টলিউডের ৬ মা ‘লক্ষ্মী’, তাঁরা যে ছবিতেই হাত দেন, তাতেই সোনা ফলে

বক্স অফিসে এনেছেন লক্ষ্মী, সিনেমায় হাত দিলেই সোনা!, চিনে নিন টলিউডের ৬ মা ‘লক্ষ্মী’কে

টলিউড (Tollywood) সুন্দরীরা আজ রাজত্ব করছেন ইন্ডাস্ট্রিতে। এখন আর সিনেমা শুধু নায়ক কেন্দ্রিক নয়। নায়কের পাশাপাশি নায়িকার ভূমিকাও সমান প্রাধান্য পাচ্ছে টলিউডে। জেনে নিন টলিউডের সেই সেরা সুন্দরীদের নাম, যারা বক্স অফিসকে কখনো বিমুখ করেননি। তারা যে সিনেমাতে অভিনয় করেছেন, সিনেমা হয়েছে সুপারহিট। টলিউডের সেই অভিনেত্রীদের নিয়েই আজকের এই প্রতিবেদন।

শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায় (Subhashree Ganguly) : ২০০৮ সালে ‘পিতৃভূমি’ ছবির হাত ধরে প্রথম অভিনয় শুরু করেন শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায়। সেখানে তিনি হয়েছিলেন জিতের বোন। ঠিক এক বছরের মাথায় দেবের বিপরীতে ‘চ্যালেঞ্জ’ ছবি দিয়ে শুরু হয়েছিল তার জয়যাত্রা। তারপর আর তাকে কখনও পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। ‘পরান যায় জ্বলিয়া রে’, ‘বস’, ‘রোমিও’ থেকে শুরু করে ‘পরিণীতা’, তার অভিনীত প্রত্যেকটি ছবি বক্স অফিসে দুর্দান্ত সাফল্য এনে দিয়েছে।

মিমি চক্রবর্তী (Mimi Chakraborty) : অভিনয় জীবনে তার যাত্রা শুরু হয়েছিল ধারাবাহিকের হাত ধরে। ‘গানের ওপারে’তে ‘পুপে’র চরিত্রে অভিনয় করার পর ২০১২ তে ‘বোঝেনা সে বোঝেনা’ ছবি মারফত শুরু হয় তার কেরিয়ার। ‘প্রলয়’, ‘যোদ্ধা’, ‘কী করে তোকে বলব’, ‘পোস্ত’ ‘ধনঞ্জয়’, তার সাফল্যের ঝুলিতে রয়েছে একাধিক সুপারহিট সিনেমা। পুজোর মরশুমে জিতের সঙ্গে তার নতুন ছবি ‘বাজি’ও বাজিমাত করেছে।

Isha Saha

ইশা সাহা (Isha Saha) : অন্যদের তুলনায় তার অভিনয় কেরিয়ারের মেয়াদ স্বল্প। ২০১৬ সালে ‘ঝাঁঝ লবঙ্গ ফুল’ ধারাবাহিকের হাত ধরে তিনি অভিনয় জগতে প্রবেশ করেন। এক বছরের মধ্যেই সিনেমায় অভিনয় করার অফার পান তিনি। ‘প্রজাপতি বিস্কুট’, ‘গুপ্তধনের সন্ধানে’, ‘সোয়েটার’, ‘দুর্গেশগড়ের গুপ্তধন’, মাত্র দুই বছরের মধ্যেই একাধিক ছবি নিজের ঝুলিতে পুরে ফেলেছেন ইশা। পুজোর মুখে মুক্তি পেয়েছে দেবের সঙ্গে তার অভিনীত ছবি ‘গোলন্দাজ’। এই ছবিটিও বক্সঅফিস ভরিয়ে তুলেছে।

কোয়েল মল্লিক (Koel Mallick) : সেই ২০০৩ সালে ‘নাটের গুরু’ ছবির হাত ধরে অভিনয় শুরু করেন কোয়েল মল্লিক। দীর্ঘ কেরিয়ারে ‘বন্ধন’, ‘শুভদৃষ্টি’, ‘সাত পাকে বাঁধা’, ‘প্রেমের কাহিনী’, ‘মন মানে না’র মতো একাধিক সুপারহিট সিনেমা তিনি দর্শকদের উপহার দিয়েছেন। বাণিজ্যিক ছবি ছাড়াও ‘রক্তরহস্য’, ‘হাইওয়ে’, ‘হেমলক সোসাইটি’, ‘মিতিনমাসি’তে অভিনয় করেও সাফল্য পেয়েছেন তিনি। সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে তার অভিনীত ‘বনি’ ছবিটি।

রাইমা সেন (Raima Sen) : টলিউড তথা বলিউড, দুই ইন্ডাস্ট্রিতেই সমান স্বচ্ছন্দ্য রাইমা। ‘চোখের বালি’, ‘নীল নির্জনে’, ‘অন্তরমহল’, ‘নৌকাডুবি’, ‘বাইশে শ্রাবণ’, আবার বলিউডে ‘পরিণীতা’, ‘হানিমুন ট্রাভেলস প্রাইভেট লিমিটেড’ ছবিতে অভিনয় করেছেন রাইমা। তার শেষ ছবি ‘দ্বিতীয় পুরুষ’ও বাণিজ্যিকভাবে সফল হয়েছে।

Paoli Dam at Cannes Film Festival

পাওলি দাম (Paoli Dam) : প্রথম জীবনে টেলিভিশনের পর্দায় বিভিন্ন টেলিফিল্ম এবং ধারাবাহিকে অভিনয় করে কেরিয়ার শুরু করেছিলেন পাওলি। ধীরে ধীরে সিনেমাতে কাজ পেতে থাকেন তিনি। ‘তিন ইয়ারি কথা’ ছবিতে অভিনয় করে বড় পর্দায় পা রাখেন পাওলি। এরপর ‘মনের মানুষ’, ‘এলার চার অধ্যায়’, ‘ক্ষত’, ‘জুলফিকার’, ‘কণ্ঠ’, ‘লাভ আজ কাল পরশু’, তার অভিনীত ছবিগুলি বক্স অফিসে বেশ সাফল্য পেয়েছে।