শখের দাম লাখ টাকা! টলিউড তারকাদের কার কি শখ, শুটিং বাদে কে কি করে

Riya Chatterjee

Updated on:

টলিউড (Tollywood) তারকাদের স্ক্রীন প্রেজেন্সে মুগ্ধ দর্শকরা। সকলেই তাদের অভিনয়গুণের সঙ্গে পরিচিত। তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে অনেকেই হয়তো জানেন না পছন্দের টলি-তারকারা অভিনয় ছাড়াও হাজার গুণ রাখেন নিজেদের মধ্যে। দৈনন্দিন লাইট-ক্যামেরা-অ্যাকশনের জীবনের বাইরে তাদের একান্ত ব্যাক্তিগত কিছু গুন রয়েছে যা তাদের সকলের থেকে আলাদা করে। এক নজরে দেখে নিন সেই তালিকা।

ঋতাভরী চক্রবর্তী (Ritabhari Chakraborty) : ছোটপর্দার ‘ললিতা’ বা বড় পর্দার ‘শবরী’, রূপে-গুণে অভিনয়ে টলিউডের প্রথম সারির নায়িকা ঋতাভরী চক্রবর্তী অভিনয় ছাড়াও এক বিশেষ শখ রাখেন। তিনি মিনিয়েচার আর্টের অনুরাগী। অর্থাৎ যে কোনও জিনিসের ক্ষুদ্র সংস্করণ তৈরি করতে পারেন তিনি।

চিরঞ্জিত চক্রবর্তী (Chiranjit Chakraborty) : বাংলা সিনেমার জনপ্রিয় তারকা অভিনেতা চিরঞ্জিত চক্রবর্তী অভিনয়ের বাইরে ছবি আঁকতে ভালোবাসেন। সময় সুযোগ পেলেই তিনি হাতে তুলে নেন রং-তুলি। তারপর কল্পনার সাগরে ডুব দেন। এছাড়াও অবসর সময়ে কাব্যচর্চা করেও তার বেশ সময় কাটে।

মুনমুন সেন (Munmun Sen) : সুচিত্রা সেনের কন্যাও একাধিক গুণের অধিকারী। অভিনয় ছাড়াও তিনি ছবি আঁকেন অবসর সময়ে। যারা তার ছবি দেখেছেন তারা প্রশংসায় ভরিয়ে দেয় তার শিল্পকর্মকে।

রাহুল অরুণোদয় ব্যানার্জি (Rahul Arunodoy Banerjee) : অভিনেতা রাহুল খুব তাড়াতাড়িই পরিচালক হয়ে উঠবেন। এ ছাড়াও তার আরেকটি পরিচয় আছে, তিনি বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় নিয়মিত লেখালেখি করেন। অভিনয়ের পাশাপাশি রাহুলের লেখার অনুরাগী সংখ্যাও কিছু কম নয়।

ঋষি কৌশিক (Rishi Koushik) : ঋষি কৌশিক বরাবর অ্যাডভেঞ্চারপ্রেমী। বাইক রেসিংয়ের প্রতি তিনি তীব্র টান অনুভব করেন। শহর-গ্রামের রাস্তা ধরে লম্বা সফর কিংবা দুর্গম পাহাড়ি পথে বাইক নিয়ে ছুটে বেড়াতে ভালোবাসেন ঋষি কৌশিক।

রুকমা রায় (Rooqma Roy) : ‘দেশের মাটি’র মাম্পি বা ‘খড়কুটো’র তিন্নি, ছোটপর্দার ‘কিরণমালা’ দর্শকের ভীষণ পছন্দের অভিনেত্রী। অভিনয় ছাড়াও রুকমার গানের গলা মুগ্ধ করে শ্রোতাদের। বন্ধুদের আড্ডায় আসর জমিয়ে দেওয়খর জন্য রুকমার গানই যথেষ্ট। এই গুণে তিনি গানের একটি রিয়েলিটি শোয়ের সঞ্চালনার দায়িত্বও পেয়েছিলেন।

সন্দীপ্তা সেন (Sandipta Sen) : টেলিভিশনের আরেক তারকা সন্দীপ্তা সেন। অবসর সময়ে নাচ হয়ে ওঠে তার সময় কাটানোর হাতিয়ার। এছাড়াও তিনি মানসিকভাবে বিধ্বস্ত মানুষদের কাউন্সেলিংও করেন অবসর সময়ে। রাজাবাজার সায়েন্স কলেজ থেকে মনোবিদ্যা নিয়ে পড়াশোনা করেছেন অভিনেত্রী। লকডাউনে তিনি সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন, তাদের কাউন্সেলিং করতে শুরু করেছিলেন।

সব্যসাচী চক্রবর্তী (Sabyasachi Chakraborty) : সময়-সুযোগ পেলেই ক্যামেরা হাতে ছবি তোলেন সব্যসাচী। মনের মত কিছু দেখলেই টুকুস করে একখানি ছবি তার চাইই চাই। বনে জঙ্গলে ঘুরে বন্যপ্রাণীর ছবি তোলা তার শখের মধ্যে পড়ে। ফটোগ্রাফারদের মধ্যে সব্যসাচীর তোলা ছবি নিয়ে বেশ চর্চাও হয়।

বাদশা মৈত্র (Badsha Maitra) : সব্যসাচীর মত ছবি তুলতে পছন্দ করেন বাদশাও। অভিনয় এবং রাজনীতির বাইরে অবসর সময়ে ক্যামেরা নিয়ে দিন কাটে তার। বনে-জঙ্গলে ঘুরে ঘুরে তিনি বহু ছবি তুলেছেন।

সোহিনী সরকার (Sohini Sarkar): টলিউডের ব্যস্ততম অভিনেত্রী সোহিনী সরকার। ছবির বাইরে থিয়েটার নিয়ে ব্যস্ত থাকেন তিনি। তার বাইরেও সময় পেলে বই হাতে সময় কাটে তার।