তলানিতে টিআরপি, বন্ধ হয়ে যাচ্ছে স্টার জলসার আরও এক ধারাবাহিক

টিআরপি কম, স্টার জলসার একের পর এক ধারাবাহিক বন্ধ হয়ে যাচ্ছে

Bangla serial shooting

৮০০ পর্বেই নিভে যাবে ‘সাঁঝের বাতি’ (Sanjher Bati)। ‘অর্জুন-চিকু’র নতুন পৃথিবী দর্শককে সেভাবে টানতে পারলো না।‌ টিআরপি তালিকায় পেছাতে পেছাতে একেবারে তলানিতে গিয়ে পৌঁছেছে স্টার জলসার (Star Jalsha) এই ধারাবাহিক। তাই শেষমেষ হাজার পর্বে পৌঁছানোর আগেই বন্ধ হয়ে যাচ্ছে ধারাবাহিকের সফর।

শনিবার ধারাবাহিকের ৮০০ তম এপিসোডের শুটিং সেরে অভিনেতা রিজওয়ান রাব্বানি শেখ (Rezwan Rabbani Sheikh) ও দেবচন্দ্রিমা সিংহ রায় (Debchandrima Singha Roy) ও কলাকুশলীরা ছোটখাটো একটি পার্টির মাধ্যমে বিদায় অনুষ্ঠান সারলেন। পরস্পরকে কৃতজ্ঞতা জানিয়ে দেদার সেলফি তুলে দিনটিকে স্মরণীয় করে রাখলেন তারা। শুটিং সেটে এদিন উপস্থিত ছিলেন প্রয়োজক স্নিগ্ধা বসু এবং সানি দাস।

গ্রামের সহজ, সরল, সাদাসিধে মিষ্টি বিক্রেতা মেয়ে চারু এবং বড়লোক বাড়ির অন্ধ ছেলে আর্যর প্রেমের কেমিস্ট্রি দর্শকদের প্রথম থেকে বেশ আকর্ষণ করেছে। তবে ধারাবাহিক নানা মোড় ঘুরে অর্জুন-চিকুতে এসে থামছে। ধারাবাহিকে টুইস্ট আনতে নায়ক-নায়িকার পুনর্জন্মও দেখানো হয়েছিল।

সদ্য ধারাবাহিক থেকে বিদায় নিয়েছেন জুন মালিয়া। এরপর অর্জুন-চিকুর যাত্রাপথও এখানেই শেষ হচ্ছে। ধারাবাহিকপ্রেমীদের মধ্যে অর্জুন-চিকুর অনস্ক্রিন কেমিস্ট্রির পাশাপাশি ‌রিজওয়ান ও দেবচন্দ্রিমার অফস্ক্রিন রোমান্স নিয়েও চর্চা কিছু কম নয়। যদিও তারা তাদের সম্পর্ককে ভালো বন্ধুত্বের সম্পর্ক বলতেই রাজি।

শেষদিনের শুটিংয়ে ইমোশনাল হয়ে পড়লেন সকলে। এই ধারাবাহিকের ইউনিটের সদস্যদের 3 বছরের সম্পর্ক। শুটিং সেট থেকে শেষ বারের জন্য অনুরাগীদের উদ্দেশ্যে আর্য-চারুর বার্তা ছিল, “হয়তো দুটো লকডাউন না থাকলে এতদিনে ১০০০ এপিসোড হয়ে যেত আমাদের। সবের ভাগ্য আগে থেকেই নির্ধারিত থাকে, আমরা ৮০০ পর্বেই ইতি টানছি”।

অনুরাগীদের উদ্দেশ্যে রিজওয়ান আরও বলেছেন, “আমরা খুব এনজয় করেছি এই কাজটা, আশা করছি তোমরাও ততটাই এনজয় করেছো”। ভবিষ্যতে ফের নতুনভাবে ফিরে আসার আশ্বাস দিয়েছেন তারা। ‘সাঁঝের বাতি’র শেষ সম্প্রচার কবে তা অবশ্য সুস্পষ্টভাবে জানানো হয়নি। তবে মনে করা হচ্ছে আগামী সপ্তাহেই হয়তো ধারাবাহিকের শেষ সম্প্রচার হবে।