বউকে ডিভোর্স দিতে গিয়ে ভিখারী দশা শোয়েবের! সানিয়ার খোরপোষের অঙ্কটা শুনলে ঘুরবে মাথা

শোয়েবের থেকে খোরপোষ বাবদ বাবদ কত টাকা চাইতে পারেন সানিয়া, টাকার অঙ্কটা শুনলে চমকে যাবেন

দীর্ঘ ১২ বছরের সম্পর্ক ভেঙে এবার এক নতুন জীবন শুরু করতে চলেছেন সানিয়া মির্জা (Sania Mirza) এবং তার স্বামী শোয়েব মালিক (Shoaib Malik)। ১২ বছর আগে ধুমধাম করে বিয়ে করে অনেকটা ঠিক রূপকথার গল্পের মত পাকিস্তানি ক্রিকেটার শোয়েবের সঙ্গে সংসার পেতেছিলেন ভারতীয় টেনিস তারকা সানিয়া। এরপর পাকিস্তানে গিয়ে সুখের বসতি গড়ে তুলেছিলেন তারা। তবে সানিয়ার কপালে সেই সুখ রইল না।

স্বামী এক পাকিস্তানি মডেলের সঙ্গে পরকীয়ায় আসক্ত হয়েছেন। কথাটা কানে যেতেই শোয়েবকে ডিভোর্স দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেন সানিয়া। এখন শোয়েব এবং সানিয়ার দাম্পত্যের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে ভারত এবং পাকিস্তানে জোরদার আলোচনা হচ্ছে। এই নিয়ে কিন্তু একটি বাড়তি কথাও খরচ করেননি শোয়েব কিংবা সানিয়া। তবে তারা কিছু বলুন বা নাই বলুন, শোয়েব-সানিয়ার ডিভোর্স যে আসন্ন তা এক প্রকার নিশ্চিত হয়ে গিয়েছে।

শোয়েব-সানিয়ার বিচ্ছেদ হলে বর্তমান স্ত্রীকে কত টাকা খোরপোষ দিতে হতে পারে শোয়েবকে? শোয়েবের থেকে কত টাকা দাবি করতে পারেন সানিয়া? ২০১০ সালের রিপোর্ট অনুসারে শোয়েব যখন তার প্রথম স্ত্রী আয়েশা সিদ্দীকীকে ডিভোর্স দেন তখন আয়েশা শোয়েবের থেকে ১৫ কোটি টাকা খোরপোষ নেন। এছাড়াও শরীয়ত আইন অনুসারে প্রথম তিন মাস ৫ হাজার টাকা করে স্ত্রীকে দিয়েছিলেন এই পাক-ক্রিকেটর।

প্রথম স্ত্রীকে সরাসরি ১২ কোটি টাকা দিয়েছিলেন শোয়েব। এরপর ৩ কোটি টাকা পরে দিয়েছিলেন তিনি। শোয়েবের থেকে টাকা পেয়ে তবেই তার বিরুদ্ধে আনা সমস্ত অভিযোগ প্রত্যাহার করেছিলেন আয়েশা। এখন সানিয়াকে ডিভোর্স দিতে গেলে স্বাভাবিকভাবেই খোরপোষের অঙ্কটা অনেকটাই বাড়বে। ২০২২ সালের রিপোর্ট অনুসারে শোয়েব মালিক বর্তমানে ২৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের মালিক। প্রধানত ক্রিকেট থেকে তিনি উপার্জন করেন।

শোয়েব ক্রিকেট ছাড়াও বিনোদন জগত থেকেও এখন উপার্জন করছেন। পাকিস্তানি টেলিভিশনে কাজ করে এবং বিজ্ঞাপন করে তিনি প্রচুর টাকা উপার্জন করেন। উল্লেখ্য এরকমই একটি বোল্ড বিজ্ঞাপনের সুবাদে এক মডেলের সঙ্গে তার ঘনিষ্ঠতা ঘিরেই সানিয়ার সঙ্গে দাম্পত্য এখন ভাঙ্গনের মুখে দাঁড়িয়েছে। তবে তারা ডিভোর্স নিলেও ছেলের দায়িত্ব দুজনে মিলে সমানভাবে পালন করবেন বলে জানা গিয়েছে।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Sania Mirza (@mirzasaniar)

২০২২ সালে সানিয়ার মোট সম্পত্তির পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ২৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। সানিয়া ক্রীড়া জগত থেকে বছরে ৩ কোটি টাকার কাছাকাছি উপার্জন করেন। এছাড়া বিজ্ঞাপন থেকে বছরে ২৫ কোটি টাকা উপার্জন করেন তিনি। সেই সঙ্গে তার নিজের টেনিস অ্যাকাডেমিও রয়েছে। হায়দ্রাবাদের ১৩ কোটি টাকা দামের তার একটি বাড়ি রয়েছে। মুম্বাই এবং দুবাইতেও তিনি আলাদা বাড়ি কিনেছেন। বর্তমানে শোয়েবের বাড়ি ছেড়ে দিয়ে ছেলেকে নিয়ে আলাদা রয়েছেন সানিয়া।