবে মিঠাই। খুব শীঘ্রই মিঠাইয়ের মৃত্যু দেখানো হবে। সিড-মিঠাইয়ের ছেলে শাক্য আরেকটু বড় হলেই ধারাবাহিকে আবার নতুন রূপে ফিরে আসবেন সৌমিতৃষা। নতুন প্রোমোতে দেখানো হয়েছে শাক্যের ম্যাডাম হিসেবে মনোহরাতে আসবে মিঠি নামের একটি মেয়ে। সে হুবহু মিঠাইয়ের মত দেখতে।

তবে মিঠিকে দেখে মিঠাই মনে হলেও তার সাজ পোশাক কিন্তু মিঠাইয়ের মত নয়। একেবারে আধুনিক পোশাকে নতুন লুকে সৌমিতৃষা আবার ফিরে আসবেন ধারাবাহিকে। এই প্রোমো আসতেই শোরগোল পড়ে গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়াতে। ফেসবুক এবং ইউটিউবে এই প্রোমো ভিডিওটি প্রচুর ভিউ পাচ্ছে।

মিঠাইয়ের প্রোমো আসতেই ফেসবুকে মাত্র ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ৩.৭ মিলিয়ন মানুষ সেটি দেখেছেন। মাত্র কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই এত বেশি ভিউ আসলে দর্শকদের আগ্রহের সুস্পষ্ট প্রমাণ। কোনও ধারাবাহিক ঠিক কতটা জনপ্রিয় হলে তার প্রোমো এত বেশি ভিউ পেতে পারে তা প্রমাণ হয়ে গিয়েছে এখান থেকেই। মিঠাইয়ের এই প্রোমো নতুন রেকর্ড গড়ে ফেলেছে।

উল্লেখ্য, নিন্দুকরা যে ধারাবাহিক নিয়ে যত বেশি ট্রোল করেন বাস্তবে কিন্তু সেই ধারাবাহিকেরই বেশি জনপ্রিয়তা লক্ষ্য করা যায়। এর আগে যেমন ‘কে আপন কে পর’ এর ক্ষেত্রেও সেটা লক্ষ্য করা গিয়েছিল। একই ঘটনা লক্ষ্য করা যাচ্ছে মিঠাইয়ের ক্ষেত্রেও। এখনো পর্যন্ত প্রায় ৫ মিলিয়নের কাছাকাছি মানুষ মিঠাইয়ের নতুন প্রোমো দেখেছেন। স্লট হারালেও নতুন ট্র্যাকের উপর ভর করে মিঠাই আরও বহুদিন পর্যন্ত ময়দানে টিকে থাকবে, এমনটাই বিশ্বাস মিঠাই ভক্তদের।